1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ০৪:০১ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01867-379991, 01716-288845

লকডাউন : কঠোর অবস্থানে প্রশাসন

  • আপডেট সময় শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার ::
মহামারি করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় দ্বিতীয় দফায় সরকার ঘোষিত লকডাউন পালনে কঠোর অবস্থানে রয়েছে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসন ও পুলিশ বিভাগ। বুধবার সকালে কোভিড-১৯ এর বিস্তার রোধকল্পে আরোপিত লকডাউনের প্রেক্ষিতে সুনামগঞ্জ জেলা শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানের জনচলাচল ও সার্বিক পরিস্থিতি পরিদর্শন করেন জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাহাঙ্গীর হোসেন। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান, বিপিএম; অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হায়াতুন নবী, সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. শাহরিয়ার আশরাফ, জেলা পুলিশের বিভিন্ন কর্মকর্তাগণসহ অন্যান্যরা।
পরিদর্শনকালে রাস্তায় মাস্কবিহীন চলাচলকারী জনগণকে মাস্ক প্রদান করা হয় এবং স্বাস্থ্যবিধি মানার জন্য সতর্ক করে দেয়া হয়। স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করায় এ সময় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. রিফাতুল হক। এছাড়া সর্বাত্মক লকডাউনের দ্বিতীয় দিন বৃহস্পতিবারও প্রশাসনের তৎপরতা লক্ষ করা গেছে। ওইদিন সুনামগঞ্জ শহরের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, সকালের দিকে যানচলাচল ও সাধারণ মানুষের উপস্থিতি কম। শহর ফাঁকা এবং নীরব পরিস্থিতি। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের উপস্থিতি কিছুটা বাড়ে। সকাল থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে পুলিশের কড়া অবস্থান থাকলেও দুপুরের পর তা কমে যায়। বৃহ¯পতিবার সকাল থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত শহরের আলফাত স্কয়ার, উকিলপাড়া, কাজীর পয়েন্ট, ষোলঘর পয়েন্ট, হোসেন বখত চত্বরসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।
এদিকে, গুরুত্বপূর্ণ এলাকাগুলোতে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। আইন অমান্য করা কিংবা স্বাস্থ্যবিধি না মানায় জরিমানা করা হয়। ছাতকে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ছাতক উপজেলা প্রশাসন। ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ২২টি মামলায় ২১ হাজার ২শ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বৃহ¯পতিবার দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত শহরের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে এই জরিমানা করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মামুনুর রহমান। এসময় শহরের মনিকা প্লাজায় দোকান খোলা রাখায় ৬টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে ১৮হাজার টাকা এবং বিধিনিষেধ অমান্য করায় সিএনজি অটোরিকসাকে ১৬টি মামলায় ৩২শ টাকা জরিমানা করা হয়। ছাতক উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মামুনুর রহমান বলেন, সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে।
অপরদিকে, লকডাউন কার্যকর করতে প্রথম দিনে বুধবার (১৪ এপ্রিল) জগন্নাথপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মেহেদী হাসানের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়েছে। অভিযানে উপজেলার সৈয়দপুর বাজার ও জগন্নাথপুর বাজারে লকডাউন অমান্য করে দোকান পরিচালনা করায় ৭ জন ব্যবসায়ীকে ৭ হাজার ৮০০ টাকা জরিমানা করা হয়।
ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও জগন্নাথপুর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মেহেদী হাসান এবং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরীর নেতৃত্ব পুলিশ দিনব্যাপী লকডাউনের বিধিনিষেধ কার্যকর করতে মাঠে ছিল।
জগন্নাথপুর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মেহেদী হাসান বলেন, লকডাউন কার্যক্রম জগন্নাথপুরে সন্তোষজনকভাবে পালিত হয়েছে। এরপরও যারা অমান্য করেছেন, তাদেরকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানা আদায় করা হয়েছে। এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com