1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১:১১ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

গণতন্ত্র ও মানবাধিকারের পক্ষে দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ

  • আপডেট সময় সোমবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০২৩

ড. হাসান মো. আল-ইমরান
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে গণতন্ত্র ও মানবাধিকারের পক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এসেছে। শেখ মুজিবুর রহমানের মতো ধ্রুপদী ব্যক্তিত্বের নেতৃত্বে, দলটি বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক নীতি ও মানবাধিকার কাঠামো গঠনে একটি মূল শক্তি হিসাবে ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধসহ উল্লেখযোগ্য ঐতিহাসিক ঘটনার মধ্য দিয়ে দলটি রাজনৈতিক ভাবে বাংলাদেশের মানুষের আস্থার নাম হয়ে দাঁড়িয়েছে।
ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট অনুযায়ী, গণতন্ত্রের প্রতি দলের প্রতিশ্রুতি এবং বাংলাদেশের বৈচিত্র্যময় সামাজিক-রাজনৈতিক ভূখ-ে মানবাধিকার রক্ষা ও প্রচারের জন্য তার প্রচেষ্টা বাংলাদেশের রাজনীতিতে এখনো চলমান। আওয়ামী লীগের সূত্রপাত অবিভক্ত পাকিস্তানের স্বাধীনতা-পূর্ব যুগে, সে সময়ে দলটি বাংলাভাষী জনগণের ভাষাগত অধিকার আদায়ের অঙ্গীকার নিয়ে লড়েছে।
পরবর্তীতে স্বায়ত্তশাসন এবং স্বাধীনতার সংগ্রামে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে, যেখানে আওয়ামী লীগ বাংলাদেশ সৃষ্টির আন্দোলনের অগ্রভাগে ছিল। শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্ব এবং আত্মনিয়ন্ত্রণের প্রতি দলের অটল অঙ্গীকার একটি নতুন জাতির জন্মের দিকে পরিচালিত করেছিল।
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ রাজনৈতিক বহুত্ববাদ, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন এবং আইনের শাসনের ওপর জোর দিয়ে, গণতান্ত্রিক নীতির প্রবক্তা হিসেবে দলটি নিজেদেরকে ধারাবাহিকভাবে স্থাপন করেছে। বাংলাদেশে গণতন্ত্রে আওয়ামী লীগের আরেকটি উল্লেখযোগ্য অবদানের একটি হল সামরিক শাসনের পর গণতান্ত্রিক নেতৃত্ব পুনরুদ্ধারে এর ভূমিকা।
দলটি গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠার পক্ষে আন্দোলন ও প্রতিবাদে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেছে, জনগণের ইচ্ছাকে প্রতিফলিত করে একটি রাজনৈতিক ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠায় অবদান রেখেছে। গণতন্ত্রের অনুশীলনকে শক্তিশালী করার প্রচেষ্টার মধ্যেও আওয়ামী লীগের অঙ্গীকার স্পষ্ট।
দলটি বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিতকরণ, নির্বাচনী স্বচ্ছতা বৃদ্ধি এবং রাজনৈতিক প্রক্রিয়ায় বিভিন্ন কণ্ঠের অংশগ্রহণের প্রচারের লক্ষ্যে কাজ করেছে। গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ সমুন্নত রেখে, আওয়ামী লীগ এমন একটি সমাজের কল্পনা করে যেখানে নাগরিকরা স্বাধীনভাবে তাদের মতামত প্রকাশ করতে পারে, শাসনে অংশগ্রহণ করতে পারে এবং দেশের উন্নয়নে অবদান রাখতে পারে।
গণতন্ত্রের প্রতি অঙ্গীকারের সমান্তরালে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মানবাধিকারের পক্ষে সোচ্চার। দলটি গণতন্ত্র এবং মানবাধিকার সুরক্ষার মধ্যে অন্তর্নিহিত যোগসূত্রকে স্বীকৃতি দেয়, উভয়কেই একটি ন্যায্য ও ন্যায়সঙ্গত সমাজের বিকাশের জন্য অপরিহার্য উপাদান হিসাবে গুরুত্ব দেয়।
মানবাধিকারের প্রতি আওয়ামী লীগের অঙ্গীকার প্রতিফলিত হয়েছে বিভিন্ন আইন প্রণয়ন ও নীতিগত পদক্ষেপে। দলটি নারী ও শিশুদের মতো দুর্বল জনগোষ্ঠীর সুরক্ষার লক্ষ্যে আইন প্রণয়নে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেছে। মহিলাদের বিরুদ্ধে সহিংসতা, শিশু শ্রম, এবং জাতিগত বা ধর্মের ভিত্তিতে বৈষম্যের মতো সমস্যাগুলিকে মোকাবেলা করার উদ্যোগগুলি এমন একটি সমাজ তৈরি করার জন্য জোর দেয় যেখানে প্রতিটি নাগরিক মৌলিক স্বাধীনতা উপভোগ করে।
তাছাড়া আওয়ামী লীগ ঐতিহাসিক অন্যায় ও নৃশংসতার মোকাবিলা করতে চেয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের সময় সংঘটিত যুদ্ধাপরাধের বিচার দলটির মানবাধিকার এজেন্ডার একটি উল্লেখযোগ্য দিক। অভিযুক্তদের জন্য ন্যায়বিচার নিশ্চিত করে যুদ্ধাপরাধ মোকাবেলায় একটি ট্রাইব্যুনাল প্রতিষ্ঠা করে অতীতের সত্যতা এবং জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার জন্য নির্ভীক প্রতিশ্রুতি প্রদর্শন করে।
ঐতিহাসিক অবদান এবং চলমান প্রচেষ্টা সত্ত্বেও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সমালোচনা ও চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হয়েছে। সমালোচনা গুলো হল দীর্ঘ সময় ধরে সরকারি দল হিসেবে ভূমিকা পালন করা, ক্ষমতার কেন্দ্রীকরণ এবং গণতান্ত্রিক নীতির সম্ভাব্য অবক্ষয়।
সমালোচকরা যুক্তি দেখান যে একটি বর্ধিত সময়ের জন্য একক রাজনৈতিক সত্তার আধিপত্য পৃষ্ঠপোষকতা, দুর্নীতি এবং রাজনৈতিক বিরোধিতার দিকে নিয়ে যেতে পারে। আওয়ামী লীগকে অবশ্যই এই চ্যালেঞ্জগুলিকে সাবধানে দীর্ঘমেয়াদী ও স্থায়ী সমাধানের দিকে নিয়ে যাবে, বৈধ সমস্যাগুলোকে স্থায়ীভাবে সমাধান করবে এবং গণতান্ত্রিক রীতিনীতি অনুশীলনের মাধ্যমে আরও সমুন্নত করবে।
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, গণতন্ত্র ও মানবাধিকারের প্রতি স্থায়ী অঙ্গীকার নিয়ে, দেশের রাজনৈতিক ভূখ-ে একটি কেন্দ্রীয় শক্তি হিসেবে নিজেদেরকে প্রতিষ্ঠা করেছে।
মুক্তিযুদ্ধ থেকে শুরু করে গণতান্ত্রিক শাসন ও মানবাধিকার সুরক্ষার পক্ষে দলটি বাংলাদেশের রাজনীতিতে সম্মুখ যোদ্ধা হিসেবে নিজেদেরকে প্রতিষ্ঠা করেছে ও অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে। একটি গণতান্ত্রিক সমাজ গড়ে তোলার জন্য প্রতিটি নাগরিকের অধিকার এবং মর্যাদা সুরক্ষিত রাখতে আওয়ামী লীগ দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।
লেখক: সহযোগী অধ্যাপক, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com