1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:৪০ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

নির্ধারিত সময়ে বাঁধের কাজ শুরু হয়নি জেলাজুড়ে প্রতিবাদ

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারী, ২০২৩

সুনামকণ্ঠ ডেস্ক ::
হাওরের ফসলরক্ষা বাঁধের কাজ নির্ধারিত সময়ে শুরু না করার প্রতিবাদে জেলাজুড়ে প্রতিবাদ সমাবেশ এবং মানববন্ধন করেছে হাওর বাঁচাও আন্দোলন। কর্মসূচি থেকে সবগুলো হাওরে বাঁধের কাজে দ্রুত শুরু এবং নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করার দাবিও জানানো হয়।
হাওর বাঁচাও আন্দোলন সুনামগঞ্জ জেলা কমিটি সোমবার সকালে শহরের আলফাত স্কয়ারে প্রতিবাদ সমাবেশ এবং মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। হাওর বাঁচাও আন্দোলন সুনামগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি ইয়াকুব বখত বহলুলের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল হক মিলনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন হাওর বাঁচাও আন্দোলন কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ স¤পাদক বিজন সেন রায়, উপদেষ্টা রমেন্দ্র কুমার দে মিন্টু, সাংগঠনিক স¤পাদক একে কুদরত পাশা, দপ্তর স¤পাদক দুলাল মিয়া, জেলা কমিটির সহ-সভাপতি আলী হায়দার, সাবেক সাংগঠনিক স¤পাদক রুহুল আমীন, সাংগঠনিক স¤পাদক শহীদ নুর আহমেদ, প্রভাষক মামুন আহমেদ প্রমুখ। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন হাওর বাঁচাও আন্দোলন কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি সুখেন্দু সেন, যুগ্ম স¤পাদক নির্মল ভট্টাচার্য্য, শীলা বসু, আনোয়ারুল হক, এরশাদ মিয়া, ইসমাইল আলী, চন্দন রায়, রবীন্দ্র দেব প্রমুখ।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, গত ১৫ ডিসেম্বর বাঁধ নির্মাণ কাজ শুরু করার কথা থাকলেও এখনো পর্যন্ত বেশির ভাগ হাওরে কাজ শুরুই হয়নি। ২৮ ফেব্রুয়ারি বাঁধ নির্মাণকাজ শেষ করার বাধ্যবাধকতা থাকলেও কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় কাজ শুরু হচ্ছে না। পাউবো অফিস ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা এখনো পিআইসি নিয়ে দর কষাকষিতে রয়েছেন। তারা চাচ্ছেন ২০১৭ সালের মতো আবারও হাওরবাসীর কান্না দেখতে। ভাঙা বাঁধে গিয়ে কৃষকদের সান্ত¦নার নাটক করতে। নির্ধারিত দিন শেষ হয়ে গেলেও কাজ শুরু করার কোনো আলামত দেখা যাচ্ছে না। এভাবে চলতে থাকলে গেল বছরের মতো ঝুঁকিতে থাকবে কৃষকের স্বপ্নের বোরো ফসল।
বক্তারা আরও বলেন, বন্যার অজুহাত দেখিয়ে এবার দ্বিগুণ বরাদ্দ ও প্রকল্প বাড়ানো হয়েছে। কিন্তু ফসলের সুরক্ষায় কাজ কিছুই হচ্ছে না। সরকারের টাকা লুটপাটের পাঁয়তরা করছে একটি মহল। তারা চায় কাজ না করে টাকা পকেটে নিতে। এবার এটা চলতে দেয়া হবে না। দায়িত্বপ্রাপ্তদের উদাসীনতায় এবারও যদি হাওর ডুবির ঘটনা ঘটে এর দায় পাউবো ও প্রশাসনকে নিতে হবে। কৃষকদের সাথে নিয়ে আন্দোলনের ডাক দেয়া হবে।
উল্লেখ্য, এবার সুনামগঞ্জের ১২ উপজেলায় বোরো ফসলের সুরক্ষায় ২০৮ কোটি টাকা বরাদ্দে ১১০১টি প্রকল্পে ৭৫৯ কিলোমিটার বাঁধ নির্মাণ করার কথা। জেলা প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ড এই বাঁধ নির্মাণকাজ তদারকি করছে।
ধর্মপাশা :
