1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০১:৩৪ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

  • আপডেট সময় বুধবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২৪

মধ্যনগর প্রতিনিধি ::
মধ্যনগরে সম্ভাব্য দুই উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীর উপস্থিতিতে তাদের সমর্থক ও কর্মীদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। বৃহ¯পতিবার (১১ এপ্রিল) বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলার মহিষখলা বাজারে অস্থায়ী ইউনিয়ন পরিষদের সামনের রাস্তায় এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে গণসংযোগ করতে মহিষখলা বাজারে এসেছিলেন সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. সাইদুর রহমান। তিনি ও তার কর্মীরা বাজারের বিভিন্ন দোকানে লিফলেট বিতরণকালে একই সময় আরেক চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. আব্দুর রাজ্জাক ভূঁইয়াও বাজারে মোটরসাইকেলে শোডাউনের মাধ্যমে প্রচারণা চালাচ্ছিলেন। এসময় প্রচারণায় মুখোমুখি হলে দু’পক্ষের নেতাকর্মীরা বাকবিতন্ডতায় জড়িয়ে পড়েন এবং উভয়পক্ষের মধ্যেই ধাওয়া – পাল্টা ধাওয়া হয়। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. আব্দুর রাজ্জাক ভূঁইয়া বলেন, আমি শান্তিপ্রিয় মানুষ। ঈদের শুভেচ্ছা জানাতে আমার নেতৃবৃন্দকে নিয়ে মোটরসাইকেলযোগে মহিষখলা বাজারে যেতেই সাইদুর রহমান আমাকে উদ্দেশ্য করে বাজে মন্তব্য শুরু করে। এসময় আমার লোকজন তাকে জিজ্ঞাসা করতে গেলে সে ও তার লোকজন আমার লোকজনের প্রতি ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে, বাকবিতন্ডায় জড়ায় এবং ধাক্কাধাক্কির মতো ঘটনা ঘটে। পরবর্তীতে স্থানীয়দের পরামর্শে আমি শান্তিপূর্ণভাবে বাজার থেকে প্রস্থান করি।
অপরদিকে, সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী সাইদুর রহমান বলেন, আমি নির্বাচনী প্রচারণা ও ঈদের শুভেচ্ছা জানাতে পায়ে হেঁটে আমার নেতাকর্মীদের নিয়ে মহিষখলা বাজারে যাই। বাজারে অস্থায়ী ইউনিয়ন পরিষদের সামনে আসতেই বিপরীত দিক থেকে মোটরসাইকেল শোডাউন নিয়ে আব্দুর রাজ্জাক আমাকে ও আমাদের নেতাকর্মীদের রাস্তা আটকে দেয়। এসময় আব্দুর রাজ্জাক নিজে ও তার নেতাকর্মীরা আমাকে উদ্দেশ্য করে গালিগালাজ করতে থাকে। একপর্যায়ে আমার নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালায়। স্থানীয়দের লোকজনের সহযোগিতায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলে আমরা বাজার ত্যাগ করে বাড়িতে চলে আসি। বাড়িতে এসে জানতে পারি, আব্দুর রাজ্জাকের লোকজন সাতুর নতুন বাজারে অবস্থিত আমার একটি ব্যবসায়িক মার্কেটে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছে।
উল্লেখ্য যে, আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক ও সাইদুর রহমান উভয়েই পাশের বংশীকুন্ডা দক্ষিন ইউনিয়নের দাতিয়াপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।
নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক প্রত্যক্ষদর্শী ও মহিষখলা বাজারের এক ব্যবসায়ী বলেন, দুই প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর লোকজনের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলাকালীন ঘটনাস্থলের আশপাশে আতঙ্কজনক পরিবেশ সৃষ্টি হলে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় একঘণ্টা পর পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করলে দোকানপাট খোলা হয়।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে মধ্যনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ এমরান হোসেন জানান, আমি দু’পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডতা ও ঝামেলার ঘটনা শুনার পরেই ঘটনাস্থলে যাই। বর্তমানে মহিষখলা বাজারের পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com