1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ০৯:৫১ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

ক্লাবঘরে চলছে সুরমা ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম!

  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০২২

আশিস রহমান ::
২০১১ সালে বৃহত্তর লক্ষ্মীপুর ইউনিয়ন পরিষদ থেকে পৃথক হয়ে ৯নং সুরমা ইউনিয়ন পরিষদ নামে নতুন ইউনিয়ন পরিষদ গঠিত হয়। প্রতিষ্ঠার প্রায় এক দশক পেরিয়ে গেলেও দোয়ারাবাজার উপজেলার সুরমা ইউনিয়ন পরিষদের এখন পর্যন্ত কোনো নিজস্ব ইউপি ভবন নির্মিত হয়নি! কখনো ভাড়াটে আবাসিক বাসভবন আবার কখনো বাজারের ক্লাবঘরে চলেছে ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম। এতে সেবা নিতে আসা সাধারণ মানুষের ভোগান্তির শেষ নেই।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, টেংরাটিলার বাজারের দক্ষিণ-পূর্ব পাশে জীর্ণ টিনসেডের ভবনে চলছে সুরমা ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম। ভবনের তিনটি কক্ষের একটিতে চেয়ারম্যান ও অপরটিতে সচিব বসেন। এই দুইটি থেকে অপেক্ষাকৃত একটু বড় কক্ষে গ্রাম আদালতের এজলাস বসে। ইউপি চেয়ারম্যান ও সচিবের কক্ষে চেয়ার নিয়ে ৮-১০ জন বসলেই সামান্য হাঁটাচলার জায়গা টুকুও আর অবশিষ্ট থাকেনা।
স্থানীয়রা জানান, ২০১১ সালে ইউনিয়ন প্রতিষ্ঠার পর প্রথম পাঁচ বছর গিরিশনগর গ্রামের একটি আবাসিক বাড়িতে ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম চালানো হয়েছে। পরবর্তীতে ২০১৬ সাল থেকে এখন পর্যন্ত টেংরাটিলা বাজারের একটি ক্লাব ঘরে চলছে ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম। ঘরের পরিধি ছোট্ট হওয়ায় এখানে ঘরোয়াভাবে কোনো বৈঠক করা যায়না। স্থান সংকুলানের কারণে ইউনিয়ন পরিষদে সেবা নিতে আশা বেশিরভাগ মানুষকেই বাইরে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করতে হয় ঘণ্টার পর ঘণ্টা। করোনাকালেও প্রতিদিন এখানে সেবা নিতে আসা সাধারণ মানুষের জটলা লেগেই থাকে। ইউনিয়ন পরিষদে কোনো সভা/সেমিনার করতে হলে হলরুমের বিকল্প হিসেবে খোলা আকাশের নিচে রোদের মধ্যে চাদোয়া টানিয়ে করতে হয়। বর্ষাকালে তাও করা সম্ভব হয়না।
জানা যায়, সুরমা ইউপি ভবনের স্থান নির্ধারণের জন্য ২০১৬ সালে দোয়ারাবাজার উপজেলা পরিষদে স্থানীয় সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিকের উপস্থিতিতে একটি গণশুনানিও হয়। স্থান নির্ধারণ নিয়ে মহব্বতপুর, গিরিশনগর, শরীফপুর, টেংরাটিলা বাজার ও আলীপুর হাইস্কুলের পার্শ্ববর্তী এলাকার প্রস্তাবনা আসে। পরবর্তীতে গিরিশনগরে নাকি টেংরাটিলা বাজারে ইউপি ভবন হবে এই পর্যন্ত এসে সিদ্ধান্তহীন অবস্থায় গণশুনানি শেষ হয়।
সুরমা ইউনিয়ন পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সাবেক চেয়ারম্যান শাহজাহান মাস্টার জানান, তিনি ক্ষমতায় থাকাকালে গিরিশনগর গ্রামের মহব্বতপুর-দোয়ারাবাজার সড়কের পাশে ইউনিয়ন পরিষদ ভবন করার জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে একটি প্রস্তাবনা পাঠান। সেখানে ভবনের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক জমিও রেজিস্ট্রি করা হয়। কিন্তু পরবর্তী চেয়ারম্যান খন্দকার মামুনুর রশীদ এই প্রস্তাবনার বিরুদ্ধে আপত্তি জানিয়ে টেংরাটিলা বাজারের দক্ষিণ পাশে ইউপি ভবনের স্থাপনের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে পাল্টা আরেকটি প্রস্তাবনা পাঠান। এরপর থেকে এটা এভাবেই আছে।
গিরিশনগর গ্রামের বাসিন্দা আওয়ামী লীগ নেতা এখলাস ফরাজী বলেন, মুহিবুর রহমান মানিক এমপি মহোদয় এবার ইউপি নির্বাচনে আমাদেরকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী করলে তিনি ইউপি ভবন নির্মাণ করে দেবেন। আমরা আওয়ামী লীগের প্রার্থী আব্দুল হালিম বীরপ্রতীককে নৌকা প্রতীকে বিপুলভোটে বিজয়ী করেছি। এখন আমরা এমপি সাহেবের দেওয়া প্রতিশ্রুতির দ্রুত বাস্তবায়ন চাই। নতুন ইউপি চেয়ারম্যান ক্ষমতায় থাকাবস্থায় আগামী একবছরের মধ্যে আমাদেরকে ইউপি ভবন নির্মাণ করে দেওয়া হোক। সেটা টেংরাটিলা বাজারে অথবা গিরিশনগর যেখানেই হোক স্থান আমার কোনো আপত্তি নাই।
এ ব্যাপারে সুরমা ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হালিম বীরপ্রতীক বলেন, সুরমা ইউনিয়ন পরিষদ ভবন ইউনিয়নের কেন্দ্রস্থল হিসেবে টেংরাটিলাতেই হবে। তবে কোনদিকে হবে এখনো পর্যন্ত চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। এ বিষয়ে আমাদের সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক ভাইয়ের সাথে আলাপ হয়েছে। তিনিই এবিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেবেন।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com