বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯, ১২:০২ পূর্বাহ্ন

Notice :

ব্যবহারের অনুপযোগী জামালগঞ্জের দৌলতা ব্রীজ


অঞ্জন পুরকায়স্থ ::

জামালগঞ্জের বৃহত্তম দুই ইউনিয়ন ফেনারবাক ও ভীমখালি ইউনিয়নের মধ্যবর্তী দৌলতা সেতু প্রায় একযুগ ধরে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। দীর্ঘদিন ধরে সেতুটি সংস্কার বা এখানে নতুন সেতু নির্মিত না হওয়ায় দুই ইউনিয়নের অর্ধ লক্ষাধিকব মানুষ হেমন্ত মওসুমে যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ পোহান।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০০১ সালে নির্মিত এই সরু সেতুটি প্রাক্কলণ অনুযায়ী কাজ না হওয়ায় কিছুদিন যেতে না যেতেই চলাচলের অনুপযুক্ত হয়ে পড়ে। ২০০৬ সাল থেকে বলতে গেলে সেতুটি ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে আছে। এলাকাবাসীর মতে সেতুর নির্মাণ কাজে চরম অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে সেতুটির এই অবস্থায় হয়েছে।
এই পথে প্রতিদিন স্কুল-কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ এলাকার নানা পেশার মানুষজন যাতায়াত করেন। নির্মাণের কিছুদিন যেতে না যেতেই সেতুটির দক্ষিণ প্রান্তে রড, সিমেন্ট, সুরকি, খসে পড়েছে। অনেক স্থানে সৃষ্টি হয়েছে বিপদজনক গর্ত আর খানাখন্দ। গত ৫ বছর পূর্বে এই সেতুটি উপজেলা প্রকৌশলী কতৃক পরিত্যক্ত ও ঝূকিপূর্ণ বলে বিজ্ঞপ্তি টানানো হয়। তবে এখন পর্যন্ত এখানে নতুন সেতু নির্মাণ বা সংস্কারের কোন উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।
ভুক্তভোগী এলাকাবাসী জানিয়েছেন, দুই ইউনিয়নের বেশিরভাগ মানুষের যাতায়াতে কোন বিকল্প রাস্তা না থাকায় বাধ্য হয়েই পরিত্যক্ত সেতুটি ব্যবহার করে থাকেন স্থানীয়রা। সেতুটির উভয় প্রান্তের এপ্রোচ ভেঙ্গে যাওয়ায় প্রতি নিয়তই সিএনজি-লেগুনার দুর্ঘটনা ঘটছে। এতে যানবাহনের ক্ষয়-ক্ষতিসহ যাত্রীরাও আহত হচ্ছেন। স্থানীয়রা জানান, এতে দুর্ঘটনায় এ পর্যন্ত ২ শতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছেন । চলতি বছরেও কোনো রকম মেরামত বা সংস্কার ছাড়াই চলছে মোটর বাইক, সিএনজি, লেগুনা ও প্রাইভেট কার। ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় এভাবে চলতে থাকলে বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী।
ফেনারবাঁক ইউপি সচিব অজিত কুমার রায় বলেন, সেতুটি ঝূকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। বিপদ সংকেত ঝুলানো প্রয়োজন। সেতুর এপ্রোচের ভাঙ্গা অংশ মেরামতের জন্য উদ্যোগ নেওয়া হবে।
ভীমখালী ইউপি চেয়ারম্যান দুলাল মিয়া বলেন, সেতুটি র্দীঘ দিন ধরে পরিত্যক্ত অবস্থায় আছে। এখন বলতে যাতায়াতের অনুপযোগী। সেতুটি সংস্কারে সংশ্লিষ্টদের প্রতি অনুরোধ জানান তিনি।
উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুস সাত্তার বলেন, এই সেতুটি সংস্কারের জন্য প্রস্তাবনায় আছে। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রস্তাব পাঠানোর পর বিভিন্ন টিম জরিপ করে গেছে। ব্রীজটির খানা খন্দ মেরামত করে চলতি মৌসুমের ছোট যানচলাচলের উপযুক্ত করে দেয়া হবে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী