1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৪১ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

ঘোষণাতেই আটকে আছে হকনগর পর্যটন এলাকা

  • আপডেট সময় সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১

আশিস রহমান ::
ভারতের মেঘালয় রাজ্যের চেরাপুঞ্জির খাসিয়া পাহাড়ে বেষ্টিত তিনদিকের মাঝখানে সরু এক ফালি বাংলাদেশ। চারপাশে সবুজের নয়নাভিরাম হাতছানি ভ্রমণ পিপাসুদের নজর কাড়ে। কাঁটাতারের ওপারের পাখপাখালির কিচিরমিচির শব্দ এপারের মানুষের কানে এসেও তাক লাগিয়ে দেয়। এরমাঝে পাহাড়ি মৌলা নদীর স্বচ্ছ জলের স্ফটিক ধারা স্লুইস গেইট দিয়ে প্রবাহিত হওয়ার দৃশ্য স্নান করার বাসনা জাগায়। এমন অপরূপ সৌন্দর্যের দেখা মেলে দোয়ারাবাজার উপজেলার বাংলাবাজার ইউনিয়নের সীমান্তের জিরো পয়েন্টে হকনগর (বাঁশতলা) এলাকায়। শুধু প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের জন্যই নয়, এলাকাটির ঐতিহাসিক বিশেষত্বও রয়েছে। ২০১৮ সালের ৩০ অক্টোবর বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী একেএম শাহজাহান কামাল এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক প্রস্তাবিত হক নগর পর্যটন এলাকার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এসময় এটিকে পর্যটন এলাকা হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হয়। কিন্তু এর প্রায় তিন বছর পেরিয়ে গেলেও শুধুমাত্র ঘোষণাতেই আটকে আছে হকনগর পর্যটন এলাকা। এখনো পর্যন্ত এখানে পর্যটন শিল্প বিকাশের কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। উপজেলা সদর থেকে পর্যটন এলাকায় যাতায়াত ব্যবস্থা অত্যন্ত নাজুক। নেই কোনো হোটেল মোটেল কিংবা ভালোমানের রেস্টুরেন্ট। থাকা-খাওয়ার সুযোগ-সুবিধা না থাকায় দূর দূরান্ত থেকে পর্যটকরা এখানে ঘুরতে এসে হতাশ হয়ে ফিরছেন।
স্থানীয় বাসিন্দা ও মুক্তিযোদ্ধাদের কাছ থেকে জানা যায়, মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত উপত্যকা হকনগর। এককালে এটি বাঁশতলা নামে পরিচিত ছিল। ১৯৭১ সালে শেখ মজিবুর রহমানের ডাকে দেশব্যাপী অসহযোগ আন্দোলন শুরু হলে মুক্তিযোদ্ধাদের সংগঠিত করার লক্ষ্যে ছাতকের এম.এন.এ আব্দুল হক বিভিন্ন এলাকার নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিদের নিয়ে বাঁশতলা এলাকায় সমবেত হন। মুক্তিযুদ্ধকালীন ৫ নম্বর সেক্টরের অধীনে চেলা (বাঁশতলা) সাব সেক্টরের সদর দপ্তর ছিল এটি।
বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর ও পাকিস্তান জাতীয় পরিষদের সদস্য এম.এন.এ হক ছিলেন ৫ নম্বর সেক্টরের বেসামরিক উপদেষ্টা। মুক্তিযুদ্ধে এলাকায় তাঁর বিশেষ অবদানের জন্য স্বাধীনতা পরবর্তীতে তাঁর নামানুসারে বাঁশতলা এলাকার নামকরণ করা হয় ‘হকনগর’। মরহুম আব্দুল হক-এর নামানুসারে হকনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, হকনগর গ্রাম ও হকনগর স্মৃতিসৌধসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নামকরণ করা হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন বাঁশতলা ও আশপাশের এলাকায় যারা শহীদ হয়েছেন তাদেরকে এখানেই সমাহিত করা হয়। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর সামছু মিয়া চৌধুরী এমপি’র উদ্যোগে এখানকার শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের কবর পাকাকরণ করা হয়। পরবর্তীতে এ সকল শহীদের স্মৃতি অ¤¬ান করে রাখার জন্য মুক্তিযুদ্ধকালী চেলা (বাঁশতলা) সাব-সেক্টর কমান্ডার এ.এস.হেলাল উদ্দিন এখানে তার নিজস্ব অর্থায়নে দৃষ্টিনন্দন হকনগর শহীদ স্মৃতিসৌধ নির্মাণ করেন। এরপর থেকেই এটি একটি পর্যটন এলাকা হিসেবে ব্যাপক পরিচিত লাভ করে। সম্প্রতি হক নগর এলাকায় সমাহিত শহীদদের কবর জাতীয় পতাকার আদলে লাল সবুজে টাইলস করে দৃষ্টিনন্দন করা হয়েছে। প্রতিদিনই দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে পর্যটক ও দর্শনার্থীরা এখানে ছুটে আসছেন।
বাংলাবাজার ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান জসীম আহমেদ চৌধুরী রানা বলেন, এখানে পর্যটন শিল্পের বিকাশে আমি আমার পরিষদের মাধ্যমে এলজিএসপি প্রকল্পের আওতায় ৫ লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়ে প্রস্তাবিত পর্যটন এলাকায় বৃক্ষরোপণ করেছি। অপরদিকে আমাদের মুহিবুর রহমান মানিক এমপি মহোদয়ের প্রচেষ্টায় প্রায় দুই কোটি টাকা ব্যয়ে দুইটি দৃষ্টিনন্দন স্মৃতিসৌধ নির্মাণের কাজ চলমান রয়েছে। ২০১৮ সালে হকনগরকে পর্যটন কেন্দ্র ঘোষণা করা হয়েছে। এরপর থেকে আজোবধি পর্যটন শিল্পের বিকাশে কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। প্রস্তাবিত পর্যটন কেন্দ্র এলাকাটি পর্যটন মন্ত্রণালয়ের আওতায় নিয়ে কাজে লাগানো উচিত। এতে একদিকে পর্যটকদের আগমন বাড়বে অন্যদিকে সরকার রাজস্ব পাবে, কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে।
দোয়ারাবাজার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) দেবাংশু কুমার সিংহ বলেন, হকনগর পর্যটন কেন্দ্রের বিকাশে প্রধান প্রতিবন্ধকতা হচ্ছে যোগাযোগ ব্যবস্থা। তবে আমরা এটি এখন কাটিয়ে উঠতে শুরু করেছি। আরও কিছুদিন সময় লাগবে। তাছাড়া এখানে পর্যটনের বিকাশে এলজিইডি ও গণপূর্ত বিভাগের আওতায় দুই দৃষ্টিনন্দন স্মৃতিসৌধ নির্মাণের কাজ চলমান রয়েছে। হক নগর প্রস্তাবিত পর্যটন এলাকা ও পার্শ্ববর্তী জুমগাঁও গারো পল্লী যাতে পর্যটন শিল্প এলাকায় পরিণত করা যায় সেজন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com