1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ১২:০২ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

দেবরের রামদা’র আঘাতে ভাবী আহত

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২৪

স্টাফ রিপোর্টার ::
দেবরের হাতে থাকা রামদার আঘাতে ভাবী আহত হয়েছেন। এমন ঘটনা ঘটেছে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ধনপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের পশ্চিম ইসলামপুর গ্রামে। গত শুক্রবার বিকাল ৩টায় এই ঘটনা ঘটে। পরে আহত ভাবী রোজিনা বেগম (৪৫)-কে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় বিশ্বম্ভরপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।
জানা যায়, ঘটনার দিন বিকাল ৩টায় আহত রোজিনা বেগমের শাশুড়ি মল্লিকা বেগম (৭০) এর সাথে প্রতিদিনের মতো ওইদিনও খারাপ আচরণ করেছিল দেবর এমদাদুল হক। তখন রোজিনা বেগম প্রতিবাদ করেন। এ সময় ভাবীর উপর চওড়াও হয় এমদাদুল হক। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে হাতে থাকা রামদা দিয়ে কোপ দেয় ভাবীর বাম হাতের কবজির উপরে। সাথে সাথে রোজিনা মাটিতে লুটিয়ে পড়লে তার চিৎকারে লোকজন এসে আহত রোজিনাকে উদ্ধার করে প্রথমে বিশ্বম্ভরপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেন। পরে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
আহত রোজিনা মাছিমপুর এলাকার সোনাতলা গ্রামের মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা ওয়াজেদ আলীর মেয়ে। তার স্বামী মো. দ্বীন ইসলাম।
এ ঘটনায় শনিবার বিশ্বম্ভরপুর থানায় রোজিনা বেগম বাদী হয়ে অভিযোগ দাখিল করেন।
প্রত্যক্ষদর্শী লায়েছ মিয়া, মরম আলী, রুবেল মিয়া, আবু হানিফ ও আহতের স্বামী দীন ইসলাম জানান, এমদাদুল হক তার মায়ের সাথে প্রায় প্রতিদিন খারাপ আচরণ করেন। সে অকথ্য ভাষায় সবাইকে গালমন্দ করে। ওইদিন তার বড় ভাবী প্রতিবাদ করায় তাকে প্রাণে মারার উদ্দেশ্যে রামদা দিয়ে কোপ দেয়।
এ ব্যাপারে মামলার আইও এসআই শংকর দাস বলেন, আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com