1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:২০ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

পলাশ-ধনপুর : সড়কে বড় বড় গর্ত, ভোগান্তিতে লক্ষাধিক মানুষ

  • আপডেট সময় শনিবার, ১২ আগস্ট, ২০২৩

আকরাম উদ্দিন ::
বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার পলাশ-ধনপুর সড়কে দীর্ঘদিন ধরে মেরামত কাজ না হওয়ায় সড়কে বড় বড় গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। এই সড়কে স্থানীয় তিন ইউনিয়নের মানুষসহ প্রতিদিন বিভিন্ন স্থানের লক্ষাধিক মানুষ চলাচলে মারাত্মক ভোগান্তিতে পড়েছেন। প্রতিদিন এই সড়কে ঘটে চলেছে নানা দুর্ঘটনা। দ্রুত সড়কটি মেরামতের দাবি স্থানীয় বাসিন্দাদের।
বুধবার দুপুরে সরেজমিনে গেলে স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি জানান, প্রায় ৬ বছর ধরে সড়কের কোনো মেরামত কাজ হচ্ছে না। গত ২০২২ সালের বন্যায় ও ভারী বৃষ্টিপাতে সড়কের বিনাশ ঘটেছে। সড়কের বিভিন্ন স্থানে ছোট ছোট অসংখ্য গর্তের পাশাপাশি বড় বড় গর্ত তৈরি হয়েছে। যানবাহন চলাচলে ঘটছে চলেছে নানা দুর্ঘটনা। স্থানীয় পলাশ ইউনিয়ন, সলুকাবাদ ও ধনপুর ইউনিয়নের মানুষ ছাড়াও বিভিন্ন স্থানের লক্ষাধিক মানুষ চলাচল করে থাকেন এই সড়কে। সড়কে যানবাহন চলাচলে ঘটে চলেছে নানা দুর্ঘটনা।
মাজাইর গ্রামের হযরত আলী বলেন, আমার বাড়ির সামনে মেইন সড়কে বড় বড় গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। এই গর্তে পড়ে প্রতিদিন দুর্ঘটনা ঘটছে। সড়কের মেরামত হচ্ছে না দীর্ঘদিন ধরে। দ্রুত সড়কের মেরামত কাজ প্রয়োজন।
পশ্চিম মেরুয়াখলা গ্রামের আশিক মিয়া বলেন, পলাশ-ধনপুর যাতায়াত সড়ক এমনভাবে ভেঙেছে এখন রোগী, নারী, শিশু ও বৃদ্ধ মানুষ চলাচলে মারাত্মক ভোগান্তিতে পড়েছেন। সড়কের দ্রুত মেরামত দরকার।
সিএনজি চালক রিপন মিয়া বলেন, পলাশ-ধনপুর সড়কের যে বেহাল অবস্থা রোগী বহন করে গাড়ি চালালে যাত্রীদের গালিও শুনতে হয় আমাদের। গাড়ির পার্টসও দ্রুত নষ্ট হয়। এই সড়ক নিয়ে আমরা স্থানীয়রা অবহেলার শিকার।
পলাশ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোহেল আহমদ বলেন, পলাশ-ধনপুর সড়ক এলাকার খুবই গুরুত্বপূর্ণ সড়ক। প্রতিদিন এই সড়ক দিয়ে স্থানীয় ৩ ইউনিয়নের মানুষ সহ প্রায় লক্ষ মানুষ চলাচল করে থাকেন। সড়কের কাজ হয়েছিল অনুমান ৬/৭ বছর আগে। পরে ২০২২ সালের বন্যায় ও ভারী বৃষ্টিপাতে সড়ক নষ্ট হয় মারাত্মকভাবে। এবারের বর্ষায় সড়কটি আরও নষ্ট হয়ে গেছে। সড়কের মেরামত জরুরি প্রয়োজন।
বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা প্রকৌশলী একরামুল হোসেন বলেন, ফ্লাড ২০২২ এর (ডেভলপমেন্ট প্রকল্পভুক্ত) আছে। বরাদ্দ আসলে দ্রুত সড়ক সংস্কারের কাজ শুরু হবে।
বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সফর উদ্দিন বলেন, পলাশ-ধনপুর সড়ক খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু সড়কটি এবারও মারাত্মকভাবে ভেঙে গেছে। যা মানুষ চলাচলে খুবই ভোগান্তি হচ্ছে। এছাড়াও পলাশ বাজার থেকে টেকনিক্যাল কলেজ হয়ে মুজিব বাজার পর্যন্ত সড়কেরও বেহাল অবস্থা। এই সড়কগুলো দ্রুত মেরামত প্রয়োজন।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com