1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৫:০৬ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

কাজ করার সুযোগ দিন, শান্তিগঞ্জকে আধুনিক উপজেলা হিসেবে গড়তে চাই : সাদাত মান্নান অভি

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৪ জুন, ২০২৪

শান্তিগঞ্জ প্রতিনিধি ::
শান্তিগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী সাদাত মান্নান অভি বলেছেন, আমাকে কাজ করার সুযোগ দিন, শান্তিগঞ্জকে একটি আধুনিক উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। তিনি বলেন, শান্তিগঞ্জে বিগত ২০/৩০ বছর আগে কোন উন্নয়ন ছিল না। যেখানে কোন বাজার-হাট ছিল না। আজ ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। আমি উন্নয়নে বিশ্বাসী। আমি সামনে আরো কাজ করতে চাই। যেখানে মেডিকেল কলেজ থাকার কথা ছিল না, সেখানে মেডিকেল কলেজ স্থাপিত হয়েছে। যেখানে বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থাকার কথা না, সেখানে বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপিত হয়েছে। এখনও উন্নয়নের ধারা অব্যাহত আছে। শান্তিগঞ্জ উপজেলাকে একটি আধুনিক উপজেলা হিসেবে গড়তে চাই।
তিনি শান্তিগঞ্জ উপজেলাবাসীর উদ্দেশ্যে বলেন, আমি আপনাদের কাছে পরীক্ষা দিতে এসেছি। গত একবছর ধরে আপনারা আমাকে দেখেছেন। উপজেলার ১৬৩টি গ্রামের বাড়ি বাড়িতে আমি ব্যক্তিগতভাবে হেঁটে এসেছি। সবার কাছে আমি গিয়েছি। আপনারা আমাকে সম্মান দেখিয়েছেন। আপনাদের বাড়িতে বাড়িতে যাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন। আপনাদের সমস্যার কথা শুনেছি, প্রয়োজন শুনেছি। আমার সম্ভাবনার কথা আপনাদের জানিয়েছি।
সোমবার বিকেলে শান্তিগঞ্জ উপজেলার শান্তিগঞ্জ পয়েন্টে বিশাল নির্বাচনী জনসভায় তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। এর আগে দুপুর ১টার পর থেকে শান্তিগঞ্জ
উপজেলার প্রাণকেন্দ্র শান্তিগঞ্জ পয়েন্টে উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম থেকে জনসাধারণ খ- খ- মিছিলে সমাবেশস্থলে আসতে থাকেন। বিকেল ৩টায়
কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে ওঠে সভাস্থল। শুরু হয় চেয়ারম্যান প্রার্থী সাদাত মান্নান অভি’র পক্ষে আনারস প্রতীকের সমর্থনে মানুষের গণজোয়ার।
সভায় সাদাত মান্নান অভি আরো বলেন, আমি চারটি বিষয় নিয়ে কাজ করবো। তন্মধ্যে শিক্ষার মানোন্নয়ন, স্বাস্থ্যসেবা দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়া, তরুণদের কর্মসংস্থান ও কর্মদক্ষতা বৃদ্ধি করা ও পরিবেশের উন্নয়নে কাজ করা। আমি আমার নির্বাচনী ইশতেহার নিয়ে আগামী পাঁচ বছর কাজ করবো। আমি আপনাদেরকে দিতে চাই। আমি নিতে আসি নাই। শিকড়ের টানে আমার পিতৃভূমিতে এসেছি। শান্তিগঞ্জের উন্নয়নের জন্যই কাজ করতে চাই। আপনাদের কাছে কাজের সুযোগ চাই। একটাবার সুযোগ দেন।
সাদাত মান্নান অভি প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমার যারা প্রতিদ্বন্দ্বী আছেন, তারা আমাকে অবজ্ঞা করছেন। তাতে আমার কিছু যায় আসে না। উনারা বলেছেন আমি বাংলায় কথা বলতে পারি না। গত চারটি মাস আপনারা পরীক্ষা নিয়ে নিয়েছেন। আমি শহরে থাকি না। আমি শান্তিগঞ্জেই থাকি। আমি কোথা থেকে উন্নয়ন নিয়ে আসবো উপজেলাবাসীকে জানিয়েছি। কিন্তু উনারা নির্বাচনের শেষ দিনে এসেও কোথা থেকে উন্নয়ন নিয়ে আসবেন, এখন পর্যন্ত তারা বলতে পারেন নাই। আগামী চব্বিশ ঘণ্টায়ও বলতে পারবেন না।
শান্তিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি হাজী আব্দুল হেকিমের সভাপতিত্বে ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নুর হোসেন ও উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার স¤পাদক সেলিম রেজার যৌথ পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ আওয়ামী লীগ সাধারণ স¤পাদক নোমান বখত পলিন।
নোমান বখত পলিন বলেন, আগামী ৫ জুন উপজেলা পরিষদের শেষ ধাপের নির্বাচন। আমি একজন সজ্জন মানুষের জন্য কথা বলতে এসেছি। এর আগে উনার বাবার জন্য এসেছি। উনার বাবা আলহাজ্ব এম এ মান্নান শুধু সুনামগঞ্জ জেলাকে আলোকিত করেন নাই, সারা বাংলাদেশকে আলোকিত করছেন। সাদাত মান্নান অভি’র জন্য আপনাদের কাছে এসেছি। উপজেলা নির্বাচন শান্তিপূর্ণ, নির্দলীয় ও উৎসবমুখর একটি নির্বাচন। আজ জনসভায় এসে দেখেছি দলমত নির্বিশেষ আপনারা একাকার হয়ে গেছেন। এজন্য আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞতা।
