শুক্রবার, ০৫ জুন ২০২০, ১১:০০ অপরাহ্ন

Notice :

যাত্রী কল্যাণ পরিষদের মানববন্ধন : অনৈতিক পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহারের আহ্বান

স্টাফ রিপোর্টার ::
সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়কে বিআরটিসি বাস বন্ধের দাবিতে পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের ডাকা “অন্যায় পরিবহন ধর্মঘট” প্রত্যাহার, বিআরটিসি বাসের সংখ্যা বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন দাবিতে মানববন্ধন করেছে সুনামগঞ্জ যাত্রী কল্যাণ পরিষদ। সোমবার দুপুরে শহরের আলফাত স্কয়ারে এই কর্মসূচি পালিত হয়।
সংগঠনের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু সুফিয়ানের সভাপতিত্বে ও সাংবাদিক শহীদনুর আহমেদ-এর পরিচালনায় মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাড. চাঁন মিয়া, লেখক সুখেন্দু সেন, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান ইমদাদ রেজা চৌধুরী, ক্রীড়া সংগঠক পারভেজ আহমেদ চৌধুরী, সাদত পুরকায়স্থ, সুনামগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি লতিফুর রহমান রাজু, সাবেক ভারপ্রাপ্ত পৌর মেয়র নূরুল ইসলাম বজলু, অধ্যক্ষ রফিউল ইসলাম, আ.লীগ নেতা বিজয় তালুকদার বিজু, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক জুবের আহমদ অপু, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সেবক’র সাধারণ সম্পাদক মুজাহিদুল ইসলাম মজনু, হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলনের নেতা মাসুম হেলাল, এমরানুল হক চৌধুরী, একে কুদরত পাশা, ছাত্রনেতা নাসিম চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সহ-সভাপতি অ্যাড. গোলাম আরিফ, সুনামগঞ্জ যাত্রী কল্যাণ পরিষদের সদস্য সচিব মাহমুদুর রহমান তারেক, যুগ্ম সদস্য সচিব আবু তালহা, যুগ্ম আহ্বায়ক নাজমুল হক কিরণ, রাজীব সেন, রহমতুল করিম মানিক, মো. মনসুরুল হক প্রমুখ।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সরকার যাত্রীদের সুবিধার্থে সরকারি বাস সার্ভিস বিআরসিটি চালু করেছে। সরকারের উদ্যোগ সর্বস্তরের মানুষ আনন্দের সাথে গ্রহণ করলেও পরিবহন মালিক-শ্রমিক তা গ্রহণ করতে পারেনি। তারা বিআরটিসি বাস বন্ধের দাবিতে ২৪ জুন থেকে ৭২ ঘণ্টার ধর্মঘট ডেকেছে। তার আগে অবশ্য ২৩ জুন থেকে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘটের ডাক দিলেও পরে তা থেকে তারা সরে দাঁড়ায়। বাস মালিকদের যাত্রীদের সেবা দেওয়ার ব্যাপারে কোনো চিন্তা নেই, তাদের বিআরটিসি বাস নিয়ে চিন্তা। সাধারণ মানুষের দাবির প্রেক্ষিতেই এই বিআরটিসি বাস সুনামগঞ্জে এসেছে। কিন্তু পরিবহন মালিকরা যাত্রীদের নিয়ে ব্যবসা করেন আর তাদের এই ব্যবসা ক্ষতি হয়ে যাওয়ার কারণে এই অন্যায় ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন।
বক্তারা আরো বলেন, সুনামগঞ্জের সাধারণ মানুষজন এই পরিবহন ধর্মঘটকে ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছে। বাস মালিকদের বলতে চাই আপনারা যদি ভালো সেবা দেন তাহলে মানুষ অবশ্যই মানুষ আপনাদের পরিবহনে যাবে। কিন্তু বাস মালিকরা সেবার নামে বাণিজ্য করছেন। বিভিন্নভাবে যাত্রীদের হয়রানি করছেন। এই অবস্থা আর চলতে দেয়া যায় না। পরিবহন সেক্টরে এই নৈরাজ্য চলতে দেয়া হবে না। আহুত ধর্মঘট প্রত্যাহার না করলে পরবর্তীতে কঠোরতর কর্মসূচি পালন করা হবে।
মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন সাবেক ছাত্রনেতা মিজানুর রহমান রহমান, দেবাশীষ গুপ্ত বাপ্পী, বজলুর রহমান, মহিবুর রহমান মুহিব, এনামুল হক চৌধুরী রুমেন, আরিফ তালুকদার, দিগি¦জয় চৌধুরী, তোফায়েল আহমদ, পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষর রায়, দেলোয়ার হোসেন হোসেন ফরহাদ, ফাহমিদ চৌধুরী ফামু, ফুজায়েল জনি, আজিজ মাহমুদ ইউসুফ প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী