1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৪:২৭ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

ঢলে ভেঙে গেছে কামারকান্দি সড়ক

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৪ জুন, ২০২৪

স্টাফ রিপোর্টার ::
পাহাড়ি ঢলের তোড়ে ভেঙে গেছে তাহিরপুর উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ কামারকান্দি সড়ক। একারণে কয়েকটি গ্রামের শত শত পরিবারের মানুষজনের চলাচল বন্ধ রয়েছে। সোমবার দুপুরে উপজেলার দক্ষিণ বড়দল ইউনিয়নের গুরুত্বপূর্ণ এই সড়কটি ভেঙে যায়।
উপজেলার দক্ষিণ বড়দল ইউনিয়নের কামারকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে দিয়ে নতুনবাজার-কাউকান্দি-তাহিরপুর উপজেলা সদরে যাওয়ার একমাত্র সড়ক। এই সড়কটি দুপুরে ঢলের পানির প্রবল চাপে ভেঙে গিয়ে মাটিয়ান হাওরে পানি প্রবেশ করেছে। এতে করে গুরুত্বপূর্ণ সড়কটি ভেঙে যাওয়ায় এই সড়ক দিয়ে চলাচলকারী হাজার হাজার মানুষ ও বিভিন্ন ধরনের যানবাহন আর চলাচল করতে পারছে না।
শিক্ষক নজরুল ইসলাম জানান, দুপুরের দিকে হঠাৎ করেই কামারকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনের সড়কটি ঢলের পানির প্রবল চাপে ভেঙে যাওয়ায় এই এলাকার মানুষ ভোগান্তিতে পড়েছেন।
মোটরসাইকেল চালক আমিনুল মিয়াসহ কয়েকজন জানান, সড়কটি আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। কিন্তু সড়কটি ভেঙে যাওয়ায় আমরা দুর্ভোগে পড়েছি। এই সড়কটি দ্রুত মেরামতের দাবি জানাই।
তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সালমা পারভিন বলেন, এই বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।
অপরদিকে, পাহাড়ি ঢলের পানি তাহিরপুর-সুনামগঞ্জ সড়ক ডুবে যাওয়ায় যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। সোমবার (৩ জুন) সকাল থেকে সুনামগঞ্জের সুরমা, তাহিরপুরের যাদুকাটা, বৌলাই,রক্তি, পাটলাইসহ বিভিন্ন নদী দিয়ে তীব্র গতিতে ভাটির দিকে অগ্রসর হচ্ছে। এ কারণে তাহিরপুর-সুনামগঞ্জ সড়কের বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা শক্তিয়ারখলা ১০০মিটার (কৈইয়ারকান্দা) সড়ক ও আনোয়ারপুর বাজারের সুনামগঞ্জ সড়কের কিছু অংশ পানিতে ডুবে যাওয়ায় যান চলাচল বন্ধ রয়েছে বলে জানিয়েছেন দক্ষিণ বাদাঘাট ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য কামাল হোসেন। তিনি আরও জানান,এই সড়কে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় চলাচলকারী শত শত যানবাহন, পর্যটকসহ চারটি উপজেলার মানুষ দুর্ভোগে পড়েছেন।
সিএনজি চালক আমিনুল ইসলাম জানান, পাহাড়ি ঢলে যাদুকাটা নদীর পানির প্রবল চাপ মিছাখালি রাবার ড্যাম কিছুটা কমিয়ে ১০০ মিটার সড়ক দিয়ে হাওরে প্রবেশ করেছে। তার জন্য যানবাহন চলাচল করছে না। যাত্রীরা এখন নৌকা দিয়ে পারাপার হচ্ছে।
বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মফিজুর রহমান জানান, পাহাড়ি ঢলের পানিতে শক্তিয়ারখলা ১০০ মিটার সড়ক দিয়ে (সাবমারসিবল) পানি যাতে সহজে হাওরে প্রবেশ করতে পারে তার জন্য নিচু করে তৈরি করা হয়েছে। এই সড়কে পানি উঠায় যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।
তাহিরপুর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা সালমা পারভিন জানান, তাহিরপুরের সাথে সুনামগঞ্জে সড়ক পথে যানবাহন চলাচল করতে পারছে না। তবে উপজেলার সার্বিক পরিস্থিতি ভাল রয়েছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com