1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৪:১৩ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

প্রিয় নেতা পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নানকে অফুরন্ত ধন্যবাদ

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর, ২০২৩

 

বিষয়টা সত্যিকার অর্থেই বিস্ময়কর। সুনামগঞ্জের পালে উন্নয়নের হাওয়া লেগেছে। কেবল এভাবেই বিষয়টাকে বর্ণনা করা যায়। বিস্ময়ের ভিন্ন ভিন্ন কারণ আছে। একটি কারণ এই যে, একদা ব্রিটিশ শাসকরা নি¤œভূমি ভাটিবাংলার গভীর জলজঙ্গলের প্রাতিবেশিক পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে এ অঞ্চলে কোনও ধরনের উন্নয়নকর্ম পরিচালনা করা যাব না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল এবং তৎপ্রেক্ষিতে উন্নয়নকাজের জন্য নির্ধারিত বরাদ্দ প্রাপ্তির বাইরে রেখে দিয়ে ছিল সুনামগঞ্জকে।
সুনামগঞ্জের প্রতি এমন বিমাতা সুলভ আচরণ করা হয়েছে যুগর পর যুগ। এমনকি পাক অমলে এবং একাত্তরোত্তর কালে পর্যন্ত ব্রিটিশ আমলের সিদ্ধান্তটিই কার্যত প্রাধান্য পেয়েছে বিভিন্ন দলের রাষ্ট্রক্ষমতায় সমাসীন থাকার বিভিন্ন পর্বে। এখানকার রাজনীতিবিদেরা ব্রিটিশ আমল থেকে সংসদে বিভিন্ন পদ অলঙ্কৃত করেছেন বটে কিন্তু সুনামগঞ্জের কপালে উন্নয়ন বরাদ্দ না পাওয়ার ব্রিটিশকর্তৃক অঙ্কিত নিয়তি তিলকটি মুছে দিত পারেন নি। ব্যতিক্রম হয়ে দেখা দিয়েছেন আমাদের পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেকনজর সুনামগঞ্জের প্রতি ফেরাতে পেরেছেন। আমাদের সুনামগঞ্জে এখন ব্যাপকাকারে উন্নয়নের কাজ চলছে, কেউ কেউ যে-উন্নয়নকে উন্নয়নের জোয়ার বলে অভিহিত করতে পর্যন্ত কসুর করছেন না।
গত রোববার (৫ নভেম্বর ২০২৩) দুপুর ১টা ১৫মিনিটে শান্তিগঞ্জ উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে অস্থায়ী নাম ফলকে ধান গবেষণা ইন্সটিটিউট-এর আঞ্চলিক কেন্দ্রের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, প্রধানমন্ত্রী গ্রামের মানুষকে ভালোবাসেন। শহরের আলোকবর্তিকা গ্রামের দিকে দিয়েছেন। যার ফলে সুনামগঞ্জের মতো পশ্চাৎপদ এলাকায় একটি বিশ্বমানের মেডিকেল, ধান গবেষণা ইন্সটিটিউট, এরপর বিটাক, আজিজুন্নেছা ভোকেশনাল ইন্সটিটিউট, মুন্সি আরফান আলী ইউসেফ শ্রম ও কর্মসংস্থান ইন্সটিটিউট প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে পেরেছি। আসন্ন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের পরেই সুনামগঞ্জে রেল আসবে। সুনামগঞ্জে আমরা বিমানবন্দর করবো। উড়াল সড়কের কাজ ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গেছে। শুধু কাজ আর কাজ, আমাদের কাজের শেষ নেই। সুনামগঞ্জের জন্য আমার আরও স্বপ্ন আছে সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে আপনাদের সহযোগিতা চাই।
এরপর আর কী বলার থাকতে পারে। সুনামগঞ্জের উন্নয়নে গতিসঞ্চার করার জন্য আমরা আমাদের প্রিয় নেতা পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানকে অফুরন্ত ধন্যবাদ জানাই। আর কমনা করি যে তিনি সুস্থ থাকুন, তাঁর কাজের গতি উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাক, তিনি সুনামগঞ্জের উন্নয়নের শ্রেষ্ঠ রূপকার হয়ে উঠুন।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com