1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২:২৩ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

জাতীয় নির্বাচন : মাঠে আওয়ামী লীগ, বিএনপিও প্রস্তুতি নিচ্ছে

  • আপডেট সময় রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২৩

বিশেষ প্রতিনিধি ::
জাতীয় নির্বাচনের ডামাঢোল বেজে ওঠেছে। সুনামগঞ্জ জেলার ১৯ লাখ ৩৯ হাজার ৫৬৯ ভোটারের মধ্যে শুরু হয়ে গেছে ভোট নিয়ে নানা আলোচনা। সচেতন ভোটার ও দলনিরপেক্ষ রাজনৈতিক সচেতন ভোটাররাও নানা হিসেব-নিকেষ করছেন। নজর রাখছেন জাতীয়-আন্তর্জাতিক পরিস্থিতির দিকে। তবে ভোটাররা ভোট দিয়ে জাতীয় সংসদে প্রতিনিধিত্ব পাঠাতে মুখিয়ে আছেন। এই অবস্থায় আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীরা সরবে মাঠে প্রচারে আছেন। বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীরা দলীয় নির্দেশনার প্রতি সতর্ক দৃষ্টি রেখে নীরবে ব্যক্তিগতভাবে কাজ করছেন। তবে সম্প্রতি তারা সরকার পতনের দাবি জানিয়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি নিয়ে মাঠে সোচ্চার আছেন।
৫টি আসন নিয়ে গঠিত সুনামগঞ্জ জেলা। সুনামগঞ্জ-৪ (সদর-বিশ্বম্ভরপুর) আসন বাদে বাকি চারটি আসনই আওয়ামী লীগের আসন হিসেবে পরিচিত। ৫ম জাতীয় সংসদ নির্বাচন থেকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আসনগুলোতে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরাই বিজয়ী হয়েছেন বেশি। ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল হিসেবে তৃণমূলে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সংখ্যাও বেশি। তবে সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এসে জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি আওয়ামী লীগের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নামে। ২০০১ সালের জাতীয় নির্বাচনে সরকার গঠনের পর তারাও দল গোছাতে থাকে। বাড়তে থাকে কর্মী সংখ্যা। বর্তমানে তাদেরও বিপুল কর্মী তৈরি হয়েছে। তবে গত ১৫ বছর ধরে ক্ষমতার বাইরে থাকায় এবং কেন্দ্রীয়ভাবে সাংগঠনিক কার্যক্রমে বিচ্ছিন্নতা দেখা দেওয়ায় কর্মীদের মধ্যে এক ধরনের হতাশা লক্ষণীয়। বর্তমানে দ্বাদশ সংসদ জাতীয় নির্বাচন নিয়েও ধোঁয়াশায় নেতাকর্মীরা। এখন পর্যন্ত বিএনপি নির্বাচনে না যেতে অনড় থাকলেও সম্প্রতি ‘তৃণমূল বিএনপি’ হঠাৎ কর্মসূচি নিয়ে হাজির হওয়ায় নেতাকর্মীদের মধ্যে অস্থিরতা লক্ষ করা গেছে।
সুনামগঞ্জের ৫টি আসনের প্রতিটিতেই দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রচারণা শুরু করেছে আওয়ামী লীগ। মনোনয়ন দৌড়ে এগিয়ে থাকা সম্ভাব্য প্রার্থীরা চষে বেড়াচ্ছেন এলাকা। পুরনো মুখের সঙ্গে নতুন মুখগুলোও কোমর বেধে সভা-সমাবেশ-গণসংযোগ করছেন। আওয়ামী লীগসহ অঙ্গসংগঠনগুলো সরকারের উন্নয়ন কর্মকা- তুলে ধরছে তৃণমূলে। জেলার দৃশ্যমান উন্নয়ন নিয়ে নেতাকর্মীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছেন।
বর্তমান সংসদ সদস্যসহ সম্ভাব্য মনোনয়ন প্রত্যাশীরাও বসে নেই। নির্বাচনী এলাকায় এসে মতবিনিময় করছেন। সরকারের উন্নয়ন তুলে ধরার পাশাপাশি অসমাপ্ত উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন। এবার নির্বাচনে সাংগঠনিকভাবে লড়াই করতে হবে এই মনোভাব নিয়েই প্রচারণা শুরু করেছেন তারা।
এদিকে সম্প্রতি জেলা আওয়ামী লীগও তাদের প্রথম কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে আগামী জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনতে এবং রাজনৈতিক দুর্বৃত্তদের রুখতে প্রত্যয় ব্যক্ত করেছে। বিভেদ ভুলে আওয়ামী লীগকে ঐক্যবদ্ধ করে আবারও শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় এনে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মাণের অঙ্গীকার করেছেন তারা।
জগন্নাথপুর উপজেলার ইসমাইল চক গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা ময়না মিয়া বলেন, বাংলাদেশের মর্যাদা বৃদ্ধি পেয়েছে। একটি সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে উঠে দাঁড়াচ্ছে দেশটি। সুখী ও সমৃদ্ধ দেশ দেখে ভালো লাগছে। মনে হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে যুদ্ধ করে আমরা যে দেশ পেয়েছিলাম সেই কাক্সিক্ষত সমৃদ্ধ দেশ আমরা পেতে যাচ্ছি। শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ তিনি বাঙালি জাতির মাথা উঁচু করেছেন। এ কারণেই আগামী জাতীয় নির্বাচনেও আমরা তাকে চাই। তাকে সহযোগিতা করা এখন আমাদের সবার কর্তব্য।
সুনামগঞ্জ জেলা যুবদলের আহ্বায়ক ও সুনামগঞ্জ-৪ আসনে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী আবুল মনসুর শওকত বলেন, আমরা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের একদফা আন্দোলনে আছি। সরকার পতন ও আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিলে এবং তত্ত্বাবধায়ক সরকার এলে আমরা নির্বাচনে যাবো। তখন মাঠের, তৃণমূলের একজন সক্রিয় নেতা হিসেবে জোরালোভাবে দলীয় মনোনয়ন চাইবো।
সুনামগঞ্জ-১ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী জেলা শ্রমিক লীগ আহ্বায়ক সেলিম আহমেদ বলেন, গত ১৫ বছরে বাংলাদেশ উন্নয়নে বদলে গেছে। ডিজিটাল বাংলাদেশের লক্ষ্য অর্জন শেষে আমরা এখন স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের পথে। বিদ্যুৎ, খাদ্য, কৃষিতে স্বয়ংসম্পূর্ণ দেশ। বহির্বিশ্বও আমাদের নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন দর্শনে বিস্ময় প্রকাশ করেছে। দেশের সাধারণ ভোটাররাও চান এই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা ও বাংলাদেশকে মর্যাদাপূর্ণ দেশ হিসেবে গড়ে ওঠার জন্য আওয়ামী লীগ আবারও ক্ষমতায় আসুক। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রাজনৈতিক আদর্শ বুকে ধারণ করে জননেত্রী শেখ হাসিনার একজন সক্রিয় কর্মী হিসেবে সুনামগঞ্জ-১ আসনে আমি মনোনয়নের লক্ষ্যে দীর্ঘদিন ধরে মাঠেঘাটে কাজ করছি। আশাকরি আমি নৌকা মার্কা নিয়ে নির্বাচনে এই আসনটি জননেত্রীকে উপহার দিতে পারবো।
সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নোমান বখত পলিন বলেন, দেশের উন্নয়নের স্বার্থে আবারও আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় দেখতে চায় সাধারণ মানুষ। মানুষ ভোটের জন্য অপেক্ষায় আছে। দেশের সাধারণ মানুষের ভোটের অধিকার কেউ কেড়ে নিতে চাইলে আওয়ামী লীগের হাজার হাজার নেতাকর্মী তাদের প্রতিহত করবে। গণতন্ত্রকে এগিয়ে নেওয়ার লড়াইয়ে এবং আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় নিয়ে যাওয়ার লড়াইয়ে আমরা প্রস্তুত রয়েছি।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com