হাওরের ফসলরক্ষা বাঁধের কাজ সময় মতো শুরু না করার প্রতিবাদে এবং নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বাঁধের কাজ শেষ করার দাবিতে ধর্মপাশায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকালে উপজেলা পরিষদ এলাকায় হাওর বাঁচাও আন্দোলন ধর্মপাশা উপজেলা কমিটি এই মানববন্ধনের আয়োজন করে। মানববন্ধনে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার শতাধিক মানুষ অংশ নেয়। এতে বক্তব্য রাখেন হাওর বাঁচাও আন্দোলনের ধর্মপাশা উপজেলা কমিটির সদস্য সচিব চয়ন কান্তি দাস, সদস্য লিপু মজুমদার, কৃষক এনামুল হক, আউয়াল মিয়া, রকিব মিয়া প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, গত বছরের ৩০ নভেম্বরের মধ্যে ফসলরক্ষা বাঁধের প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি (পিআইসি) গঠন কাজ শেষ করার কথা ছিল কিন্তু এখনো তা শেষ হযনি। হাওরের ফসলরক্ষা বাঁধের সবগুলো প্রকল্প কাজ এখনো শুরু না হওয়ায় কৃষকেরা হাওরের বোরো ফসলরক্ষা নিয়ে চিন্তিত। দ্রুত সময়ের মধ্যে বাঁধের পিআইসি গঠন শেষে বাঁধের সবগুলো প্রকল্পে কাজ শুরু করে তা নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ করতে হবে।
জামালগঞ্জ :
হাওরের ফসল রক্ষা বাঁেধর কাজ সময়মতো শুরু না করার প্রতিবাদে এবং নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ করার দাবিতে জামালগঞ্জে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। হাওর বাঁচাও আন্দোলন জামালগঞ্জ উপজেলা কমিটির আয়োজনে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন কমিটির সভাপতি শাহানা আল আজাদ, সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হক, সাধারণ সম্পাদক অঞ্জন পুরকায়স্থ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবুল কামাল আজাদ, জামালগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি হাবিবুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান আবুল হোসেন, জহুরা বেগম, রাবেয়া বেগম।
মানববন্ধনে বক্তাগণ বলেন, চলতি বছরে হাওরের পানি অনেক আগেই কমেছে। কিন্তু পাউবোর কাবিটা নীতিমালা অনুযায়ী এখন সিংহভাগ পিআইসিতে কাজ শুরু হয়নি। যারা কাজ করতে গড়িমসি করছে তাদেরকে পিআইসি থেকে বাদ দিতে হবে।
জগন্নাথপুর :
জগন্নাথপুরে সময়মতো ফসল রক্ষা বাঁধের কাজ শুরু না হওয়ার প্রতিবাদ এবং নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ করার দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সোমবার দুপুরে জগন্নাথপুর পৌরসভা পয়েন্টে হাওর বাঁচাও আন্দোলন জগন্নাথপুর উপজেলা কমিটির উদ্যাগে কমিটির আহ্বায়ক সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব অমিত দেবের পরিচালনায় প্রতিবাদসভায় বক্তব্য দেন চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম বকুল, হাওর বাঁচাও আন্দোলন জগন্নাথপুর উপজেলা কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক দিলোয়ার হোসেন, লুৎফুর রহমান, সদস্য আলী আহমেদ, নুরুল হক,আবাব মিয়া, ছালিক আহমেদ, সাইদুর রহমান, বকুল গোপ, শামীম আহমেদ, জুয়েল আহমেদ, হুমায়ুন কবির ফরিদী প্রমুখ।
সভায় চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম বলেন, ১৫ ডিসেম্বর কাজ শুরু করার কথা থাকলেও সোমবার পর্যন্ত দুই একটিতে কাজ শুরু হয়েছে। আমি বার বার কাজ শুরু করতে তাগিদ দিয়ে যাচ্ছি।
