1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৪২ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

পুলিশ-বিজিবির ওপর ‘জঙ্গি হামলার পরিকল্পনা’ : সুনামগঞ্জ কলেজের এক ছাত্রসহ গ্রেপ্তার ৪

  • আপডেট সময় সোমবার, ১০ মে, ২০২১

সুনামকণ্ঠ ডেস্ক ::
আনসার আল ইসলামের চার সদস্যকে আফগানিস্তানে যাওয়ার প্রস্তুতিকালে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি)। গ্রেপ্তার তরুণেরা ঢাকায় পুলিশ ও বিজিবির ওপর হামলা চালিয়ে দেশ ছাড়ার পরিকল্পনা করছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ।
সিটিটিসির প্রধান মো. আসাদুজ্জামান রোববার ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বলেন, শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মোহাম্মদপুরের বসিলা থেকে সিটিটিসির ইনভেস্টিগেশন বিভাগ চারজনকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে মো. জসিমুল ইসলাম ওরফে জ্যাক (২৫) বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় অতীশ দীপঙ্কর ইউনিভার্সিটি ও মো. সজীব ইখতিয়ার (২১) সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের ডিগ্রি প্রথম বর্ষের ছাত্র। সে সিলেটের টিলাগড় রাজপাড়া এলাকার বাসিন্দা। অন্য দুজনের একজন হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ থানার মারকাজুস সুন্নাহ আল ইসলামিয়া মাদ্রাসার শিক্ষক মো. আবদুল মুকিত (২৯) ও অন্যজন আল হিদায়া ইসলামিক ইনস্টিটিউটের ছাত্র মো. আমিনুল হক (২০)। গ্রেপ্তারের সময় তাঁদের কাছ থেকে একটি ব্যাগ, একটি চাপাতি, পাঁচটি স্মার্ট ফোন ও দুটি ল্যাপটপ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
পুলিশের ভাষ্য জিজ্ঞাসাবাদে তাঁরা জানিয়েছেন, ইতিমধ্যে তাঁদের দলের কয়েকজন দেশ ছেড়েছেন।
সিটিটিসির আসাদুজ্জামান আরও বলেন, ঢাকায় পুলিশ ও বিজিবির ওপর হামলা চালিয়ে দেশ ছাড়ার পরিকল্পনার অংশ হিসেবে তাঁরা কয়েকটি জায়গায় রেকিও করেছে। সম্প্রতি এই তরুণেরা সিলেটের কোতোয়ালি থানার একটি আবাসিক হোটেলে হামলা করে হোটেল ব্যবস্থাপককে আহত করে পালিয়ে যায়। তাঁরা সায়েন্স প্রজেক্ট নামে টেলিগ্রামে একটি গ্রুপ তৈরি করেছে। অক্সিজেন সিলিন্ডার ব্যবহার করে বিস্ফোরক প্রস্তুতের চেষ্টা ছিল তাঁদের। গ্রেপ্তারকৃত তরুণদের বক্তব্য যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে বলেও তিনি জানান।
পুলিশ জানায়, এই তরুণদের আনসার আল ইসলামে ভিড়িয়েছেন সংগঠনটির দায়িত্বশীল বা মাসুল ফরিদ ওরফে তারিক ও আবদুল্লাহ। তারা সামাজিক যোগাযোগ অ্যাপস এর মেসেঞ্জার চ্যাটগ্রুপ ও ব্যক্তিগত যোগাযোগে নিষিদ্ধ এই সংগঠনে যুক্ত হওয়ার আমন্ত্রণ পায়।
তলোয়ার নিয়ে জাতীয় সংসদ ভবনে হামলার পরিকল্পনার দায়ে গ্রেপ্তার আবু সাকিব ও তাতে উসকানি দেওয়ার অভিযোগে উগ্রবাদী বক্তা আলী হাসান ওসামাকে গ্রেপ্তারের তিন দিনের মাথায় এই চারজনকে গ্রেপ্তার করল সিটিটিসি।
