মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ ২০২১, ০১:২৩ পূর্বাহ্ন

Notice :

কোথাও নেই ‘স্বাস্থ্যবিধি’!

স্টাফ রিপোর্টার ::
করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ চলছে। কিন্তু মহামারি এ ভাইরাস নিয়ে মানুষের মধ্যে নেই কোনো ভীতি-উদ্বেগ। সরকার ‘নো মাস্ক নো সার্ভিস’ ঘোষণা করেছে; স্বাস্থ্যবিধি মানা ও সামাজিক দূরত্ব রক্ষার প্রচারণা চালাচ্ছে। অথচ সেদিকে কারোরই ভ্রুক্ষপ নেই। গণপরিবহন, হাট-বাজার, বিপণিবিতান, কোথাও মানুষ স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না।
শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) সিলেট বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য)’র কার্যালয়ের কোভিড-১৯ কোয়ারেন্টিন ও আইসোলেশনের দৈনিক প্রতিবেদন থেকে জানাযায়, শুক্রবার পর্যন্ত সিলেট বিভাগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২৭২ জন। এরমধ্যে সিলেট জেলার ২০৮ জন, সুনামগঞ্জে ২৬ জন, হবিগঞ্জে ১৬ জন এবং মৌলভীবাজারের ২২ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে কেউ মারা যাননি। একই সময়ে আরও ৩০ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ৮৫৩ জন। এরমধ্যে সিলেট জেলায় ৯ হাজার ৪২৬ জন, সুনামগঞ্জে ২ হাজার ৫৩১, হবিগঞ্জে ১ হাজার ৯৭৭ এবং মৌলভীবাজারে ১ হাজার ৯১৯ জন। এছাড়া সব মিলিয়ে সিলেট বিভাগে সুস্থ রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৯৮১ জন। এরমধ্যে সিলেট জেলার ৯ হাজার ৭৫ জন, সুনামগঞ্জে ২ হাজার ৪৯১ জন, হবিগঞ্জে ১৬০৬ জন এবং মৌলভীবাজারের ১৮০৯ জন সুস্থ হয়েছেন।
অন্যদিকে গত ১০ মার্চ থেকে শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) সকাল ৮টা পর্যন্ত সিলেট বিভাগে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে ২৩ হাজার ৭৩৫ জনকে। এর মধ্যে কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে ২৩ হাজার ৩১৩ জনকে। বর্তমানে সিলেট বিভাগে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন ৪২২ জন।
অপরদিকে, সুনামগঞ্জ শহরের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, কেউ স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না। মুখে মাস্ক পরেন না অর্ধেক মানুষ। কেউ কেউ থুতনিতে মাস্ক পরেন। কোথাও মানা হচ্ছে না সামাজিক দূরত্ব। এছাড়া শহরের বিভিন্ন অলিগলিতেও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কোনো বালাই চোখে পড়েনি। দোকানে দোকানে ভিড় করছেন মানুষ। বাজারের চিত্র দেখে বোঝা মুশকিল যে দেশে করোনাভাইরাস নামে ভয়াবহ কোনো সংক্রমণ ব্যাধি আছে।
গণপরিবহনগুলোতেও স্বাস্থ্যবিধি মানার তেমন কোনো তোড়জোড় নেই। যাত্রীদের তোলার সময় কোনোধরনের হ্যান্ড স্যানিটাইজার দেয়া হচ্ছে না। মানা হচ্ছে না সামাজিক দূরত্বও।
এমন পরিস্থিতিতে জনসাধারণকে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান জোরদারের দাবি জানিয়েছেন সচেতন নাগরিকরা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, স্বাস্থ্যবিধি না মানলে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলা সহজ হবে না। তাই প্রত্যেককে মাস্ক পরতে হবে, স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। এর কোনো বিকল্প নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী