1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:০৭ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

সুনামকণ্ঠে সংবাদ প্রকাশ : ৫৭ বছর পর জমির দখল পেল বাউল সম্রাটের পরিবার

  • আপডেট সময় বুধবার, ২৬ মে, ২০২১

দিরাই প্রতিনিধি ::
দীর্ঘ ৫৭ বছর সরকারি বন্দোবস্ত জমির দখল পেলেন বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিমের পরিবার। মঙ্গলবার বিকেলে দিরাই উপজেলার তাড়ল ইউনিয়নের জালালপুর মৌজার জেএলনং ১৩৪, খতিয়ান ১০১, দাগ নং ২৫৩-এর ২ একর ১১ শতাংশ বন্দোবস্ত ভূমির দখল সরেজমিনে প্রশাসনের কাজ থেকে বুঝে নেন বাউল সম্রাটের একমাত্র পুত্র শাহ নূর জালাল বাবুল।
দীর্ঘ ৫৭ বছর ধরে বাউল সম্রাটের নামে বন্দোবস্তকৃত জমি দখল করে রেখেছিলেন স্থানীয় এক প্রভাবশালী। বিষয়টি গত ৩০ এপ্রিল দৈনিক সুনামকণ্ঠ পত্রিকায় “বাউল সম্রাটের জমিতে প্রভাবশালীর দাপট” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদ প্রকাশের পর টনক নড়ে প্রশাসনের। অবশেষে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে দীর্ঘ প্রায় ৫৭ বছর পর সরকারি বন্দোবস্ত জমির দখল বুঝে পান বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিমের একমাত্র পুত্র শাহ নূর জালাল।
মঙ্গলবার দিরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহমুদুর রহমান মামুন উপজেলার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে উজানধল গ্রামে যান। এরপর বাউলসম্রাটের একমাত্র ছেলে শাহ নূর জালালসহ অন্যদের নিয়ে দিনভর জমি মাপজোখ করেন। বিকেলে তাঁকে বুঝিয়ে দিয়ে সেই জমিতে সাইনবোর্ড টানিয়ে দেওয়া হয়। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দিরাই পৌরসভার মেয়র বিশ্বজিৎ রায়, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সুহেল আহমেদ, উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা শরীফুল আলম, দিরাই সরকারি উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাফর ইকবাল, দিরাই প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুজাহিদুল ইসলাম সর্দার, খলিল চৌধুরী প্রমুখ।
এ ব্যাপারে বাউল সম্রাট পুত্র শাহ নুর জালাল বাবুল বলেন, ৫৭ বছর আগে জালালপুর মৌজার ২ একর ১১শতক খাস জমি সরকার আমার বাবার নামে বন্দোবস্ত দেন। দীর্ঘদিন আমাদের জমিটি প্রভাবশালীদের দখল ছিল, আমরা অনেক চেষ্টা করেও বাবার জীবদ্দশায় দখল আনতে পারিনি। বহুদিন পরে হলেও আজ উপজেলা প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিক, সাংবাদিকসহ সুশীল সমাজের উপস্থিতিতে আমাদের জমির দখল এনে দিয়েছেন। এজন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহমুদুর রহমান মামুন, দিরাই পৌরসভার মেয়র বিশ্বজিৎ রায় সহ সকলকে আমার পরিবারের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহমুদুর রহমান মামুন বলেন, বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিম শুধু দিরাইবাসীর নয় তিনি হলেন বাংলাদেশের গৌরব , চির কিংবদন্তি বাউল সম্রাট আজীবন দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করে গেছেন। নির্লোভ, নিরহংকার একজন সাদা মনের মানুষ হিসেবে তিনি সবার কাছে চির অম্লান, তাঁর কীর্তির মূল্যায়ন করেই সরকার তাঁকে খাস জমি বন্দোবস্ত দিয়েছিলেন। বর্তমানে রেকর্ডে তাঁর নাম রয়েছে। আজ বাউল সম্রাটের একমাত্র উত্তরাধিকারী বাউল পুত্র শাহ নুর জালালকে বন্দোবস্তের জমিটি বুঝিয়ে দিতে পেরেছি বলে নিজেকে ধন্য মনে করছি। আমি আশাবাদী এলাকার সর্বস্তরের জনগণ বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিমের স্মৃতিকে অম্লান রাখতে কাজ করে যাবেন।
পৌর মেয়র বিশ্বজিৎ রায় বলেন, বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিম আমাদের ভাটি অঞ্চলের অহংকার। তিনি সারা বিশ্বে আমাদের পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন। বাউলগানের সম্রাট শাহ আব্দুল করিমের পরিবারকে সহায়তা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। আজ বন্দোবস্তের জমি তাঁর উত্তরসূরির কাছে বুঝিয়ে দিতে পেরে সত্যিই ভালো লাগছে। আমি প্রশাসনসহ সকলকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com