1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১, ০১:৩৩ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01867-379991, 01716-288845

“একটি ঘর চাই”

  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ১৫ জুলাই, ২০২১

সাজ্জাদ হোসেন শাহ্ ::
“কতো মানুষে ঘর পাইলো, আমি পাইলাম না। আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে একটি ঘর চাই। জীবনের শেষ নিঃশ্বাস যাতে ওই ঘরটাত নিতাম পারি। এইটাই আমার জীবনের শেষ ইচ্ছা”।
চোখ ছলছল করে এই কথাগুলো বলছিলেন, তাহিরপুর উপজেলার ১নং উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের মনতলা গ্রামের মালিক উস্তারের বাড়িতে আশ্রিত মনবাহার বেগম (৭৫)।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মনবাহার বেগমের স্বামী মকবুল হোসেন দিনমজুরের কাজ করে অভাব অনটনের মধ্যেই সংসার চালাতেন। জীবনের শুরু থেকেই ভিটেমাটিহীন মনবাহার ও তার স্বামী মনতলা গ্রামে একটি খুপড়ি ঘরের মধ্যেই বসবাস করতেন। দিন বদলের সাথে সাথে অনেকের দিন বদল হলেও মনবাহার ও তার স্বামীর ভাগ্যের চাকা ঘুরেনি আজও। পরের জায়গা পরের জমিতে খুপড়ি ঘরে কোন রকমে খেয়ে না খেয়ে, অনাহারে, অর্ধাহারে জীবন যাপন করছিলেন তারা। মনবাহারের বিয়ের কয়েক বছর পরই তাদের সংসারে আসে এক কন্যা সন্তান। দিনমজুরী করেই মেয়েকে বড় করে বিয়ে দেন পিতা মকবুল হোসেন। বিয়ের পর তিন সন্তানের জন্ম দেয়ার কয়েক বছর পর মেয়ের স্বামীও মারা যায়। এর কয়েক বছর পর মনবাহারের জীবনে নেমে আসে আরেক ভয়ানক অন্ধকার। বেঁচে থাকার একমাত্র অবলম্বন দিনমজুর স্বামী মকবুল হোসেন বার্ধক্যজনিত রোগের কারণে টাকার অভাবে বিনাচিকিৎসায় মারা যান। এরপর থেকে মনবাহার আর তার মেয়ে গ্রামে মানুষের বাড়িতে ঝিয়ের কাজ করে কোন রকমে দিনাতিপাত করছেন। বর্তমানে উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের মনতলা গ্রামের মালিক উস্তারের বাড়িতে খুপড়ি ঘরটি ছাড়া বেঁচে থাকার আর কোন অবলম্বন নেই তাদের। খুপড়ি ঘরটিও বর্তমানে মেরামতের অভাবে নড়বড়ে হয়ে পড়েছে। যেকোন সময় ভেঙে যেতে পারে মনবাহারের মাথাগোঁজার ঠাঁইটুকুও। ঘরের টিনের চালা ও চারদিকের বেড়া কোনো রকমে টিকে আছে। জীবনের অন্তিমকালে ছোট্ট একটি খুপড়ি ঘরের ভিতর কখনো প্রচণ্ড শীতে কাঁপছেন আবার কখনো প্রচণ্ড রোদে পুড়ছেন আবার কখনও ঝড়, বৃষ্টিতে ভিজতে হচ্ছে বৃদ্ধ মনবাহারকে।
এ অবস্থায় জেলা প্রশাসক ও তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে একটি ঘর উপহার দেয়ার দাবি জানিয়েছেন বৃদ্ধ মনবাহার বেগম।
এ ব্যাপারে তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রায়হান কবির বলেন, বিষয়টি আমি মৌখিকভাবে জেনেছি। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com