1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১০:৫৮ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা : ‘সুযোগে’ পরীক্ষার্থীদের পকেট কাটলো হোটেল ব্যবসায়ীরা

  • আপডেট সময় শুক্রবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২৩

শহীদনূর আহমেদ ::
প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষাকে পুঁজি করে পরীক্ষার্থীদের পকেটে কেটেছে সুনামগঞ্জ শহরের অসাধু হোটেল ব্যবসায়ীরা। খোঁজ নিয়ে জানাযায়, হোটেলগুলোতে কৃত্রিম কক্ষ সংকট তৈরি করে সংশ্লিষ্টরা। খালি কক্ষ থাকার পরও পরীক্ষার্থীদের কাছে নেই বলা হয়। তবে বাড়তি টাকা প্রস্তাব করলে কক্ষের ব্যবস্থা করা হয়। শহরের অনেক হোটেলে প্রকাশ্যে এভাবে ভাড়া আদায় করা হলেও এ বিষয়ে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নিতে দেখা যায়নি।
আজ শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর) প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগে লিখিত পরীক্ষা হচ্ছে। এ জন্য বৃহস্পতিবার জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে অনেক পরীক্ষার্থী সুনামগঞ্জ শহরে আসেন। যাদের বেশির ভাগই আবাসিক হোটেলে রাত্রিযাপন করেন। এই সুযোগে মাধ্যমে পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করে অসাধু হোটেল ব্যবসায়ীরা।
ভুক্তভোগী একাধিক পরীক্ষার্থী জানান, পরীক্ষার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে সুনামগঞ্জ শহরে বেশির ভাগ হোটেলে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হয়। মানসম্মত হোটেল থেকে নি¤œমানের হোটেলে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে দ্বিগুণ থেকে তিনগুণ হারে ভাড়া আদায় করা হয়েছে। তুলনামূলক ছোট্ট কক্ষে ধারণ ক্ষমতার চেয়ে
অতিরিক্ত লোককে জায়গা দেয়া হয়।
বৃহ¯পতিবার রাতে সরেজমিনে শহরের একাধিক আবাসিক হোটেলে গিয়ে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের সত্যতা পাওয়া যায়।
শহরের কালিবাড়ীস্থ সাকিব আবাসিক হোটেলে ধর্মপাশা থেকে আসেন আনিসুর দ¤পতি। ২০০০ টাকা দিয়ে কোনোভাবে এই হোটেলের নি¤œমানের একটি কক্ষ ভাড়া করেন তারা। এ জন্য তাকে ৫০০ টাকা অগ্রিম পরিশোধ করতে হয়েছে।
অতিরিক্ত ভাড়া নেয়ার ব্যাপারে ভুক্তভোগী আমিনুর বলেন, শহরের প্রতিটি হোটেলে দ্বিগুণ-তিনগুণ ভাড়া নেয়া নিচ্ছে। আমরা অনেক দূর থেকে আসছি। বাধ্য হয়ে ২ হাজার টাকা দিয়ে রুম ভাড়া করতে হয়েছে।
অপেক্ষাকৃত নি¤œমানের কক্ষ ২ হাজার টাকা ভাড়া নেয়ার সত্যতা স্বীকার করেছেন সাকিব হোটেলের ম্যানেজার রঞ্জু দেবনাথ। টাকা বেশি নেয়ার কারণ জানতে চাইলে ‘পরীক্ষা মৌসুমে ভাড়া বেশি নেয়া হয়’ বলে জানান তিনি। সাংবাদিকের কাছে অতিরিক্ত ভাড়ার কথা স্বীকার করায় পরীক্ষার্থী আনিসুরকে গালাগাল করেন রঞ্জু দেবনাথ।
আবাসিক হোটেল ওমরে গিয়ে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের সত্যতা পাওয়া যায়। নন এসি রুমের ভাড়া ২২০০ টাকা হলেও পরীক্ষার্থীর কাছ থেকে রাখা হয় ২৫০০ টাকা। এছাড়া অপেক্ষাকৃত নি¤œমানের কক্ষগুলোর নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে অতিরিক্ত টাকা রাখার অভিযোগ পাওয়া যায়।
অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের বিষয়টি স্বীকার করেন হোটেলের ম্যানেজার রনি দাস।
হোটেল নিউ প্যালেসের একটি কক্ষে উঠেন ধর্মপাশা উপজেলা রাকিব নামের এক পরীক্ষার্থী। তিনি জানান, শহরের সকল হোটেলে দ্বিগুণ হারে ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। তিনি কয়েকদিন আগে বুকিং দিয়ে রাখায় ২২০০ টাকা দিয়ে রুম নিতে পেরেছেন। অতিরিক্ত ভাড়ার কারণে অনেক পরীক্ষার্থী বিড়ম্বনায় পড়েছেন।
এ বিষয়ে জানতে জেলা প্রশাসনের একাধিক কর্মকর্তার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলেও তারা কল রিসিভ করেননি।

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com