1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:৫৮ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

জামালগঞ্জে দুই তরুণীকে ধর্ষণ : প্রধান আসামি আলমগীর মিয়া গ্রেফতার

  • আপডেট সময় শনিবার, ১ মে, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার ::
জামালগঞ্জে পোশাককর্মী দুই তরুণীকে ঢাকার বাসে তুলে দেওয়ার কথা বলে জুস খাইয়ে ধর্ষণের অভিযোগে করা মামলার প্রধান আসামি আলমগীর মিয়াকে (২৫) গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। শুক্রবার সকালে নেত্রকোণা জেলার মোহনগঞ্জ উপজেলা থেকে র‌্যাবের সুনামগঞ্জ কো¤পানির (সিপিসি-৩) সদস্যরা তাকে গ্রেফতার করেন।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, উক্ত মামলার পরিপ্রেক্ষিতে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে শুক্রবার বিকেলে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-৯, সিপিসি-৩, সুনামগঞ্জ ক্যাম্পের একটি আভিযানিক দল লে. কমান্ডার সিঞ্চন আহমেদ ও এএসপি মো. আব্দুল্লাহ-এর নেতৃত্বে নেত্রকোণা জেলার মোহনগঞ্জ থানা এলাকায় অভিযান চালায়। এসময় মোহনগঞ্জ থানাধীন বামেরচর গ্রামস্থ ধৃত আসামির বোনজামাই মো. আ. রহমানের বসত ঘর হতে আলমগীর মিয়া (২৫)-কে গ্রেফতার করা হয়। সে জামালগঞ্জ উপজেলার চানপুর গ্রামের বজলু মিয়ার পুত্র। গ্রেফতারকৃত আসামিকে জামালগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। মামলার অপর আসামি একই গ্রামের হরমুজ আলীর ছেলে আবুল কালাম (২৬) পলাতক রয়েছে।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত সোমবার (২৫ এপ্রিল) রাতে ঘটনাটি ঘটে। ওই দুই কিশোরী রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরের একটি পোশাক কারখানায় কাজ করে। লকডাউনের জন্য পরিবারের সঙ্গে তারা বাড়িতে আসে। ওই সন্ধ্যায় পোশাক কারখানা খোলার খবরে তারা ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেয়। বাড়ি থেকে তারা চাঁনপুর হারুন মার্কেটের সামনে এসে অভিযুক্ত আবুল কালামের ইজিবাইকে ওঠে। এ সময় কালাম তার বন্ধু আলমগীরকেও গাড়িতে উঠায়। দুই কিশোরী জামালগঞ্জ ফেরিঘাটে টমটম থেকে নামতে চাইলে চালক ঢাকার গাড়ি চলে না বলে তাদের জানায়। তখন তারা বাড়ি ফেরার জন্য ওই গাড়িতে উঠে বসে। এ সময় অভিযুক্ত আলমগীর তাদের হাতে জুস ধরিয়ে দিয়ে খেতে বাধ্য করে। জুস খেয়ে দুইজনই অসুস্থ হয়ে পড়ে। আলমগীর ও কালাম তাদের চাঁনপুর গ্রামের পার্শ্ববর্তী ক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণ করে। এরপর ধর্ষণের কথা কাউকে বললে প্রাণে মারার হুমকি দিয়ে তারা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। পরে রাত ১১টায় একই গ্রামের তোফাজ্জল দুই তরুণীকে পড়ে থাকতে দেখে স্বজনদের খবর দেয়। স্থানীয় মেম্বার ও প্রতিবেশীদের সহায়তায় দুই কিশোরীকে জামালগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালের চিকিৎসকরা তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। এ ঘটনায় ২৭ এপ্রিল ভুক্তভোগীর বাবা বাদী হয়ে আবুল কালাম ও আলমগীর মিয়ার বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com