1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৪:২০ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

ছাতকে বেপরোয়া ইজিবাইকে অতিষ্ঠ মানুষ

  • আপডেট সময় বুধবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২৪

শংকর দত্ত ::
শিল্পনগরী হিসেবে পরিচিত ছাতক শহরের গুরুত্বপূর্ণ প্রতিটি সড়কে চলছে ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক ও সিএনজিচালিত অটোরিকসার দাপট। তবে এ ক্ষেত্রে শুধু টমটম মালিক নয় বরং ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকা কর্তৃপক্ষের গাফিলতিকেই বেশি দায়ী করছেন পৌরবাসী। এসব টমটমের বেপরোয়া চলাচল ও যত্রতত্র পার্কিংয়ের কারণে পৌর শহরের সড়কগুলোতে তীব্র হচ্ছে যানজট। তবে এ সমস্যা সমাধানে কার্যকর পদক্ষেপ নিচ্ছে না সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। পৌরবাসীর পক্ষ থেকেও বিভিন্ন সময় দাবি জানানো হয়েছে। তবে সবকিছুই মুখ থুবড়ে পড়ে আশ্বাসের দুয়ারে। এমন পরিস্থিতিতে ক্ষোভ বাড়ছে শহরের বাসিন্দাদের মধ্যে। একই সঙ্গে সড়কে যানজট নিরসনে ট্রাফিক পুলিশের পাশাপাশি পৌরসভা কর্তৃপক্ষের নজরদারি বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।
তারা বলছেন, টমটম ও অটোরিকসার সংখ্যা বাড়ায় সড়কে চাপ বাড়ছে। প্রশাসন ও পৌর কর্তৃপক্ষের নাকের ডগা দিয়ে চলছে তাদের দৌরাত্ম্য।
স্থানীয়দের অভিযোগ, সড়ক ও শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে অনিয়ন্ত্রিতভাবে রাখা হয় এসব টমটম ও অটোরিকসা। এতে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়। তবে এ ব্যাপারে দৃশ্যমান কোনো পদক্ষেপ নেই সংশ্লিষ্টদের।
জানা গেছে, পৌরসভার বিভিন্ন সড়কে প্রতিদিন তিন শতাধিক ব্যাটারিচালিত টমটম চলছে। সড়কের নিয়মনীতি না মেনেই চালকরা টমটমগুলো চালাচ্ছেন। দক্ষতা না থাকায় তাদের গাড়ি চালানোর গতি বেপরোয়া। অধিকাংশ চালকের বয়স ১৮ বছরের নিচে। এসব টমটমের জন্য সুনির্দিষ্ট কোনো স্ট্যান্ড না থাকায় চালকরা ইচ্ছামতো গাড়ি রাখেন।
সরেজমিন পশ্চিমবাজার, মধ্যবাজার, বালিকা বিদ্যালয়, ট্রাফিক পয়েন্ট, পানহাটা, আখড়াসংলগ্ন এলাকা, সিমেন্ট কারখানা খেয়াঘাট, নোয়ারাই পাবলিক খেয়াঘাট, কালীবাড়ি ও তাহির প্লাজা সংলগ্ন ব্যস্ত এলাকাগুলো ঘুরে দেখা যায়, এখানকার একাধিক পয়েন্টে এলোমেলোভাবে রাখা হয়েছে ব্যাটারিচালিত টমটমগুলো। এতে সড়কে যান চলাচলের স্বাভাবিক অবস্থা বিঘিœত হচ্ছে।
এদিকে এ সমস্যা সমাধানে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও ব্যাটারিচালিত টমটম নিয়ন্ত্রণে স্থানীয়দের নিয়ে পৌর মেয়রের কয়েক দফা বৈঠকের কথা জানা গেছে। এ ছাড়া একাধিক মতবিনিময় সভাও করেছেন পৌরসভার মেয়র আবুল কালাম চৌধুরী। এসব সভায় বিশেষ কারণ ছাড়া শহরের ভেতরে টমটম ও অটোরিকসা চলাচল না করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। একই সঙ্গে নির্ধারিত স্থানে যাত্রী ওঠানামা ও গাড়ি রাখার ক্ষেত্রে করণীয় স¤পর্কে আলোচনা হয়। এর মধ্যে কিছু সংখ্যক ব্যাটারিচালিত গাড়ি পৌরসভা কর্তৃক অনুমোদন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও এ বিষয়ে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।
শহরের ব্যবসায়ী কামাল উদ্দিন জানান, টমটম সড়কে চলাচল নিয়ে প্রতিদিনই কোনো না কোনো স্থানে সমস্যা হচ্ছে। এসব নিয়ন্ত্রণে ট্রাফিক পুলিশের তৎপরতা ও লোকবল বাড়ানো জরুরি।
ছাতক পৌরসভার ট্রাফিক পুলিশের দায়িত্বে থাকা সার্জেন্ট আল আমিন জানান, ট্রাফিক পুলিশের লোকবল স্বল্পতায় দায়িত্ব পালন করা অনেকটাই কষ্টকর হয়ে পড়েছে। এরপরও আইন অমান্যকারী ব্যাটারিচালিত টমটমগুলোর বিরুদ্ধে অভিযান চলছে।
পৌরসভার মেয়র আবুল কালাম চৌধুরী জানান, পৌরসভার পক্ষ থেকে টমটমগুলোকে ট্যাক্সের আওতায় এনেছি। তাছাড়া পৌরসভার পক্ষ থেকে সকল প্রস্তুতি নেয়া শেষ। আগামী এক সপ্তাহের ভিতরে টমটমগুলো আর বাজারে ঢুকতে পারবে না। তখন আর যানজট থাকবে না।

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com