হাওর বাঁচাও আন্দোলন জগন্নাথপুর উপজেলা কমিটির আহ্বায়ক সিরাজুল ইসলাম বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, জগন্নাথপুর উপজেলায় এখনো অধিকাংশ প্রকল্পে হাওর রক্ষা বেড়িবাঁধের কাজ শুরু হয়নি ফলে কৃষকরা দুশ্চিন্তায় ভোগছেন। যারা পিআইসি গঠনে ও বাঁধ নির্মাণ সংস্কার কাজে গাফিলতি করছেন হাওরের ফসলের ক্ষতি হলে তারা দায়ভার এড়াতে পারবেন না। তিনি অবিলম্বে বাঁধের কাজ শুরু করে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ করার দাবি জানান।
প্রসঙ্গত, পাউবোর নিয়ম অনুযায়ী ১৫ ডিসেম্বর কাজ শুরু করে ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে শেষ করার কথা। জগন্নাথপুর উপজেলায় এবার ১০ কোটি টাকা বরাদ্দে ৫০ টি প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির মাধ্যমে ফসল রক্ষা বেড়িবাঁধের কাজ হওয়ার কথা।
তাহিরপুর :
সময়মতো ফসল রক্ষা বাঁধের কাজ শুরু না হওয়ার প্রতিবাদ এবং নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ করার দাবিতে তাহিরপুরে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে হাওর বাঁচাও আন্দোলন। সোমবার সকালে উপজেলা সদরের আব্দুজ জহুর চত্বরে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে বক্তব্য দেন হাওর বাঁচাও আন্দোলন তাহিরপুর উপজেলা শাখার সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক সাইদুল কিবরিয়া, মোসায়েল আহমদ, সদস্য সচিব হোসাইন শরীফ বিপ্লব, যুগ্ম আহ্বায়ক তোজাম্মিল হক নাসরুম, বীর মুক্তিযোদ্ধা ইসলাম উদ্দিন, কৃষক হাফিজ আলী, আফলাকুল, আক্তার হোসেন প্রমুখ। মানববন্ধনে কৃষক, শ্রমিকসহ সর্বস্তরের জনতা অংশগ্রহণ করেন।
মানববন্ধনে উপজেলা শাখার সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক সাইদুল কিবরিয়া বলেন, কাবিটা নীতিমালা-২০১৭ অনুসারে ৩০ নভেম্বরের মধ্যে প্রাক্কলন শেষ করে ১৫ ডিসেম্বর ফসলরক্ষায় বাঁধের কাজ শুরু এবং ২৮ ফেব্রুয়ারি শেষ করার কথা। কিন্তু নিয়মনীতির তোয়াক্কাই করছেন না প্রকল্প বাস্তবায়নে দায়িত্বপ্রাপ্তরা। এর ফলে ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে বাঁধের কাজ শেষ করার সরকারি নির্দেশ থাকলে সময় ক্ষেপণের কারণে তা আর হবে না।
শাল্লা :
হাওরের ফসলরক্ষা বাঁধের কাজ সময় মতো শুরু না করার প্রতিবাদে ও নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ করার দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে হাওর বাঁচাও আন্দোলন শাল্লা উপজেলা কমিটি। সোমবার দুপুরে উপজেলা শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে সংগঠনের আয়োজনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।
হাওর বাঁচাও আন্দোলন শাল্লা উপজেলা কমিটির সভাপতি অধ্যাপক তরুণ কান্তি দাসের সভাপতিত্বে ও সাধারণ স¤পাদক জয়ন্ত সেনের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে
প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সহ সভাপতি কবি রবীন্দ্র চন্দ্র দাশ। