1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২, ০৯:০৮ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

মামলা দায়ের : ইতালি পাঠানোর কথা বলে লিবিয়া নিয়ে কলেজছাত্রকে হত্যার অভিযোগ

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৪ অক্টোবর, ২০২২

সুনামকণ্ঠ ডেস্ক ::
জগন্নাথপুরের এক কলেজছাত্রকে ইতালি পাঠানোর কথা বলে লিবিয়া নিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই ছাত্রের নাম একওয়ান ইসলাম (১৮)। তিনি উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের শ্রীধরপাশা গ্রামের তরিকুল ইসলামের ছেলে। ছেলেকে হত্যার অভিযোগ এনে লিবিয়া বসবাসরত দালাল আবুল হোসেনকে প্রধান আসামি করে চারজনের বিরুদ্ধে সোমবার জগন্নাথপুর থানায় হত্যা মামলা করেছেন একওয়ান ইসলামের বাবা তরিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, জায়গাজমি বিক্রি করে ১৯ লাখ টাকা দিয়েও ছেলেকে বাঁচাতে পারলাম না। এখন শুধু আমার ছেলের হত্যাকারীদের বিচার চাই। তাই মামলা করেছি। মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেন জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান। তিনি বলেন, মামলার চার আসামির মধ্যে দুজন প্রবাসে, বাকি দুজন পলাতক। আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত। মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, গত বছরের ১৩ এপ্রিল একই গ্রামের লিবিয়ায় অবস্থানরত দালাল আলী হোসেনের মাধ্যমে সাত লাখ টাকায় ইতালি পৌঁছে দেওয়ার চুক্তিতে লিবিয়া যান একওয়ান। সেখানে পৌঁছার পর দালাল চক্র তাঁকে আটক করে অমানবিক নির্যাতন চালায় এবং মাফিয়ার হাত থেকে প্রাণরক্ষার জন্য ২৩ এপ্রিল আরও সাত লাখ টাকা পাঠায় একওয়ানের পরিবার। এক বছর পর চলতি বছরের ১৫ জুন আবার পাঁচ লাখ টাকা দিয়ে একওয়ানকে ইতালি পাঠানোর চুক্তি হয় দালাল আলী হোসেন ও তাঁর পরিবারের সঙ্গে। এর দুই দিন পর একওয়ানের বাবা দালালদের তাঁর ছেলের ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করলে তাঁরা জানান, একওয়ান ১৬ জুন মারা গেছেন। তিন মাস পর গত বৃহ¯পতিবার লিবিয়া ও বাংলাদেশ দূতাবাসের সহযোগিতায় একওয়ানের লাশ দেশে আসে। পরদিন শুক্রবার বিকেলে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ময়নাতদন্তের পর গ্রামের বাড়িতে একওয়ানের দাফন স¤পন্ন হয়।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com