1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৪:৫৮ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

অনেক অবিচার এখনও আছে : এমএ মান্নান এমপি

  • আপডেট সময় বুধবার, ১ মে, ২০২৪

সুনামকণ্ঠ ডেস্ক ::
পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় স¤পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সুনামগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য এমএ মান্নান বলেছেন, আমাদের সমস্যা এই মুহূর্তে নিরক্ষরতা, দারিদ্র্য এবং অবিচার। আমি মনে করি, অনেক অবিচার, অযৌক্তিক বিষয় এখানে আছে। দুঃখের বিষয় হচ্ছে- অনেকগুলো আইন দ্বারা স্বীকৃত। এগুলো সব অতীতের আইন। বর্তমান সরকার চেষ্টা করছে এ ধরনের আইন সংস্কার করার জন্য। কিন্তু আইন তো শুধু কথাবার্তা, আমাদের একটা আমলাতন্ত্র আছে বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে।
মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) রাজধানীর হোটেল লেকশোর-এ ‘দলিত ও ঋষি সম্প্রদায়ের টেকসই উন্নয়ন রূপরেখার সুপারিশমালা’ শীর্ষক জাতীয় গোলটেবিল আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। গোলটেবিল আলোচনাটি আয়োজন করে কাউন্টারপার্ট ইন্টারন্যানালের কারিগরি সহায়তায় এবং ইউএসএআইডি’র সহযোগিতায় বাস্তবায়িত প্রোমোটিং অ্যাডভোকেসি অ্যান্ড রাইটস কর্মসূচি।
সাবেক পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, এক সময় সমাজে অনেক দুঃখ দুর্দশা, ব্যথা- বেদনা ছিল। এগুলো মেনে নিয়েছিল মানুষ। এখন আর আগের মতো মেনে নেওয়ার দিন নয়। সময়ের পরিবর্তন হয়েছে। এগুলো গ্রহণযোগ্য নয়। কিছু সমস্যা আমি নিজে কাজ করতে গিয়ে দেখেছি। করবো কী তাহলে। আমরা কি তাহলে উন্নয়ন করবো না? আগে কি এসব সমস্যার সমাধান করবো? আজকের পানি, স্যানিটেশন, নিরক্ষরতা – এগুলো সমস্যার সমাধান তাহলে কবে করবো? এজন্য আমাদের একটা দোলাচল থাকে।
তিনি বলেন, আমার প্রধানমন্ত্রী, তার সঙ্গে কাজ করেছি আমি এক্ষেত্রে। আমি বিশ্বাস করেই বলি- তিনি অত্যন্ত সংবেদনশীল। তিনি অবশ্যই চান প্রান্তিক এলাকার মানুষের অর্থনৈতিক পরিবর্তন। উনি মাথা ঘুরিয়ে হাওর এলাকার দিকে তাকাতে চান, কিন্তু সবসময় পারেন না। কারণ, অনেক ঐতিহাসিক বাধা আছে এখানে। তবুও আমি বলবো, শেষ বেলায় এসে আমরা কিছু করতে পেরেছি। আমরা চরম দারিদ্র্য, না খেয়ে ঘুমানোর মতো ঘটনা কিছুটা কমিয়ে নিয়ে এসেছি। আমরা ময়লা পানি পান, কিংবা ময়লা স্যানিটেশন ব্যবহার রোধ করতে পেরেছি। নিরক্ষরতা আমাদের জন্য একটা ভয়ংকর অভিশাপ। এটার যে মূল সেটাকেও আমরা ক্ষীণ দমন করতে পেরেছি। তবে দীর্ঘ যাত্রা বাকি। এজন্য দরকার টেকসই উদ্যোগ।
এমএ মান্নান আরও বলেন, জাতীয়ভাবে আমাদের বিষয়গুলো একটু রিঅ্যারেঞ্জ করা দরকার। শপিং লিস্ট ঠিকঠাক করা দরকার। শপিং লিস্টে ক্ষুধা, দারিদ্র্য এগুলো আগে নিয়ে আসা হবে, নাকি অত্যন্ত সূক্ষ্ম বিষয়াদি যেগুলো নিয়ে আমরা সোচ্চার আছি। পুল-কালভার্ট তৈরির জন্য ইঞ্জিনিয়ার আনলেই হয়ে যায়। কিন্তু সামাজিক ক্ষেত্রে পরিবর্তনে একটু ছোঁয়া দিতে গেলেই টপটপ করে নড়ে সবজায়গা। কয়েকবছর আগে আমাদের প্রধানমন্ত্রী একটা আইন সংস্কারের উদ্যোগ নিলেন, পৈতৃক সূত্রে প্রাপ্ত স¤পদের ভাগাভাগির ব্যাপারে। আমিও চাই, ছেলেমেয়ে সমান ভাগে স¤পত্তি পাক। কিন্তু তিনি সেটা পারলেন না শেষ পর্যন্ত। আপস করতে হলো। এগুলো হচ্ছে আমাদের বাস্তবিক ব্যবস্থা। এগুলো বাস্তবায়ন খুবই কঠিন।
আলোচনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সরকারি প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন কমিটির চেয়ারম্যান সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক, ইউএসএআইডি’র মিশন ডিরেক্টর রিড এশলিম্যান, কাউন্টারপার্ট ইন্টারন্যাশনালের চিফ অব পার্টি কেটি ক্রোক এবং ভাইস-প্রেসিডেন্ট গোয়েনডোলিন অ্যাপেল।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com