1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৩৪ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

তাহিরপুর মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স : নির্মাণের পরও হস্তান্তর হচ্ছে না ভবন

  • আপডেট সময় বুধবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১

বিশেষ প্রতিনিধি ::
তাহিরপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ শেষ হলেও এখনো তা হস্তান্তর হয়নি। ফলে আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত এ ভবন ব্যবহার করতে পারছেন না জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানেরা। এতে স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধারা অসন্তোষ প্রকাশ করে দ্রুত হস্তান্তর প্রক্রিয়া সম্পন্নের দাবি জানিয়েছেন।
সরেজমিনে দেখা যায়, তাহিরপুর মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনটির নির্মাণকাজ শেষ হয়ে গেছে। ভবনের খুঁটি-নাটি কিছু ত্রুটি-বিচ্যুতি ঠিক করছে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান।
স্থানীয়রা জানান, দিনের পর দিন কাজ বন্ধ থাকার পর ভবনটি অবশেষে নির্মাণ হয়েছে। এখন হস্তান্তর এবং উদ্বোধন না করে আবারও ফেলে রাখাটা খুবই দুঃখজনক।
স্থানীয় প্রকৌশল অধিদপ্তর সূত্রে জানাযায়, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) বাস্তবায়নে ২০১৫-১৬অর্থ বছরে এক বছরের মধ্যে ১ কোটি ৯০ লাখ ৭ হাজার ১১৪ টাকার চুক্তি মূল্যে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণের দায়িত্ব পায় তানভির এটি (জেভি) আম্বরখানা। পরে এ কাজ ২০১৬ সালের ৯ জুলাই শুরু হয়। এ কাজের মেয়াদ ছিল পরবর্তী বছরের ৮ জুলাই। পরবর্তীতে চুক্তি মূল্যে ২ কোটি ১২ লাখ ২৭ হাজার ৭টাকা বাড়িয়ে আবার সাব-ঠিকাদার নিয়োগ করে প্রতিষ্ঠানটি। ওই ঠিকাদার মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের ৪৫ ভাগ নির্মাণ করে ২০১৭ সালের কাজ বন্ধ করে দেয়। এরপর ২০২০ সালের মাঝা মাঝি সময়ে আবার রি-টেন্ডার দিয়ে নতুন করে ঠিকাদার নিয়োগ করে কাজ শুরু করে নির্মাণ শেষ করা হয়। তবে এখন পর্যন্ত হস্তান্তর হয়নি ভবনটি।
বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান খেলু মিয়া ক্ষোভের সঙ্গে বলেন, এটি নিয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে চরম অসন্তোষ বিরাজ করছে। প্রথম ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের খামখেয়ালির কারণে দীর্ঘদিন কাজ বন্ধ ছিল। এখন নির্মাণকাজ শেষ হবার পরও এটি হস্তান্তর না হওয়া দুঃখজনক।
তাহিরপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার রফিকুল ইসলাম বলেন, কোন ত্রুটি-বিচ্যুতি থাকলে তা হস্তান্তর পরবর্তী সময়ে ঠিকাদারের জামানতের টাকা দিয়ে পূরণ করা সম্ভব বলে আমরা মনে করি। তাই আর বিলম্ব না করে দ্রুত হস্তান্তর প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার দাবি জানাই।
উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী মো. ইকবাল কবির বলেন, আমাদের কাজ শেষ। খুব শীঘ্রই হস্তান্তর প্রক্রিয়া শুরু হবে। এই বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. রায়হান কবির বলেন, আমাদের কমিটি এটি পর্যবেক্ষণ করে। সেগুলোর ব্যাপারে সন্তোষ প্রকাশ করলে দ্রুত হস্তান্তর প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে।
তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান করুণা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল বলেন, জাতির সূর্যসন্তানদের জন্য নির্মিত মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com