1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:১৮ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

স্বপ্নের ঠিকানায় ভালো আছেন গৃহহীনরা

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৩ আগস্ট, ২০২১

বিশেষ প্রতিনিধি ::
মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার স্বরূপ গৃহহীন ও ভূমিহীনদের জন্য গৃহনির্মাণ কার্যক্রম সারাদেশের ন্যায় সুনামগঞ্জ জেলায় অব্যাহত রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার ছিল দেশের কোন লোক গৃহহীন থাকবে না। পর্যায়ক্রমে তাদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হবে। তারই ধারাবাহিকতায় সরকারের দুই শতাংশ খাস জমিতে পাকা ঘর নির্মাণ করে দলিলসহ তাদের ঘর উপহার দেয়া হচ্ছে। সেই সাথে বিশুদ্ধ পানি ও বিদ্যুতের সুবিধাসহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করেছেন। সুনামগঞ্জ জেলার ১১ উপজেলায় ৪ হাজার ২৬৬টি ঘর বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে। দুই পর্যায়ে এই ঘরগুলো উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের মাধ্যমে নির্মাণকাজ চলমান রয়েছে আবার কিছু ঘর উপকারভোগীদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় দুই পর্যায়ে ২১০টি ঘর বরাদ্দ প্রদান করা হয়। প্রথম পর্যায়ে ১৫০টি এবং দ্বিতীয় পর্যায়ে আরও ৬০টি। ইতিমধ্যেই সব কটি ঘর নির্মাণ করে উপকারভোগীদের দলিলপত্রসহ হস্তান্তর করা হয়েছে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিউর রহিম জাদীদ।
বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার বরাদ্দ প্রাপ্ত ঘর হচ্ছে কাটাখালী ২৩টি, জামালপুর ৫২টি, মুজিবপল্লী ৩৯টি, কাপনা ১৬ টি, ফতেপুর ১৫টি, সোনাপুর ১১টি, বাহাদুরপুর ৮টি, বিশ্বম্ভরপুর ৯টি, লক্ষীপুর ২১টি, বামেরা ৩টি, শ্রীধরপুর ৫ টি এবং অন্যান্য স্থানে আরো ৮ টিসহ মোট ২১০টি।
বিশ্বম্ভরপুর উপজেলাধীন মুজিবপল্লীতে নির্মাণাধীন ঘর নির্মাণকাজ সরেজমিনে পরিদর্শনকালে সংশ্লিষ্টরা জানান, কাজের গুণগত মান ভালো। দুই পর্যায়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘরগুলো উপকারভোগীদের মাঝে হস্তান্তর করেন ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষসহ স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ।
‘স্বপ্নের ঠিকানা’র বাসিন্দাদের সাথে কথা বললে তারা জানান, জীবনে কল্পনাও করিনি নিজেদের পাকা ঘর হবে নিজের নামে জায়গার পাব। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের এই সুযোগ করে দিয়েছেন তার জন্য আমরা নামাজ পড়ে দোয়া করি আল্লাহ যেন তাকে দীর্ঘজীবী করেন।
বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিউর রহিম জাদীদ জানান, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলাধীন ২১০টি ঘরের নির্মাণকাজ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। দুই ধাপে ঘরগুলো উপকারভোগীদের মাঝে হস্তান্তর করা হয়েছে। বিশুদ্ধ পানি ও বিদ্যুতের ব্যবস্থা রয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সার্বক্ষণিক মনিটরিংও করা হচ্ছে।
জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, সুনামগঞ্জ জেলার বরাদ্দ প্রাপ্ত ঘরগুলোর কোনোটির নির্মাণকাজ শেষ করে উপকারভোগীদের দলিলপত্রসহ বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। কিছু ঘরের কাজ চলমান আছে। শেষ হলেই হস্তান্তর করা হবে। কোন ত্রুটি থাকলে তা মেরামত বা সংস্কার করে দেয়া হবে। জেলা প্রশাসেনর পক্ষ থেকে নিয়মিত বিভিন্ন উপজেলার ঘর নির্মাণকাজ পরিদর্শন ও মনিটরিং করা হচ্ছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com