শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ০৩:৫৮ পূর্বাহ্ন

Notice :

গাছে বেঁধে সাংবাদিককে নির্যাতন : প্রতিবাদে উত্তাল সুনামগঞ্জ

স্টাফ রিপোর্টার ::
পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় তাহিরপুরে বালুখেকোদের দ্বারা স্থানীয় এক সাংবাদিককে গাছে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় ৫ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও কয়েকজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন নির্যাতনের শিকার দৈনিক সংবাদের উপজেলা প্রতিনিধি কামাল হোসেন রাফি। মঙ্গলবার বিকেলে তাহিরপুর থানায় এই মামলাটি দায়ের করা হয়। গুরুতর আহত ওই সাংবাদিক সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।
এদিকে, আদিম কায়দায় সাংবাদিককে নির্যাতনের ঘটনায় বিক্ষুব্ধ সাংবাদিকরা মঙ্গলবার জেলার বিভিন্ন স্থানে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।
দায়ের করা মামলার আসামিরা হলেন উপজেলার ঘাগটিয়া গ্রামের মৃত জুলহাস মিয়ার ছেলে মাহমুদ আলী শাহ (৩৮), মৃত আমানত আলীর ছেলে রইছ উদ্দিন (৪০), মৃত গোলাম হোসেনের ছেলে দ্বীন ইসলাম (৩৫), মৃত ছাদেক আলী তালুকদারের ছেলে মোশাহিদ তালুকদার (৪৫), মৃত তাজুদ আলীর ছেলে মনির উদ্দিন মেম্বার (৫২)। মামলায় আরও ৫/৬ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে।
এর আগে সোমবার দিনগত রাতে ঘাগটিয়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে ঘটনায় জড়িত সন্দেহ চার জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তারা হচ্ছেন উপজেলার ঘাগটিয়া গ্রামের সামছু মিয়ার ছেলে ফয়সাল আহমদ, শাহনুর মিয়ার ছেলে আনহারুল ইসলাম, ছবিরুল ইসলামের ছেলে তাহির হোসেন ও গোলাম হোসেনের ছেলে মাসবিরুল ইসলাম।
পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান জানান, সাংবাদিক কামাল হোসেনকে নির্যাতনের ঘটনায় দায়ের করা মামলার আসামিদের ধরতে ইতোমধ্যে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে। এর আগে ভিডিও ফুটেজ দেখে চারজনকে আটক করে জিজ্ঞাবাদ করা হচ্ছে। ঘটনায় জড়িত প্রত্যেককে চিহ্নিত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।
এদিকে, সাংবাদিক কামাল হোসেনের ওপর নির্যাতনের প্রতিবাদে ও নির্যাতনকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। সোমবার সকালে উকিলপাড়াস্থ প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি বিজন সেন রায়, মিজানুর রহমান মিজান, যুগ্ম স¤পাদক আমিনুল হক, হিমাদ্রী শেখর ভদ্র, নির্বাহী সদস্য সেলিম আহমদ তালুকদার, কে জি মানব তালুকদার, সদস্য বাবুল মিয়া, রুজেল আহমদ, আলাউর রহমান প্রমুখ।
অপরদিকে, পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় সাংবাদিক কামাল হোসেনকে পৈশাচিক নির্যাতনের প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে উঠেছেন সুনামগঞ্জের বিক্ষুব্ধ সাংবাদিকরা। সুনামগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটিসহ জেলার বিভিন্ন স্থানে গণমাধ্যমকর্মীরা নানা প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেছেন। মঙ্গলবার দুপুরে শহরের আলফাত স্কয়ারে সুনামগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটি আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, তাহিরপুরের যাদুকাটা নদীর তীর কেটে বালু উত্তোলন করে পরিবেশের চরম ক্ষতির করছিল একটি চিহ্নিত সিন্ডিকেট। স্থানীয় সাংবাদিক কামাল হোসেন রাফি সেই অপকর্মের সংবাদ প্রকাশের জন্য ছবি তোলতে গিয়ে বালুখেকোদের হাতে মধ্যযুগীয় বর্বর নির্যাতনের শিকার হন। এই ঘটনার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান বক্তারা। সেইসাথে ঘটনার পেছনের গডফাদারদেরও চিহ্নিত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসার জন্য প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়।
সুনামগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি লতিফুর রহমান রাজুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এমরানুল হক চৌধুরীর সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু সুফিয়ান, সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি মাসুম হেলাল, সাংবাদিক সেলিম আহমদ তালুকদার, হিমাদ্রী শেখর ভদ্র, আমিনুল ইসলাম, জাকির হোসেন, সিদ্ধার্থ রঞ্জন আচার্য্য, শামসুল কাদির মিছবাহ, একে কুদরত পাশা, জসিম উদ্দিন, রেজাউল হক, আমিনুল হক, লুৎফুর রহমান, আব্দুস সালাম, বিশ্বজিৎ সেন পাপন, আমিনুল হক, শহীদনূর আহমেদ, কর্ণবাবু দাস প্রমুখ।
এদিকে, সাংবাদিক কামাল হোসেনের উপর হামলার ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চত্বরে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে তাহিরপুর উপজেলা প্রেসক্লাব। মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন তাহিরপুর উপজেলা প্রেসক্লাব সভাপতি আমিনুল ইসলাম, সহ-সভাপতি বাবরুল হাসান বাবলু, সাধারণ সম্পাদক আলম সাব্বির, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন শাহ্ প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এমএ রাজ্জাক, সিলেট মিরর প্রতিনিধি আবির হাসান-মানিক, সাংবাদিক সামছুল আলম আখঞ্জী টিটু, রাজু আহমদ রমজান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আব্দুস সোবহান আখঞ্জী, তাহিরপুর বাজার বণিক সমিতির সাবেক সভাপতি রতন গাঙ্গুলী, তোজাম্মেল হক নাসরুম, উত্তর বড়দল ইউপি সদস্যা সুষমা জাম্বিল প্রমুখ।
অপরদিকে, সাংবাদিক কামাল হোসেনকে গাছের সাথে বেঁধে নির্যাতনের প্রতিবাদে জগন্নাথপুরে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। মঙ্গলবার জগন্নাথপুর রিপোর্টার্স ইউনিটির উদ্যোগে স্থানীয় পৌর পয়েন্টে জগন্নাথপুর রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি আমিনুর রহমান জিলুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আলী হোসেন খানের পরিচালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সিলেট প্রেসক্লাবের সদস্য আমিনুর রহমান শিপন, রিপোর্টার্স ইউনিটির সহ-সভাপতি হুমায়ুন কবীর ফরীদি, জগন্নাথপুর অনলাইন প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি আব্দুল ওয়াহিদ, রিপোর্টার্স ইউনিটির সহ-সভাপতি ইকবাল হোসাইন, সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদ আহমদ তালুকদার, জগন্নাথপুর সংবাদপত্র বিক্রেতা সমিতির সভাপতি নিকেশ বৈদ্য প্রমুখ।
এ সময় জগন্নাথপুর পৌরসভার সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র শফিকুল হক, পৌর সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ছালিক আহমদ পীর, সহ-সভাপতি সুধাংশু, বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের সভাপতি ফারুক আলী, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল আহমদ, সদস্য জাহাঙ্গীর মিয়া, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমাণ্ড নেতা ফকির আজিজ, আনফর হাজারী, শাহ রমিজ আলী সহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, সোমবার দুপুরে তাহিরপুরের যাদুকাটা নদীর তীর কেটে অবৈধভাবে বালু-পাথর উত্তোলন করছিল স্থানীয় একটি বালুখেকো সিন্ডিকেট। এই ঘটনার ছবি তোলতে যান সাংবাদিক কামাল হোসেন রাফি। ছবি তোলতে দেখে নদী তীর কাটার সঙ্গে জড়িতরা তাকে মারধর করে। পরে স্থানীয় ঘাগটিয়া চকবাজারে নিয়ে এসে গাছের সঙ্গে বেঁধে রেখে কামাল হোসেন রাফির ওপর পৈশাচিক নির্যাতন চালানো হয়। পরে পুলিশ এসে তাকে সন্ত্রাসীদের হাত থেকে ছাড়িয়ে নিয়ে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় স্বজনরা তাকে সুনামগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করান। নির্যাতনের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে জেলাজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী