1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ১১:২৭ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

বৈশাখে মাঠে নামবে বিএনপি

  • আপডেট সময় রবিবার, ১৭ মার্চ, ২০২৪

সুনামকণ্ঠ ডেস্ক ::
দলীয় ইস্যুতে আপাতত মাঠে নামছে না বিএনপি। জনস¤পৃক্ত ইস্যুতে বিক্ষোভ ও গণসংযোগের মধ্যে সীমিত থাকবে কর্মসূচি। আর রমজানে ওয়ার্ড পর্যায়ে হবে ইফতার মাহফিল। ঈদ ও পহেলা বৈশাখ সামনে রেখে বড় কোনো কর্মসূচিতে যাবে না দলটি। সাংগঠনিক শক্তিমত্তা বাড়িয়ে এপ্রিলের শেষ দিকে রাজনৈতিক ইস্যুতে মাঠে নামার পরিকল্পনা রয়েছে বিএনপির। জাতীয় নির্বাচনোত্তর আন্দোলনে বিরতি দিয়ে নেতারা এখন ব্যস্ত ওমরাহ পালন ও নিজেদের উন্নত চিকিৎসা নিয়ে। বিএনপির কেন্দ্রীয় ও তৃণমূলের গুরুত্বপূর্ণ নেতাদের সঙ্গে কথা বলে এসব বিষয় জানা যায়।
নেতারা বলছেন, টানা কয়েক মাস আন্দোলন করতে গিয়ে শারীরিক ও আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তারা। সেই সঙ্গে মামলা মোকাদ্দমা তো রয়েছেই। এগুলোর ব্যয়ভার বহন করতে হিমশিম খাচ্ছেন তারা। এ জন্য মাঠে ঘুরে দাঁড়াতে সময় লাগবে তাদের। জনগণের ভাষা ও রাজনৈতিক বাস্তবতা মেনে সামনের দিনের কর্মসূচি ঠিক করতে হবে।
তৃণমূলের নেতাকর্মীরা বলছেন, তৃণমূলের বর্তমান অবস্থা কেন্দ্রকে উপলব্ধি করতে হবে। তাদের মতামত আমলে নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। সামনে উপজেলা নির্বাচনে বিএনপির নমনীয় নীতিতে থাকা উচিত। অনেকেই নানা প্রেক্ষাপটে নির্বাচনে অংশ নিতে বাধ্য হচ্ছেন। কর্মীরা একটা আশ্রয়স্থল খুঁজছে। দীর্ঘ সময় এভাবে তাদের জন্য ছন্নছাড়া থাকা কঠিন হয়ে পড়ছে। কর্মী-সমর্থক ও শুভাকাক্সক্ষীদের চাহিদার কথা চিন্তা করে বর্তমানে উপজেলা পরিষদের দায়িত্বে আছেন বিএনপির এমন অনেকে আবারও স্থানীয় সরকার নির্বাচনে অংশ নিতে যাচ্ছেন। তাদের মধ্যে ভৈরব উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আল-মামুন এবার চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করছেন। তার মতে, বিএনপির উচিত উপজেলা নির্বাচন নিয়ে কঠিন অবস্থান থেকে সরে আসা। সামনে জোরালো আন্দোলন করতে গেলে সব বিষয় মাথায় রাখতে হবে। আর উপজেলা নির্বাচনে তো আর সরকার বদল হয়ে যাবে না। উপজেলা নির্বাচন তৃণমূল নেতাদের রাজনৈতিক ক্যারিয়ারের একটি ধাপ ধরা যেতে পারে।
সিরাজগঞ্জ জেলা বিএনপির সাংগঠনিক স¤পাদক মির্জা মোস্তফা জামান জানান, তিনি ওমরাহ পালন করতে এখন সৌদি আরবে অবস্থান করছেন। সামনে তার জেলার কমিটি হওয়ার কথা রয়েছে। এলাকায় ছোট ছোট কিছু ইফতার পার্টি ছাড়া তেমন কোনো কার্যক্রম নেই আপাতত। ঈদের পর ব্যাপকভাবে সাংগঠনিক কার্যক্রম হালনাগাদ করার কাজ শুরু হবে। ইতিমধ্যে শীর্ষ নেতার কাছে মূল্যায়ন রিপোর্ট পৌঁছেছে।
প্রায় একই কথা বলেন দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান। তিনি জানান, কিছু দিন আগে তিনিও ওমরাহ পালন করেছেন। এখন আন্দোলনের একটা বিরতি চলছে। এর ফাঁকে এলাকায় সাংগঠনিক কাজ চলছে। সেই সঙ্গে মানুষের মধ্যে ইফতার সামগ্রী বিতরণ ও ইফতার মাহফিলের আয়োজন করা হচ্ছে।
উপজেলা নির্বাচন নিয়ে এই নেতা বলেন, কেন্দ্র থেকে উপজেলা নির্বাচন নিয়ে কোনো নির্দেশনা আসেনি। তৃণমূলের অনেকে নির্বাচন করতে আগ্রহী। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক আ ন ম সাইফুল হক কয়েক মাস ধরে নিজের ও তার স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য থাইল্যান্ডে অবস্থান করছেন। তিনি বলেন, সর্বশেষ কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছি আমরা। আন্দোলনের কর্মসূচি পালন করতে গিয়ে অনেক মাঠ পর্যায়ের নেতাকর্মী শারীরিক ও আর্থিকভাবে ব্যাপকহারে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। অনেকে এখনও কারাগারে আছেন। কর্মীদের জামিন হচ্ছে না। এসব বিষয় নিয়ে কাজ করতে হচ্ছে। আন্দোলনে যাওয়ার আগে দম নিতে হবে।
স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে আছেন বিএনপির সাংগঠনিক স¤পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স। তিনি বলেন, টানা আন্দোলন কর্মসূচির কারণে চিকিৎসার ফলোআপ করানো হয়নি। এখন যেহেতু একটু সময় পাওয়া গেছে তাই চিকিৎসা করিয়ে নিচ্ছি। নতুন কমিটি গঠন কিংবা পুনর্গঠন একটি সাংগঠনিক প্রক্রিয়া। এটি নানা প্রয়োজনে যেকোনো সময় হতে পারে। সংগঠনকে আরও গুছিয়ে সামনের দিনে কর্মসূচি নিয়ে মাঠে নামা হবে। একই কথা বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির জলবায়ু বিষয়ক সহ-স¤পাদক মোস্তাফিজুর রহমান বাবুলের। তিনি মনে করেন, যেহেতু সরকার যেকোনোভাবে ক্ষমতায় রয়েছে; তাদের সরাতে অবশ্যই আমাদের আরও বেশি হোম ওয়ার্ক করতে হবে। বিএনপির ঢাকা মহানগর উত্তরের সদস্য সচিব আমিনুল হক বলেন, আমরা ওয়ার্ডভিত্তিক ইফতার শুরু করব আজ থেকে। প্রত্যেক ওয়ার্ডে ইফতার মাহফিল কার্যক্রম চলবে। সেই সঙ্গে সাংগঠনিক কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। রমজানের পর আন্দোলন নিয়ে ভাবা হবে। এখন কর্মীদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছি।
এ বিষয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান বলেন, সুষ্ঠু একটি নির্বাচনের বিকল্প নেই। জনগণের দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত রাজপথে থাকবে বিএনপি। শিগগিরই নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।
অন্যদিকে বিএনপির হাইকমান্ড নিষ্ক্রিয় নেতাদের নানাভাবে দলে সক্রিয় করার চেষ্টা করছেন। আলোচিত ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন আহমেদকে বিএনপির স্বাধীনতা দিবস উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে দীর্ঘদিন পর তিনি দলীয় কার্যক্রমে সক্রিয় হলেন।
যুগপৎ আন্দোলনের শরিক বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ স¤পাদক ও গণতন্ত্র মঞ্চের নেতা সাইফুল হক বলেন, রমজান মাস চলবে ইফতার, ছোট ছোট বিক্ষোভ কিংবা গণসংযোগ কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে। ঈদের পর বাংলা নববর্ষ। এসব বিষয় মাথায় রেখে আন্দোলন কর্মসূচি ঠিক করা হবে। আপাতত জনস¤পৃক্ত কর্মসূচিতে মনোযোগ দেওয়া হবে। এ ছাড়া রাষ্ট্রকাঠামো মেরামতের ৩১ দফা রূপরেখা নিয়েও কাজ চলবে। ঈদের পর এ নিয়ে ব্যাপক কাজ হবে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com