বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ১০:০৮ পূর্বাহ্ন

Notice :

জেলা প্রশাসক আব্দুল আহাদকে নিয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের ‘হৃদ্যতা সমাবেশ’

স্টাফ রিপোর্টার ::
জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদকে নিয়ে ‘হৃদ্যতা সমাবেশে’ মিলিত হয়েছিলেন সুনামগঞ্জের বীর মুক্তিযোদ্ধা, যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং শহীদ পরিবারের সদস্যরা। বুধবার দুপুরে জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন মিলনায়তনে সুনামগঞ্জ জেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ড ও সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের আয়োজনে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন জেলা সাবেক মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ডার হাজী নূরুল মোমেন।
সমাবেশে বিদায়ী জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদকে কাছে পেয়ে উপস্থিত বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং তাদের স্বজনরা আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন।
বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাড. আসাদ উল্লাহ সরকারের পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. জসিম উদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলী আমজাদ, যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু সুফিয়ান, শহীদ আবুল হোসেনের স্ত্রী রহিমা বেগম, প্রফেসর পরিমল কান্তি দে, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস শহীদ মিয়া, আলী হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হায়দার চৌধুরী লিটন, সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইয়াসমিন নাহার রুমা প্রমুখ।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, সুনামগঞ্জের মুক্তিযুদ্ধ ও তার ইতিহাস ধরে রাখায় কাজ করেছেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ। মুক্তিযোদ্ধাদের জীবনমান উন্নয়ন ও অবহেলিত মুক্তিযোদ্ধাদের তিনি সর্বোচ্চ সম্মান দিয়েছেন। যার জন্য আমরা সবাই তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞ। তিনি বদলির কারণে বিদায় নিয়ে নিচ্ছেন কিন্তু আমরা কেউ মন থেকে এমন মানবিক ও উন্নয়ন চিন্তার পরিকল্পনা করা কোন কর্মকর্তার বদলি চাই না। তিনি আমাদের মনের মণিকোঠায় চিরদিন স্মরণীয়-বরণীয় হয়ে থাকবেন। বক্তারা আরও বলেন, মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স আধুনিকায়ন করা থেকে শুরু করে প্রতিটি মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারদের খোঁজ খবর রেখেছেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ। অতিসহজেই তিনি যে কাউকে আপন করে নিতে পারতেন। তিনি যেন আমাদের পরিবারের একজন সদস্য হয়ে গেছেন। আমরা সবাই তার জন্য দোয়া করবো এবং চাইবো তিনি যেন আমাদের পাশে সবসময় থাকেন।
জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ বলেন, আমি একজন প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী। আমি ব্যক্তি উন্নয়নে বিশ্বাসী নই। আমার কাজ সবার জন্য। আমি যতদিন ছিলাম চেষ্টা করে গেছি দেশের সর্বোচ্চ সম্মানিত ব্যক্তি বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য কিছু করতে। আমি শতভাগ সফল হয়েছি বলছি না, তবে আপনাদের সামান্য হলেও উপকার করতে পেরেছি বলে ধরে নিতে পারি। জেলা প্রশাসক থাকা অবস্থায় আমরা যেসকল কর্মকাণ্ড হাতে নিয়েছি আমাদের দেখে অন্যরাও এমন আয়োজন করেছে।
সমাবেশের পূর্বে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সংস্কার কাজের উদ্বোধন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী