1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১১:৪১ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

তাহিরপুর : পিআইসি’র তালিকা প্রকাশে লুকোচুরি

  • আপডেট সময় শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী, ২০২৩

 

স্টাফ রিপোর্টার ::
হাওর রক্ষা বাঁধ নির্মাণে প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি (পিআইসি)-এর পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশে জেলা প্রশাসনের দেয়া নির্দেশনা মানছে না তাহিরপুর উপজেলার দায়িত্বশীল কর্মকর্তাগণ। গঠিত পিআইসি তালিকা প্রকাশে লুকোচুরি করছেন সংশ্লিষ্টরা। এতে করে জনমনে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। অন্যান্য বছর সকল পিআইসি’র তালিকা ওয়েবসাইটে পাওয়া গেলেও এ বছর ২৬ জানুয়ারি পর্যন্ত প্রকাশ হয়নি।
এদিকে, ওয়েবসাইটে গত ১১ জানুয়ারি প্রথম দফায় তালিকা প্রকাশিত হলেও পরে ২১ জানুয়ারি দ্বিতীয় দফায় তালিকা প্রকাশিত হয়। কিন্তু এর ২৪ ঘণ্টা পরই তা আবার ডিলিট করা হয়। এরপর পিআইসি’র তালিকা আপলোড করা হয়নি। এর মধ্যে কয়েক দফা পছন্দের লোকদের পিআইসিতে সংযুক্ত করার অভিযোগ উঠেছে। এর মধ্যে আবার যে সকল পিআইসি গঠন করা হয়েছে তাদের ওয়ার্ক অর্ডার দেওয়া হচ্ছে ফোনে ডেকে এনে। আর এই কাজটি করছেন তাহিরপুর উপজেলা হাওররক্ষা বাঁধ নির্মাণ ও মনিটরিং কমিটির সদস্য সচিব শওকতুজ্জামান।
ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণ ও মনিটরিংয়ের জন্য গঠিত কমিটির একাধিক সদস্য ও উপজেলার সচেতন নাগরিকগণ বলেছেন, কি এমন গোপন বিষয় আছে যার কারণে তালিকা প্রকাশ হচ্ছে না। যা আমরা মনিটরিং বোর্ডে থাকার পরও জানতে পারছি না। কী হচ্ছে বাঁধ নিয়ে পিআইসি গঠনে।
ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণ ও মনিটরিংয়ের জন্য গঠিত তাহিরপুর উপজেলা কমিটির সদস্য রমেন্দ্র নারায়ণ বৈশাখ জানান, কাজের স্বচ্ছতার জন্য ওয়েবসাইটে তথ্যসহ তালিকা প্রকাশ করার নির্দেশনা বিগত বছরেও কার্যকর ছিল। কিন্তু এবছর অনেকেই এই নিয়ম মানছেন না। ওয়েবসাইটে ঢুকলে প্রত্যেক উপজেলার পিআইসির নাম ঠিকানাসহ সকল তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না।
তাহিরপুর উপজেলা হাওররক্ষা বাঁধ নির্মাণ ও মনিটরিং কমিটির সদস্য সচিব প্রকৌশলী শওকতুজ্জামান জানান, নানা কারণেই পিআইসির কমিটির তালিকা প্রকাশ করা হচ্ছে না। তবে দু-একদিনের মধ্যে প্রকাশ করা হবে। আর যারা পিআইসি পেয়েছেন তাদেরকে ফোনে জানিয়ে ওয়ার্ক অর্ডার দেওয়া হয়। কাজ শুরু করেছে তারা।
তাহিরপুর হাওর বাঁচা আন্দোলনের যুগ্ম আহ্বায়ক তোজাম্মিল হক নাসরুম বলেন, তালিকা প্রকাশ করে স্বচ্ছতা নিশ্চিত ও তথ্য প্রাপ্তির জন্য ওয়েবসাইটে তথ্য প্রকাশের একটি নির্দেশনা দেয়া আছে জেলা প্রশাসন থেকে। এই নির্দেশনা ২০১৭ সালের পর থেকে কার্যকর আছে। চলতি বছরে ওয়েবসাইটে তথ্য প্রকাশিত না হওয়ায় স্বচ্ছতার প্রশ্ন থেকে যায়। এবার হাওরের কোনো ক্ষতি হলে এর দায় ভার পানি উন্নয়ন বোর্ডকে নিতে হবে।
তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুপ্রভাত চাকমা জানান, আমার উপজেলায় স্বচ্ছতার সাথেই হাওরের বাঁধের কাজ শুরু হয়েছে। ওয়েবসাইটে তথ্য আপলোড না করার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান আপলোড হয়ে যাবে।
সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মামুন হাওলাদার জানান, এ বছর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের অসহযোগিতার কারণেই ওয়েবসাইটে পূর্ণাঙ্গ তালিকা দেয়া সম্ভব হয়নি। তালিকা পেলেই ওয়েবসাইটে দিয়ে দিব। এ বছর এখনও তালিকা পাইনি।

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com