1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:২৪ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

নষ্ট হচ্ছে জব্দ করা যানবাহন

  • আপডেট সময় বুধবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২২

পীর জুবায়ের ::
মামলা সংক্রান্ত জটিলতায় দীর্ঘদিন ধরে পড়ে আছে জব্দকৃত মোটরসাইকেল, প্রাইভেট কার, সিএনজিচালিত অটোরিকসাসহ অন্যান্য যানবাহন। খোলা আকাশের নিচে ঝড়-বৃষ্টি-রোদে নষ্ট হচ্ছে কয়েক লাখ লাখ মূল্যের এসব যান। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এসব যানবাহন সুষ্ঠুভাবে সংরক্ষণ করা প্রয়োজন এবং দ্রুত আইনি প্রক্রিয়া শেষে নিলামে বিক্রি করলে সরকার এসব থেকে রাজস্ব পেতে পারে।
জানা গেছে, নিবন্ধনহীন কিংবা অপরাধ সংশ্লিষ্টতা, মাদক মামলার আলামত হিসেবে জব্দকৃত যানবাহনগুলো সুনামগঞ্জ আদালত প্রাঙ্গণে পড়ে আছে দীর্ঘদিন ধরে। এসবের মধ্যে মোটরসাইকেলের সংখ্যাই বেশি। এছাড়া প্রাইভেট কার, সিএনজিচালিত অটোরিকসাও রয়েছে। এসব যানবাহন যথাযথ রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে নষ্ট হচ্ছে। সাত-আট বছর আগে আটক করা গাড়িও আছে এখানে, যার বেশির ভাগই ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সব মিলিয়ে সেখানে প্রায় শতাধিক মোটরসাইকেল ও প্রাইভেট কার পড়ে রয়েছে। এসব যানবাহন মামলা জটিলতায় দীর্ঘদিন পড়ে থেকে ধীরে ধীরে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। জব্দকৃত এসব যানবাহন ছাউনির নিচে রেখে সংরক্ষণ করে স¤পদগুলো দ্রুত রক্ষার দাবি উঠেছে।
শহরের আরপিননগর এলাকার বাসিন্দা বাবুল মিয়া কিছুদিন আগে অকশনে থাকা অ্যাপাচি আরটিআর ১৫০ সিসি মোটরসাইকেল কোর্ট থেকে নিলামে ক্রয় করেছেন। মেরামত করতে নিয়ে গেলে দেখেন মোটরসাইকেলের গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রাংশ নেই। তিনি জানান, ২০১৯ সালে জব্দকৃত এই মোটর সাইকেল মেরামত করতে যত টাকা খরচ হয়েছে তা থেকে আমি এই ব্র্যান্ডের একই মোটরসাইকেল নতুন আরেকটি ক্রয় করতে পারতাম। জব্দকৃত মোটরসাইকেলের যন্ত্রাংশ কি করে উধাও হয় তা তদন্ত করা উচিত। পাশাপাশি জব্দকৃত গাড়িগুলো সংরক্ষণের জন্য যেন আলাদা একটি শেড নির্মাণ করলে ভালো হয়।
সরেজমিনে দেখা যায়, আদালত প্রাঙ্গণে খোলা আকাশের নিচে রাখা রয়েছে জব্দকৃত মোটরসাইকেল ও প্রাইভেট কার। সংরক্ষণের কোনো ব্যবস্থা নেই। ফলে এসব মোটরসাইকেল (মামলার আলামত) খোলা স্থানে পরিত্যক্ত পড়ে রয়েছে। রোদ-বৃষ্টি আর ধুলার আস্তরণ দেখে বোঝার উপায় নেই কোনটা সচল আর কোনটা অচল।
শহরের জামাইপাড়া এলাকার মোটর সাইকেল মেকানিক খসরু জানান, আমাদের কাছে যখন নিলামে ক্রয়কৃত অকশনের মোটরসাইকেল মেরামতের জন্য নিয়ে আসা হয় তখন দেখা যায় ভালো ব্র্যান্ডের মোটর সাইকেলগুলোর অনেক যন্ত্রাংশ নেই এবং অবশিষ্ট যা থাকে তার বেশিরভাগই অকেজো।
অ্যাডভোকেট নূর হোসেন বলেন, মামলার আলামত হিসেবে জব্দকৃত গাড়িগুলো পরিত্যক্ত স্থানে ফেলে না রেখে একটি জায়গায় শেড নির্মাণ করে রাখলে ভালো থাকবে।
এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে কোর্ট ইন্সপেক্টর বুরহান উদ্দিনের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com