1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ০৫:২০ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

জাল কাগজে অবৈধ পণ্য পাচারের চেষ্টা

  • আপডেট সময় শুক্রবার, ১৪ জুন, ২০২৪

শহীদনূর আহমেদ ::
সুনামগঞ্জে সক্রিয় রয়েছে চোরাকারবারি সিন্ডিকেট। তারা দীর্ঘদিন ধরে সীমান্তের চোরাই পথ দিয়ে অবৈধভাবে বাংলাদেশে নিয়ে আসছে চিনি, কসমেটিক্স, প্রসাধনীসহ বিভিন্ন পণ্য। এসব পণ্য পাচারে তারা বেছে নিচ্ছে অভিনব কৌশল। এরই ধারাবাহিকতায় আদালতের নিলাম সংক্রান্ত নির্দেশনার কাগজ জাল করে বিভিন্ন অবৈধ পণ্য কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রেরণ করছে তারা। তবে এবার গোয়েন্দাদের জালে আটকা পড়েছে অসাধু সিন্ডিকেটের কোটি টাকার চালান।
জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই)-এর সহায়তায় সুনামগঞ্জের এসএ পরিবহন পার্শ্বেল এন্ড কুরিয়ার সার্ভিসে অভিযান চালিয়ে গত বুধবার রাতে ১৮৭ বস্তা অবৈধ ভারতীয় পণ্য আটক করেছে টাস্কফোর্স। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শহরের পুরাতন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এসএ পরিবহনের কাউন্টারে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. এমদাদুল হক শরীফের নেতৃত্বে পুলিশ-বিজিবি-আনসার ও জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা দলের সদস্যরা অভিযান চালিয়ে ১২৪ বস্তা ফুচকা, ১৬ বস্তা কাজু বাদাম, ৩ বস্তা কিসমিস, ৩০ বস্তা কসমেটিকস, ৪ বস্তা পলিথিন, ১ বস্তা চকলেট, ৮ বস্তা বিস্কুট, ১ বস্তা চকলেটসহ ১৮৭ বস্তা ভারতীয় পণ্য জব্দ করা হয়।
প্রাথমিকভাবে জব্দকৃত পণ্যের আর্থিক মূল্য এখনো নিরূপণ করা যায়নি। তবে এর আনুমানিক মূল্য কোটি টাকা ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা। অভিযানকালে উপস্থিত ছিলেন এনএসআইয়ের উপ-পরিচালক আরিফুর রহমান, সহকারী পরিচালক কৌশিক আহমদ কনক, সদর থানার ওসি মো. খালেদ চৌধুরী, বিজিবি প্রতিনিধি নায়েব সুবেদার বিল্লাল।
জানাযায়, সুনামগঞ্জ চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের স্বাক্ষর নকল করে এবং নিলামে বিক্রিত পণ্য উল্লেখকৃত জাল নির্দেশনাপত্রের মাধ্যমে বুধবার সন্ধ্যায় ভারতীয় অবৈধ পণ্য কুরিয়ারে পাশের্^লের মাধ্যমে অন্যত্র পাচারের চেষ্টা করে একটি সংঘবদ্ধ চক্র। গোয়েন্দা তৎপরতার মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে অভিযান চালায় টাস্কফোর্স। এসময় আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায় চোরাকারবারিরা।
এসএ পরিবহন সুনামগঞ্জ শাখার ব্যবস্থাপক শওকত কামাল বলেন, আদালতের নিলামের রশিদ, সীমান্ত হাটের কার্ড, এনআইডি কার্ডের ফটোকপি দিয়ে সীমান্ত এলাকার বেশ কয়েকজন লোক এসব পণ্য ঢাকায় পাঠানোর জন্য বুকিং দেয়। পরে এগুলোর কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. এমদাদুল হক শরীফের নেতৃত্বে আমাদের কাউন্টার থেকে এসব পণ্য আটক করা হয়। তারা আমাদের কাছ থেকে আরও কিছু নথি নিয়ে গেছেন।
সুনামগঞ্জ সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খালেদ চৌধুরী বলেন, সীমান্ত এলাকা দিয়ে এসব পণ্য সুনামগঞ্জ শহরের এসএ পরিবহনের কাউন্টারে আসে। পুলিশ, বিজিবি, আনসার ও গোয়েন্দা সংস্থার নেতৃত্বে টাস্কফোর্স এসব পণ্য আটক করে।
সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. এমদাদুল হক শরীফ জানান, আমরা অভিযান পরিচালনা করে বিভিন্ন ভারতীয় পণ্য জব্দ এবং এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। একই সাথে যারা পণ্য প্রেরণ করছিল, মেমোর মধ্যে যে সকল তথ্য পেয়েছি- তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন।

 

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com