1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ০৪:৩০ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01867-379991, 01716-288845

লকডাউন : শহরে কড়াকড়ি, গ্রামাঞ্চলে ঢিলেঢালা

  • আপডেট সময় সোমবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২১

শহীদনূর আহমেদ ::
করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে সারাদেশের ন্যায় সুনামগঞ্জেও পঞ্চম দিনের মতো ‘সর্বাত্মক লকডাউন’ পালিত হয়েছে। চলাচলে কড়াকড়ি আরোপসহ নানা নিষেধাজ্ঞায় গত বুধবার ভোর থেকে সরকারের এই নির্দেশনা কার্যকর রয়েছে। রোববার সুনামগঞ্জ জেলার ৪টি পৌরশহর ও সকল উপজেলা শহরে লকডাউন বাস্তবায়ন করতে পুলিশের তৎপরতা লক্ষ করা গেছে। বিভিন্ন গুরুপূর্ণ রাস্তায় জনসাধারণ এবং যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করার জন্য চেকপোস্ট বসায় পুলিশ। এসব চেকপোস্টে গাড়ি থামিয়ে যাত্রীদের পরিচয় এবং রাস্তার বের হওয়ার কারণ জিজ্ঞেস করা হয়। যেসব পেশার মানুষ জরুরিসেবার সঙ্গে সম্পৃক্ত, তাদের চেকপোস্ট অতিক্রম করার অনুমতি দিয়ে অন্যদের ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। ‘মুভমেন্ট পাস’ ছাড়া কাউকে বাড়ির বাইরে আসতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে শহরের বিভিন্ন স্থানে লকডাউন পালনে কড়াকড়ি হলেও শহরতলি এবং গ্রামাঞ্চলে লকডাউন ছিল ঢিলেঢালা।
জেলা ও উপজেলার আঞ্চলিক সড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকলেও এসব এলাকায় সিএনজি চালিত অটোরিকসা, রিকসাসহ বিভিন্ন যান সীমিত চলাচল করতে দেখা গেছে। দোকানপাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পরিচালনায় বিভিন্ন বিধি নিষেধ আরোপ করা হলেও তৃণমূল পর্যায়ে তা মানতে দেখা যায়নি। তাছাড়া স্বাস্থ্যবিধি না মানার প্রবণতাও লক্ষ করা গেছে সাধারণের মাঝে।
সরেজমিনে সুনামগঞ্জ শহরের পুরাতন বাসস্ট্যান্ড, ট্রাফিক পয়েন্ট, উকিলপাড়া, হোসেন বখত চত্বর, ষোলঘর এলাকায় লোকসমাগম কম দেখা গেছে। এসব এলাকায় ফার্মেসি ও নিত্যপণ্যের দোকান ও খাবার হোটেল ব্যতীত সকল প্রকার ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল। শহরের অভ্যন্তরীণ সড়কে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে স্বল্প সংখ্যক অটোরিকসা, সিএনজি চলাচল করতে দেখা গেলেও তা লকডাউনে তেমন প্রভাব ফেলেনি। এর বিপরীতে শহরের বিভিন্ন পাড়া-মহল্লাও গ্রামীণ এলাকায় যান চলাচলসহ হাটাবাজারে ব্যবসা পরিচালনা, সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি না মানার প্রবণতা লক্ষ করা গেছে।
দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পাগলা বাজার, শান্তিগঞ্জ, গণিগঞ্জ বাজার, নোয়াখালি বাজারে লোকসমাগম ছিল অন্যান্য সাধারণ দিনের মতোই। এসব এলাকায় হরহামেশেই ব্যবসা পরিচালনা করতে দেখা গেছে। স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মানতে দেখা যায়নি ক্রেতা-বিক্রেতাদের। অনেকের কাছেই মাস্ক থাকলেও তার যথাযত ব্যবহার হয়নি। এসব এলাকায় সর্বাত্মক লকডাউন পালনে মূল সড়কে পুলিশের তৎপরতা লক্ষ্য করা গেলেও বাজার এলাকা ছিল হতাশাজনক চিত্র।
এদিকে লকডাউন কার্যকর করতে শহরের বিভিন্ন স্থানে জেলা প্রশাসনের ম্যাজিস্ট্রেটরা মাঠে তৎপর রয়েছেন। নির্দেশনা না মানায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে জরিমানাসহ জনসাধারণকে সচেতন করার পাশাপাশি মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে।
জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সর্বাত্মক লকডাউনের বিধি-নিষেধ মানাতে জেলা-উপজেলা-গ্রামীণ পর্যায়ে নজরদারি করা হচ্ছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com