1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৩৮ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

‘বৈধ’ আহ্বায়ক কে?

  • আপডেট সময় সোমবার, ১১ অক্টোবর, ২০২১

আশিস রহমান ::
দোয়ারাবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের ‘বৈধ’ আহ্বায়ক আসলে কে – তা নিয়ে বিতর্ক দীর্ঘদিনের। সাবেক ছাত্রনেতা ফরিদ আহমেদ তারেক ও উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইদ্রিস আলী বীরপ্রতীক দুজনেই উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক দাবিদার। উভয়েই দীর্ঘদিন ধরে তাদের কমিটিকে বৈধ কমিটি বলে দাবি করছেন। পৃথকভাবে দলীয় কর্মসূচি পালন করতেও দেখা গেছে এই দুই আহ্বায়কের দুই কমিটির আলাদা ব্যানারে। বিষয়টি আওয়ামী লীগের হাই কমান্ডের হস্তক্ষেপে পুরোপুরি খোলাসা না হওয়ায় আহবায়ক নিয়ে পুরোনো বিতর্ক এখনোব্দি রয়েগেছে।
উপজেলার তৃণমূল পর্যায়ের নেতা কর্মীরা জানান, ভেতরগত বিভাজনের কারণে উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠার পর থেকে এখনো পর্যন্ত সাংগঠনিক ভাবে ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি। হয়নি পূর্ণাঙ্গ কোনো কমিটি।
দোয়ারাবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক দাবিদার ফরিদ আহমদ তারেক বলেন, আমি দোয়ারাবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের বৈধ আহ্বায়ক। ২০১৫ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি আমাকে আহ্বায়ক করে দোয়ারাবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়। তৎকালীন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ স¤পাদক নূরুল হুদা মুকুট স্বাক্ষরিত আহ্বায়ক কমিটির তালিকা আমার কাছে সংরক্ষিত আছে। আমার কমিটির মাধ্যমে সকল ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে কমিটি করা হয়েছে। দলীয় কর্মসূচিও পালন করা হচ্ছে। তাছাড়া কেন্দ্রীয় বিভিন্ন নির্দেশনা ও চিঠি আমার কমিটির কাছেই আসে। এবার ইউপি নির্বাচনের প্রার্থীদের তালিকাও আমার কমিটির মাধ্যমে জেলা কমিটির কাছে জমা দেওয়া হয়েছে।
দোয়ারাবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক দাবিদার ও উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইদ্রিস আলী বীরপ্রতীক বলেন, ১৯৯৭ সাথে আমাকে আহ্বায়ক করে দোয়ারাবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটি হয়। পরবর্তীতে ২০০৬ সালে আমাকে আহ্বায়ক ও মইনুল ইসলাম মুনিমকে যুগ্ম আহ্বায়ক করে পুনরায় আহ্বায়ক কমিটি দেওয়া হয় জেলা থেকে। তৎকালীন সভাপতি আব্দুজ জহুর ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ স¤পাদক নূরুল হুদা মুকুট স্বাক্ষরিত ওই কমিটির তালিকা এখনো আমার কাছে সংরক্ষিত আছে। এরমধ্যে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দোয়ারাবাজারসহ অন্যান্য উপজেলার নেতৃবৃন্দের সাথে গণভবনে মিলিত হন। সেখান আমার কমিটিকেই নেত্রী বহাল রাখেন। এরপর আর কোনো কমিটি হয়নি। আমার কমিটির মাধ্যমেই উপজেলায় সকল দলীয় কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে। এবার ইউপি নির্বাচনের মনোয়ন প্রত্যাশীদের তালিকাও আমার কমিটির মাধ্যমে জেলায় জমা দেওয়া হয়েছে।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান বলেন, দোয়ারাবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান আহবায়ক মুক্তিযোদ্ধা ইদ্রিস আলী বীরপ্রতীক।
অন্যদিকে জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নূরুল হুদা মুকুট বলেন, যখন আমি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ স¤পাদকের দায়িত্বে তখন আমি ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মিলে সম্মেলনের মাধ্যমে ছাতক এবং দোয়ারাবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটি দেই। ওইসময় ফরিদ আহমদ তারেককে দোয়ারাবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক করা হয়। এরপর থেকে এখনোব্দি জেলা কমিটি কর্তৃক নতুন কোনো কমিটি করা হয়নি। নতুন কমিটি করার আগ পর্যন্ত ফরিদ আহমেদ তারেকই দোয়ারাবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের বৈধ আহ্বায়ক।
জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ স¤পাদক ব্যারিস্টার এনামুল কবির ইমন বলেন, ইদ্রিস আলী বীরপ্রতীক দোয়ারাবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের বৈধ আহ্বায়ক। এটা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া কমিটি।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com