তিনি বলেন, বিগত চার চার বার আপনারা এমএ মান্নানকে ভোট দিয়ে সংসদে পাঠিয়েছেন। তিনি উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখে উনার কথা রেখেছেন। উনি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ স্থাপন করেছেন। উনি করতে চাচ্ছেন এয়ারপোর্ট। এখানে ১০টি প্রতিষ্ঠান স্থাপন করলেও উনার নামে কোন প্রতিষ্ঠানের নামকরণ হয় নাই। কারণ একটাই তিনি জনগণের জন্য কাজ করেছেন। আমাদের উন্নয়নে কাজ করছেন। উনার ব্যক্তিগত কোন কাজ করেন নাই। সাদাত মান্নান অভি’র জন্য আপনাদের কাছে একটি কথা বলতে চাই। মান্নান সাহেবের ছেলের মতো ছেলেরা বিদেশে গিয়ে লেখাপড়া করে, কাজ শিখে। সেই আলোকিত সন্তানরা দেশে এসে আমাদেরকে আলোকিত করে। কারণ তাদের অভিজ্ঞতা আর শিক্ষাকে কাজে লাগান। এজন্য তারা দুর্নীতিগ্রস্ত হবেন না। এরা দুর্নীতি কি জিনিস, তারা এটা চিনেন না। সাদাকে সাদাকে বলে, কালোকে কালো বলেন। সাদাত মান্নান অভি বিদেশে থেকে আয়েশি জীবনযাপন করতে পারতেন। আপনাদের কাছে এসেছেন কাজ করতে। বিগত সংসদ নির্বাচন থেকে শুরু করে এ নির্বাচন পর্যন্ত প্রত্যেকটা গ্রামে গ্রামে তিনি পৌঁছেছেন। কি করতে চান আপনাদেরকে বলেছেন। তাই সাদাত মান্নান অভিকে একটা সুযোগ দেন। সেই সুযোগটা কাজে লাগান। আপনাদের আরো উন্নয়ন সাধিত হবে। উনার বাবা অনেক কাজ করছেন। উনার বাবার অবশিষ্ট কাজ সাদাত মান্নান অভি’র দ্বারা স¤পন্ন হবে। তাই আগামী ৫ জুন উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আনারস প্রতীকে ভোট দিয়ে এম এ মান্নানের স্বপ্নের বাস্তবায়ন করুন।
বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ তথ্য ও গবেষণা স¤পাদক অ্যাড. শাহীনুর রহমান শাহীন, সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক স¤পাদক সিরাজুর রহমান, জগন্নাথপুর আওয়ামী লীগ সাধারণ স¤পাদক রেজাউল করিম রিজু, শান্তিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সভাপতি সিতাংশু শেখর সিতু, সাধারণ স¤পাদক হাসনাত হোসেন।
এসময় বক্তব্য রাখেন জগন্নাথপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র সাফরোজ ইসলাম মুন্না, শান্তিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সহ সভাপতি মাওলানা আব্দুল কাইয়ুম, যুগ্ম সাধারণ স¤পাদক গোলাম মোস্তফা, যুগ্ম সাধারণ স¤পাদক মাসুক মিয়া, যুগ্ম সাধারণ এনামুল কবির, উপজেলার পূর্ব বীরগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান রাইজুল ইসলাম, পশ্চিম বীরগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান মো. লুৎফুর রহমান জায়গীরদার খোকন, পাথারিয়া ইউপি চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম জয়কলস, ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বাছিত সুজন, জয়কলস ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মো. মাসুদ মিয়া, পাথারিয়া ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মোস্তফা মিয়া, জয়কলস ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান হাজী আব্দুল লতিফ কালাশাহ, পূর্ব বীরগাঁও ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান সালেক উদ্দিন, পশ্চিম বীরগাঁও ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম, পশ্চিম বীরগাঁও ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার নুরুল আমীন, পশ্চিম পাগলা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল হক, দরগাপাশা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মনির উদ্দিন, পূর্ব পাগলা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান রফিক খাঁন, উপজেলা আওয়ামী সহ সভাপতি তেরাব আলী, উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি জ্যোতিভূষণ তালুকদার, পাথারিয়া ইউপি আওয়ামী লীগ সভাপতি আলী নেওয়াজ, জয়কলস ইউপি আওয়ামী লীগ সাধারণ স¤পাদক জুবেল আহমদ, শান্তিগঞ্জ উপজেলা যুবলীগ সাধারণ স¤পাদক মনিরুজ্জামান সুজন, কৃষক লীগ আহ্বায়ক ফয়জুর রহমান, আনজুমানে আল ইসলাহ সাংগঠনিক স¤পাদক তাজ উদ্দিন, শান্তিগঞ্জ বাজার কমিটির সভাপতি রিপন তালুকদার, জগন্নাথপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আবুল হোসেন লালন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সুফিয়া খানম সাথী, উপজেলা জাতীয় পার্টি সভাপতি হারুন মিয়া, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল হাই জায়গীরদার রাজ, রাজা মিয়া, দরগাপাশা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ স¤পাদক আবু খালেদ চৌধুরী রুবেল,উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ স¤পাদক মো. নাঈম আহমদ, উপজেলা বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট সাধারণ স¤পাদক আজিজ রেজা, ইউপি সদস্যা খোরশেদা আক্তার,আব্দাল মিয়া, কবির হোসেন প্রমুখ।

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com