1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:০৭ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

ধর্মপাশায় ৬ বছরের শিশুকে ধর্ষণ

  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ, ২০২৪

ধর্মপাশা প্রতিনিধি ::
ধর্মপাশায় ছয় বছরের এক শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার বেলা দেড়টার দিকে উপজেলার বাদেহরিপুর গ্রামের মাঠ সংলগ্ন উজাড়– গাছের ঝোপঝাড়ে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার গভীর রাতে ভিকটিমের পিতা (৩৮) বাদী হয়ে বাদে হরিপুর গ্রামের বাসিন্দা শামছু মিয়ার ছেলে আজহারুল আরজু (২০)কে আসামি করে থানায় একটি মামলা করেছেন।
ওই শিশুটির পরিবার ও ধর্মপাশা থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বাদে হরিপুর গ্রামের শামছু মিয়ার ছেলে আজহারুল আজু (২০) বাকপ্রতিবন্ধী হলেও তার চলাফেরা, খাওয়া দাওয়া সবকিছুই স্বাভাবিক। একই ইউনিয়নের বাসিন্দা ওই শিশুটির পরিবারের সদস্যরা পূর্ব পরিচিত হওয়ায় তাদের বাড়িতে আজহারুল আজু প্রায়ই আসা যাওয়া করতো। মাঝে মধ্যে ওই শিশুটির সঙ্গে সে খেলাধূলাও করতো। মঙ্গলবার বেলা সোয়া একটার দিকে ওই শিশুটি নিজ বাড়ির উঠানে একাকী খেলাধূলা করছিল। এ সময় আজহারুল আজু ওই বাড়িতে এসে ইশারা ইঙ্গিতে বাড়ির সামনের মাঠে খেলাধূলার কথা বলে শিশুটিকে নিয়ে যায়। বেলা দেড়টার দিকে মাঠ সংলগ্ন উজারু গাছের ঝোপঝাড়ে নিয়ে গিয়ে শিশুটির মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করে। পরে ওই শিশুটি কাঁদতে কাঁদতে বাড়িতে এসে তার মাকে ঘটনাটি জানায়। ওইদিন বিকেল সাড়ে চারটার দিকে পরিবারের লোকজন ওই শিশুটিকে ধর্মপাশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে ভর্তি করেন। বুধবার বিকেল চারটা পর্যন্ত ওই হাসপাতালেই সে চিকিৎসাধীন ছিল।
হাসপাতালের আরএমও ডা. শুভেন্দু শেখর দাশ বলেন, শিশুটি ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে মনে হয়েছে। তবে পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়া নিশ্চিত করে এ বিষয়ে কিছু বলা সম্ভব নয়।
ধর্মপাশা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শামসুদ্দোহা বুধবার সন্ধ্যায় বলেন, মঙ্গলবার দুপুরে ছয় বছর বয়সী এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে থানায় মামলা হয়েছে।ধর্ষণের শিকার হওয়া শিশুটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। আসামি ও তার পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছে। গ্রেপ্তারের জন্য আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com