1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৩:১৭ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের উদ্যোগে পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসি কনফারেন্স অনুষ্ঠিত

  • আপডেট সময় রবিবার, ২৬ মে, ২০২৪

স্টাফ রিপোর্টার ::
চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের উদ্যোগে পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসী কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সকালে আদালতের সম্মেলন কক্ষে এই কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ মো. হেমায়েত উদ্দিন। এতে সভাপতিত্ব করেন চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রোকন উদ্দিন কবির।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ মো. হেমায়েত উদ্দিন বলেন, বিচার ব্যবস্থাকে আরও দ্রুত এগিয়ে নিতে এবং আদালতে বাদীর আসা-যাওয়ার ভোগান্তি কমিয়ে আনতে হাসপাতাল থেকে ইনজুরী রিপোর্ট, পোস্টমর্টেম রিপোর্ট, ডিএনএ রিপোর্টসহ যেকোনো ঘটনার রিপোর্ট দ্রুত দেওয়া উচিত। এসব রিপোর্ট যত দ্রুত পাবো, তত দ্রুততার সাথে বিচার কার্য পরিচালনা করে রায় দেয়া সম্ভব হবে আদালতের।
সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ মো. হেমায়েত উদ্দিন আরও বলেন, সদর হাসপাতাল থেকে রোগীদের রেফার করা কমিয়ে আনতে হবে। রোগী রেফার হওয়ার কারণে বিচার কার্যের তথ্যাবলী সংগ্রহ করতে পুলিশ অফিসারগণ নানা সমস্যার সম্মুখিন হন। এই বিষয়গুলো বিবেচনায় রাখতে হবে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর।
তিনি আরও বলেন, একটি ফৌজদারি মামলার সুষ্ঠু ও দ্রুত বিচার কার্য পরিচালনা করতে পুলিশ, প্রসিকিউশন ও বিচারক এই তিন সংস্থার খুবই সমন্বয় সাধন থাকতে হবে।
সভাপতির বক্তব্যে চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রোকন উদ্দিন কবির বলেন, নতুন আইনে মামলার সাক্ষ্য প্রমাণে ডিজিটাল রেকর্ডপত্র বিশেষ করে ভয়েস রেকর্ড, ছবি, ভিডিও ফুটেজ ইত্যাদি আদালতে গ্রহণ করা হবে। এমনকি কেউ বিশেষ কোনো কারণে ভার্চুয়ালি সাক্ষ্য প্রদান করতে পারবে। তবে এ ক্ষেত্রে সপ্তাহ দশ দিন আগে অবশ্যই আবেদনের মাধ্যমে আদালতকে জানাতে হবে।
তিনি আরও বলেন, অপরাধীকে থানায় আনার পর থেকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আদালতে হাজির করতে হবে। প্রত্যেক মামলার ১২০ দিনের মধ্যে অবশ্যই তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে হবে।
সভায় সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মুহাং হেলাল উদ্দিন সিআর মামলা ও জিআর মামলার তদন্ত, গ্রেফতার ও ঘটনার ১২০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন প্রদান, গ্রেফতারকৃত আসামিকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আদালতে সোপর্দ করার বিষয়ে বিস্তারিত আইনের ধারা বর্ণনা করেন। খুনের ঘটনায় সুরতহাল রিপোর্ট, পোস্টমর্টেম রিপোর্ট, সাক্ষ্য বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য উপস্থাপন করেন তিনি।
কনফারেন্সে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ এহসান শাহ, ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের উপ-পরিচালক (তত্ত্বাবধায়ক) ডা. মো. মাহবুবুর রহমান, সিভিল সার্জন ডা. আহম্মদ হোসেন, অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নিশাদুজ্জামান, সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নির্জন কুমার মিত্র, সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইসরাত জাহান, জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আবদুল হালিম, ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ ফারহান সাদিক।
এছাড়াও কনফারেন্সে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাজন কুমার দাস, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাড. মো. নজরুল ইসলাম, সাধারণ স¤পাদক অ্যাড. মো. শেরেনূর আলী, অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাড. মলয় চক্রবর্তী রাজু, শাল্লা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মিজানুর রহমান, দিরাই থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী, বিশ্বম্ভরপুর থানা অফিসার ইনচার্জ শ্যামল বণিক, জগন্নাথপুর থানা অফিসার ইনচার্জ আমিনুল ইসলাম, সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. খালেদ চৌধুরী, দোয়ারা থানা অফিসার ইনচার্জ মো. বদরুল হাসান প্রমুখ।
সভায় র‌্যাব কর্মকর্তা, বিজিবি কর্মকর্তা, রেঞ্জ ও বন কর্মকর্তা, গণপূর্ত কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন থানার অফিসার ইনচার্জ, সিআইডি, ডিবি সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com