1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০২:১৮ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

এমপি জয়া সেনের ডিও লেটার কার স্বার্থে?

  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার ::
সুনামগঞ্জ-২ (দিরাই-শাল্লা) আসনের সংসদ সদস্য ড. জয়া সেনগুপ্তা নির্বাচনী এলাকার স্বার্থ না দেখেই ছাতক-সুনামগঞ্জ রেললাইন সম্প্রসারণে অযৌক্তিক দাবিতে রেলমন্ত্রী বরাবর ডিও দিয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচনী এলাকার লোকজন। নির্বাচনী এলাকার অনেক সচেতন নাগরিক অনাকাক্সিক্ষত এ ঘটনায় তাদের জনপ্রতিনিধির জড়ানো নিয় প্রশ্ন তুলেছেন। তিনি কার স্বার্থে এমন অযৌক্তিক কাজ করেছেন সেই প্রশ্নও উত্থাপন করেছেন তারা। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এখন উত্তপ্ত।
দিরাই-শাল্লার নির্বাচনী এলাকার লোকজন জানিয়েছেন তাদের জনপ্রতিনিধি ও দেশের প্রথম রেলমন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের স্বপ্ন ও প্রচেষ্টা ছিল সুনামগঞ্জ পর্যন্ত রেললাইন সম্প্রসারণের। সম্প্রতি রেলবিভাগের এক্সপার্টরা গোবিন্দগঞ্জ থেকে সুনামগঞ্জ-মোহনগঞ্জ পর্যন্ত রেললাইন সম্প্রসারণের সমীক্ষা করছেন। তাদের মতে ছাতক থেকে দোয়ারাবাজার হয়ে সুনামগঞ্জে রেললাইন নিয়ে আসলে ইউটার্ন হয়ে যাবে। এতে সুনামগঞ্জ থেকে দোয়ারাবাজার, ছাতক, গোবিন্দগঞ্জ হয়ে সিলেট বা ঢাকায় যেতে যাত্রীরা আগ্রহী হবেন না। তাছাড়া এই পথে রেললাইন সম্প্রসারণ হলে ব্যবসায়িকও কোন উপকার হবে না। তাই গোবিন্দগঞ্জ থেকে সরাসরি সুনামগঞ্জ রেললাইন সম্প্রসারণ হলে ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসারসহ যাতায়াতও সহজ হবে। বিশেষ করে দিরাই, শাল্লা, জামালগঞ্জ, সুনামগঞ্জ সদর, জগন্নাথপুর, দক্ষিণ ছাতক, বিশ্বম্ভরপুরসহ বেশিরভাগ উপজেলাবাসীরই এই পথে রেললাইন সম্প্রসারণ হলে উপকারভোগী হবেন। সেই সহজ যাতায়াতের কথা বিবেচনা না করে সম্প্রতি পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নানের সঙ্গে ব্যক্তিগত বিরোধের জের ধরে জেলার ৫ জন সংসদ সদস্য অন্যান্য উন্নয়ন কর্মসূচির সঙ্গে সম্প্রতি রেললাইন সম্প্রসারণ ইস্যুতেও সরব হয়েছেন। তাদের সমর্থকরা ফেসবুকে তার সমালোচনা করছেন। দোয়ারা-ছাতকের সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক, সুনামগঞ্জ-৪ আসনের এমপি অ্যাডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ, সুনামগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য ড. জয়াসেন গুপ্তা, সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এবং সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য শামীমা শাহরিয়ার গত ৬ জুন রেলমন্ত্রী বরাবরে ছাতক-দোয়ারাবাজার হয়ে ইউটার্ন পথে সুনামগঞ্জে রেললাইন নিয়ে আসার ডিও দিয়েছেন। এই পথে রেললাইন সম্প্রসারণ হলে কেবল মুহিবুর রহমান মানিকের নির্বাচনী এলাকার লোকজন উপকৃত হলেও অন্য চার সংসদ সদস্যের নির্বাচনী এলাকার লোকজনের কোন উপকার হবেনা বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মূল্যবান মতামত দিয়েছেন অনেকে। বিশেষ করে দিরাই-ও শাল্লাবাসী এই পথে রেললাইন সম্প্রসারণ হলে কোন সুবিধা পাবেননা এবং তাদের রেলযাত্রায় আগ্রহ থাকবেনা বলে মন্তব্য করেছেন। তাদের নির্বাচিত সংসদ সদস্য কার স্বার্থে গোবিন্দগঞ্জ-সুনামগঞ্জ রেললাইন সম্প্রসারণ কার্যক্রমের বদলে ইউটার্ন আকারের রেললাইন সম্প্রসারণ চান তা জানতে চেয়েছেন। কিন্তু এখনো তারা কোন উত্তর পাননি।
শাল্লার সন্তান হাইকোর্টের তরুণ আইনজীবী এবং মিডিয়া ব্যক্তিত্ব সুব্রত দাস খোকন বলেন, সিলেট-সুনামগঞ্জ রেলপথ যদি ছাতক হতে দোয়ারাবাজার দিয়ে সুনামগঞ্জ পর্যন্ত পৌছায় তাহলে দোয়ারাবাজারের মানুষের লাভ হতে পারে, কিন্তু দিরাই-শাল্লার মানুষের লাভটা কি? দিরাই-শাল্লার মানুষের লাভ হবে যদি রেলপথ এখন যে সড়কপথে আসে তার পাশ দিয়ে যায়! অথচ দিরাই-শাল্লা থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য রেলপথ চান দোয়ারাবাজার দিয়ে! তিনি বলেন, দিরাই-শাল্লার মানুষের লাভ হবে যদি রেলপথ গোবিন্দগঞ্জ সড়ক পথ হয়ে আসে। তার এই ফেসবুক স্ট্যাটাসে বিপুল সরকার নামক একজন মন্তব্য করেন, ‘মানিক সাহেব নাকি সেন গ্রুপের ছিলেন, এখন মিসেস সেন নাকি মানিক গ্রুপের হয়েছেন!’ এভাবে এই স্ট্যাটাসে তীর্যক মন্তব্য করেন অনেকে।
হাওর-ভাটির গরিবের বন্ধু খ্যাত অমর চাঁন দাস বলেন, গোবিন্দগঞ্জ থেকে সুনামগঞ্জ হয়ে মোহনগঞ্জ রেলপথ সম্প্রসারণ হলে দিরাই-শাল্লা-জামালগঞ্জবাসী সরাসরি উপকৃত হবে। দোয়ারাবাজার হয়ে রেলপথ আসলে ভ্রমণে কারো আগ্রহ থাকবেনা। কারণ ইউটার্ন নিয়ে কেউ যাত্রা করতে চায়না।
এ বিষয়ে জানতে ড. জয়া সেনগুপ্তা এমপির মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি কল রিসিভ করেননি।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com