আগামী সেপ্টেম্বরে নিউ ইয়র্ক সিটি ও পেন্টাগনে হামলার ২০ বছর পূর্তির আগেই সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে মার্কিন প্রশাসন। এই পরিস্থিতিতে, বাংলাদেশের তরুণদের একটি অংশ আফগানিস্তানে যাওয়ার চেষ্টা করছে বলে জানিয়েছেন সিটিটিসির কর্মকর্তারা। এর আগে আফগানিস্তানে সোভিয়েত বিরোধী যুদ্ধের সময়ও বাংলাদেশ থেকে মাদ্রাসা ছাত্ররা যোগ দিয়েছিল। তাঁদের একটি অংশ দেশে ফিরে জঙ্গি সংগঠন হরকাতুল জিহাদ, বাংলাদেশ- হুজি, বি গঠন করে।
পুলিশের উপর জঙ্গিদের টার্গেট বহুদিন ধরেই দেখা গেছে কিন্তু হঠাৎ করে বিজিবির উপর তাদের টার্গেট কেন হলো এমন প্রশ্নের জবাবে সিটিটিসির আসাদুজ্জামান বলেন, তারা তাগুতের প্রথম ক্যাটাগরিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের রেখেছে। এই গ্রুপের দু’জন সদস্য হিজরতের নামে আফগানিস্তানে যাওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আটক চারজনেরও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ওপর হামলা করে কথিত হিজরতের নামে আফগানিস্তান পালিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা ছিল।
টেলিগ্রাম আ্যপসে ‘সায়েন্স প্রজেক্ট’ নামে একটি গ্রুপ তৈরি করে পর¯পরের মধ্যে যোগাযোগ করে অক্সিজেন সিলিন্ডার ব্যবহার করে বিস্ফোরক প্রস্তুতের চেষ্টা করেছিল। তাদের কাছ থেকে জব্দ করা ডিভাইস পর্যালোচনা করে আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে।
অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আপনারা জানেন আমাদের দেশে যে কয়টি জঙ্গি সংগঠন সক্রিয় তাদের অধিকাংশই আল-কায়েদার সঙ্গে তাদের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে এমন দাবি করে। আনসার আল ইসলাম উপমহাদেশের আল-কায়দার শাখা বল নিজেদের দাবি করে। সেই সূত্র ধরেই তারা হয়তো বা আফগানিস্তানে হিজরত করতে গিয়ে থাকতে পারে। আফগানিস্তানে হিজরতের বিষয়টি তাদের ভাষ্য, এ বিষয়ে আমরা এখনও নিশ্চিত হতে পারিনি। অধিকতর তদন্তে বিষয়টি জানা যাবে।
আটক আনসার আল ইসলামের সদস্যদের সঙ্গে কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা ছিল কিনা এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আমরা এমন তথ্য এখনো পাইনি। তবে আমরা তাদের রিমান্ডে পেলে এ সংক্রান্ত বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করবো।
হঠাৎ করে জঙ্গিদের আফগানিস্তানের যাওয়ার বিষয়টি কেন উঠে এলো এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমাদের দেশে যারা নব্য জেএমবির বা অন্য জঙ্গি সংগঠনের সদস্য তারা বরাবরই আইএস, আল-কায়েদার সঙ্গে স¤পর্কের একটি বিষয় বলে থাকে। সেই প্রবণতা থেকেই কেউ আফগানিস্তানে গিয়ে থাকতে পারে।
ওই চারজনের স¤পর্কে বিস্তারিত জানতে খোঁজ-খবর করা হচ্ছে বলে জানান কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের আসাদুজ্জামান। গ্রেপ্তার চারজনকে পরে ঢাকার আদালতে নিয়ে যায় পুলিশ। তাদের ১০ দিন হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদের আবেদন করে কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট। শুনানি শেষে বিচারক মাসুদ-উর-রহমান তাদের সাত দিন হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেন।আসামিদের পক্ষে কোনো আইনজীবী ছিলেন না।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com