1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৩৬ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

বাগলী-বারেকটিলা : বেহাল সড়ক, দুর্ভোগে ৫ লক্ষাধিক মানুষ

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৫ অক্টোবর, ২০২১

বিশেষ প্রতিনিধি ::
‘বর্ষায় নাও আর হেমন্তে পাও’ এই অবস্থায় চলছে হাওরবেষ্টিত তাহিরপুর উপজেলাবাসীর যাতায়াত। এ উপজেলার উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের সীমান্তের বাগলী শুল্ক বন্দর থেকে উত্তর বড়দল ইউনিয়নের বারেকটিলা পর্যন্ত প্রায় ১৫কিলেমিটার চলাচলের সড়কের ১০ কিলোমিটারেরই বেহাল অবস্থা বিরাজ করছে। ফলে নিয়মিত দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন উপজেলার ৫ লক্ষাধিক মানুষ। পাশাপাশি ঘটছে দুর্ঘটনাও। বারবার সড়কটি মেরামতের দাবি জানালেও কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না। এ নিয়ে জনমনে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
৭টি ইউনিয়নের সাথে তাহিরপুর উপজেলায় সড়কপথের যোগাযোগ ব্যবস্থা নেই। উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের তিনটি গুরুত্বপূর্ণ কয়লা, চুনাপাথর আমদানি শুল্ক বন্দর (বড়ছড়া, চারাগাঁও ও বাগলী), পর্যটন স্পট টাঙ্গুয়ার হাওর, শহীদ সিরাজলেক, বারেকটিলা, শিমুল বাগানে পর্যটক ও ব্যবসায়ীদের সুনামগঞ্জ জেলা, তাহিরপুর উপজলার সাথে চলাচল করাসহ এই সড়কটি দিয়ে পার্শ্ববর্তী মধ্যনগর উপজেলা, ধর্মপাশা উপজেলা দিয়ে কমলাকান্দ, নেত্রকোণা, ময়মনসিংহ, ঢাকায় যোগাযোগ রক্ষা করা হয়। আর হাজার হাজার মানুষের চলাচলের একমাত্র মাধ্যম এই সড়কটিই। এই সড়কের বাগলী-লালঘাট দুই কিলোমিটার মাটির সড়কটি, শহীদ সিরাজলেকের সামনে থেকে ট্যাকেরঘাট শহীদ মিনার হয়ে লাকমা বাজারের সম্মুখ সড়ক পর্যন্ত পাকা না থাকায় বৃষ্টিতে কাদা এবং গর্তের সৃষ্ট হয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সম্প্রতি পাহাড়ি ঢলে ভাঙনের কারণে চাঁনপুর, রজনী লাইন, লালঘাট, বাঁশতলা, রঙ্গাচরা পর্যন্ত সড়কটি খালে পরিণত হয়েছে। সড়কের পাকা অংশ বেশির ভাগ পিচ উঠে ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। সড়কের বেহাল দশার কারণে অসুস্থ রোগীদের প্রতিনিয়ত বিপাকে পড়তে হচ্ছে।
চানঁপুর গ্রামের বাসিন্দা ও ব্যবসায়ী শফিকুল ইসলাম জানান, পাহাড়ি ঢলে চাঁনপুর গ্রামের সড়কটি এখন খালে পরিণত হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে সড়কটির এমন বেহাল অবস্থার কারণে যাওয়া-আসা করতে গিয়ে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন মানুষজন।
এই সড়ক দিয়ে ধর্মপাশা হয়ে ময়মনসিংহ যাতায়াত করেন শিক্ষক সাজিদুর রহমান। তিনি বলেন, এই সড়ক দিয়ে কম সময়ে বাড়িতে যেতে পারি। সড়কটির বেহাল অবস্থার কারণে আমাদের সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
তাহিরপুর এলজিইডি উপজেলা প্রকৌশলী মো. ইকবাল কবির জানান, উপজেলা সীমান্তের সড়কে ছোট খাটো ভাঙ্গন আর গর্তগুলো সংস্কারের জন্য প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও ট্যাকেরঘাট-মহেষখলা ২৮ কিলোমিটার সড়কটি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী বিশেষ
প্রকল্পের আওতায় নেয়া হয়েছে। এ সীমান্ত সড়কটি এখন একনেকে অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। অনুমোদন হলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।
তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রায়হান কবির জানান, গুরুত্বপূর্ণ সড়কটি মেরামত করা হলে চলাচলকারী মানুষজন উপকৃত হবে। সড়কটির বিষয়ে দ্রুই প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com