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সংগঠনের উপদেষ্টা ম-লীর সদস্য আজমান গণি তালুকদার, যুগ্ম স¤পাদক ইয়াহিয়া আলম, অর্থ স¤পাদক কাজী বদরুজ্জামান প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, সংশোধিত কাবিটা নীতিমালা ২০১৭ অনুযায়ী হাওরের ফসলরক্ষা বাঁধের কাজ শুরু হওয়ার কথা ১৫ ডিসেম্বর থেকে। শেষ হওয়ার কথা রয়েছে ২৮ ফেব্রুয়ারি। পিআইসি গঠন করার কথা ৩০ নভেম্বরের মধ্যে। কিন্তু এখন পর্যন্ত হাতেগোনা কয়েকটা পিআইসি বাঁধের কাজ শুরু করলেও অধিকাংশ পিআইসির কাজই শুরু হয়নি। গঠন করা হয়নি অনেক পিআইসিও। এমন পরিস্থিতিতে হাওরের একমাত্র বোরো ফসল নিয়ে উদ্বিগ্ন কৃষকরা। বোরো ফসল যাতে ঝুঁকির মধ্যে না থাকে, সেজন্য দ্রুত পিআইসির ওয়ার্ক অর্ডার দিয়ে উপজেলা কাবিটা স্কীম প্রণয়ন ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি বাঁধের কাজ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ করার দাবি জানান বক্তারা।
শান্তিগঞ্জ :
হাওর রক্ষা বাঁধের কাজ সময়মতো শুরু না করার প্রতিবাদে এবং নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করার দাবিতে হাওর বাঁচাও আন্দোলন শান্তিগঞ্জে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে। সোমবার সকালে শান্তিগঞ্জ পয়েন্টে আয়োজিত মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি রাধিকা রঞ্জন তালুকদার। সাধারণ স¤পাদক মো. আবু সঈদ-এর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মো. ইলিয়াছুর রহমান, সুনামগঞ্জ জেলা কমিটির প্রচার স¤পাদক তৈয়্যবুর রহমান, নির্বাহী সদস্য মো. মামুন আহমেদ, উপজেলা কমিটির বাঁধ বিষয়ক স¤পাদক মো. নজরুল ইসলাম, নির্বাহী সদস্য মো. ছালিক আহমদ, নির্বাহী সদস্য শৈলেন সূত্রধর।
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক ললিত মোহন দাশ, বাউল শিল্পী লালশাহ, পাথারিয়া ইউনিয়ন কমিটির সাধারণ স¤পাদক মো. মনসুর আহমদ, সদস্য সালমান আহমদ, আব্দুস শহীদ, পল্লী চিকিৎসক রুয়েল আহমেদ, কৃষক আব্দুল মজিদ প্রমুখ।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, কৃষকবান্ধব সরকার হাওর অঞ্চলের মানুষের একমাত্র অবলম্বন বোরা ফসলকে সুরক্ষার জন্য বিপুল পরিমাণ অর্থ বরাদ্দ দিয়েছে। কিন্তু অদ্যাবধি সব হাওরে বাঁধের কাজ শুরু না হওয়ায় হতাশাগ্রস্ত কৃষকরা। বিগত বছরের তুলনায় এ বছর বরাদ্দের পরিমাণ দ্বিগুণের চেয়ে বেশি থাকা সত্ত্বেও এবং ১৫ ডিসেম্বর বাধের কাজ শুরু করার কথা থাকলেও এখনো দৃশ্যমান কোনো কাজ দেখা যাচ্ছে না।
দিরাই :
হাওর রক্ষা বাঁধের কাজ সরকারের বেধে দেওয়া সময়ে শুরু না হওয়ার প্রতিবাদে এবং যথাসময়ে বাঁধের কাজ শেষ করার দাবিতে দিরাইয়ে মানববন্ধন হয়েছে। সোমবার বিকেলে দিরাই পৌরশহরের থানা পয়েন্টের গোল চত্বরে হাওর বাঁচাও আন্দোলন দিরাই উপজেলা কমিটি মানববন্ধনের আয়োজন করে। উপজেলা কমিটির যুগ্ম সাধারণ স¤পাদক অধ্যাপক বদিউজ্জামান সরদারের সভাপতিত্বে ও হাওর বাঁচাও আন্দোলন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নুরুল আজিজ চৌধুরীর পরিচালনায় মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন জেলা কমিটির সাংগঠনিক স¤পাদক সামছুল ইসলাম সরদার খেজুর, উপজেলা কমিটির সাংগঠনিক স¤পাদক প্রভাষক মোস্তাক আহমেদ, নুরুল হক, দিরাই প্রেসক্লাবের আহ্বায়ক শোয়েব হাসান, কালেরকণ্ঠ প্রতিনিধি আবু হানিফ চৌধুরী, দিরাই একাত্তর টিভির পরিচালক জাকারিয়া হোসেনসহ বিভিন্ন শ্রেনি পেশার জনগণ। বক্তারা হাওর রক্ষা বাঁধের কাজ যথাসময়ে শুরু না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন। বাঁধের কাজ সরকারের বেধে দেওয়া সময়ে শেষ করার দাবি জানিয়ে বলেন, হাওর রক্ষা বাঁধের কাজে কোনো গাফলতি সহ্য করা হবে না।

 

 

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com