1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ০৬:৩৩ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

সড়কে অবৈধ হ্যান্ডট্রলি : বাড়ছে দুর্ঘটনা

  • আপডেট সময় শুক্রবার, ৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২২

মুহাম্মদ হাবীবুল্লাহ হেলালী ::
দোয়ারাবাজার উপজেলার সর্বত্র বেপরোয়া সেলু মেশিনচালিত চার চাক্কার ট্রলি। অবৈধ হ্যান্ডট্রলির অদক্ষ ও অপ্রাপ্ত বয়স্ক চালকের কারণে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। বেপরোয়া এসব হ্যান্ডট্রলি বন্ধে নেই কোন উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে না।
খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, গত একমাসে বেপরোয়া ওইসব ট্রলি চাপায় শিশুসহ দুইজনের প্রাণহানি এবং বেশ কয়েকজন গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। অবৈধ ওইসব ট্রলি চলাচল বন্ধে তিন বছর পূর্বে স্থানীয় প্রশাসন রেজুলেশন করলেও এরপরে আর কোনও কার্যকর পদক্ষেপ লক্ষ করা যায়নি। সম্প্রতি উপজেলার সবক’টি সড়কে ট্রলি চলাচল ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রায় প্রতিদিনই ঘটছে দুর্ঘটনা।
সম্প্রতি দোয়ারাবাজার উপজেলার নরসিংপুর ইউনিয়নের শারফিন নগর গ্রামের আফিজ আলীর শিশুপুত্র জাহাঙ্গীর (১২) হাদাটিলায় বেপরোয়া গতিতে চলা অবৈধ ট্রলি চাপায় নিহত হয়। এছাড়া এক সপ্তাহ আগে উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের রসরাই মোড়ে ট্রলি চাপায় নিহত হন মাটিকাটার শ্রমিক চিনু মিয়া (৩৫)। তিনি একই ইউনিয়নের এরুয়াখাই তিলোরা কান্দি গ্রামের বাসিন্দা।
একইভাবে উপজেলার দোহালিয়া ইউনিয়নের বিয়ানিবাজার এলাকায় ট্রলি চাপায় রাসেল মিয়া (২০) নামের এক মোটরসাইকেল চালক নিহত হয়। নিহত রাসেল মিয়া উপজেলার পান্ডারগাঁও ইউনিয়নের পান্ডারগাঁও গ্রামের আলী হায়দারের ছেলে।
চলতি সপ্তাহে উপজেলার বাঁশতলা-হকনগরে মৌলা নদীর স্লুইসগেটের নিকটে বেপরোয়া গতিতে আসা পাথর বোঝাই ট্রলি চাপায় পড়েন দুইজন সংবাদকর্মী। কোনরকম প্রাণে রক্ষা পেলেও দোয়ারাবাজার প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক স¤পাদক এমএ মোতালিব ভুইয়ার মোটরসাইকেলটি ট্রলির চাকার নিচে চলে যায়। এর তিনদিন পরে ছাতক-সুনামগঞ্জ সড়কে উপজেলার দোহালিয়া ইউনিয়নের কাঞ্চনপুর গ্রামের নিকটে ট্রলির ধাক্কায় দুর্ঘটনা ঘটে। এতে একটি সিএনজির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতিসহ অন্তত তিনজন গুরুতর আহত হয়েছেন।
স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, দানবের মতো ধেয়ে আসা এসব গাড়ির গতি অত্যন্ত বিপজ্জনক। এর মাঝে চলাচলরত অবস্থায় চালকের সিগারেট টানা এবং মোবাইল হাতে কথোপকথনে এগিয়ে যাওয়ার খামখেয়ালিপনায় যেকোন সময় ঘটে যেতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। মাঝে মধ্যে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রলি পার্শ্ববর্তী বাড়ি কিংবা ক্ষেতে নেমে পড়ার ঘটনাও ঘটছে।
দোহালিয়া ইউনিয়নের রাজনপুর গ্রামের নুর হোসেন আবদুল্লাহ বলেন, অনিয়মতান্ত্রিকভাবে অদক্ষরা এসব ট্রলি চালাচ্ছে। এসব ট্রলি চলাচল বন্ধ করা জরুরি।
স্থানীয় সংবাদকর্মী এমএ মোতালিব ভুইয়া বলেন, ট্রলি কারা চালাচ্ছে, তার এতো বড় একটি যানবাহন চালানোর দক্ষতা আছে কি-না, এসব যাচাই হয় বলে জানা নেই আমার। সম্প্রতি আমি নিজেও ট্রলি চাপার শিকার হয়েছি। শারীরিকভাবে মারাত্মক আহত হওয়াসহ আমার মোটরসাইকেলটি স¤পূর্ণ গাড়ির নিচে চলে যায়। মোটরসাইকেলের ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে।
উপজেলার সদর ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য আবুল কালাম বলেন, যেসব ড্রাইভার ট্রলি চালায় এদের বয়স কম। এছাড়া এই ট্রলি স¤পূর্ণ অবৈধ। কয়দিন আগে উপজেলার নরসিংপুর ও রসরাই গ্রামে দুইজনের প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে।
উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য আহসান হাবিব বলেন, এই গাড়ি যারা চালাচ্ছে তারা অদক্ষ। কেউ কিছু বলতে চাইলে তারা খারাপ আচরণ করছে মানুষের সাথে। ধান কাটা মাড়াইয়ের হাওরে ট্রলি কৃষকদের উপকারে আসে। কিন্তু মাঝে মধ্যে বাজারে উপজেলা সদরের অলিগলিতে বেপরোয়া ট্রলি চালানোয় জননিরাপত্তা হুমকির মধ্যে পড়ছে।
বাংলাবাজার ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আবুল হোছাইন বলেন, আমরা দীর্ঘদিন ধরেই দেখে আসছি সীমান্ত এলাকা থেকে অবৈধ গাড়িগুলো পাথর পরিবহন করে আসছে। সীমান্তের প্রভাবশালী ব্যক্তি ও তাদের পোষা চোরাই সিন্ডিকেটের ছত্রছায়ায় হকনগর শহীদমিনার থেকে চোরাই পাথর পরিবহন করছে। এছাড়া যত্রতত্র কমবয়সী ছেলেরা ট্রলি চালাচ্ছে। যে কয়টা এক্সিডেন্ট ঘটছে। আমার পরিষদের পক্ষ থেকে শীঘ্রই ওইসব গাড়ি বন্ধের ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেবাংশু কুমার সিংহ বলেন, অদক্ষ চালক ও অপ্রাপ্ত বয়ষ্কদের ব্যবহার করা হচ্ছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হবে এবং হ্যান্ড ট্রলির ব্যাপারে সড়ক আইন বাস্তবায়নের জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com