1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৪১ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

ধর্মপাশায় ছাত্রলীগ নেতাকে লাঞ্ছনা : এখনো বহাল তবিয়তে অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২১

ধর্মপাশা প্রতিনিধি ::
ধর্মপাশায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা আফজাল খানকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগে অভিযুক্ত উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক এনায়েত হোসেনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি সংশ্লিষ্ট সংগঠন। বিষয়টি নিয়ে আক্ষেপ প্রকাশ করেছেন আফজাল খান। যদিও ঘটনার পরদিন এনায়েত হোসেনসহ ২৯ জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেছে। এ ঘটনার এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও এনায়েত হোসেন সংশ্লিষ্ট পদে বহাল থাকার বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়ভাবে সমালোচনার ঝড় উঠেছে।
হেফাজতের ভাঙচুরের ছবি ফেসবুকে পোস্ট করায় ঢাবির সমাজকল্যাণ বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী ও ঢাবি ছাত্রলীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপসম্পাদক আফজাল খানের বিরুদ্ধে ধর্মীয় অবমাননার মিথ্যা অভিযোগ এনে গত ৬ মার্চ লাঞ্ছিত করে ধর্মপাশা উপজেলার জয়শ্রী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেম আলম ও তার ছেলে আল মুজাহিদ। এ সময় আফজালকে জয়শ্রী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে ধর্মীয় অবমাননার গুজব ছড়িয়ে স্থানীয় মাদ্রাসা ও অনুসারীদের ফোন করে আবুল হাসেম আলম। এ খবরে দলীয় কার্যালয়ের সামনে হেফাজতের কর্মীসহ বিক্ষুব্ধরা ভিড় করে। ঘণ্টা দুয়েক পরে ধর্মপাশা থানার ওসি ঘটনাস্থলে পৌঁছলে আফজালের হাতে হাতকড়া লাগিয়ে দলীয় কার্যালয় থেকে বাইরে আনা হয়। এ সময় আবুল হাসেম আলমের সাথে তাল মিলিয়ে এনায়েত হোসেনও আফজালকে সবার কাছে ক্ষমা চাইতে পুলিশকে জোরালোভাবে চাপ প্রয়োগ করতে থাকে। একপর্যায়ে আফজাল ক্ষমা চাইতে বাধ্য হয়। এ ঘটনায় ওইদিন রাতেই ধর্মপাশা থানার এক এসআই ও এএসআইকে প্রত্যাহার করা হয়। পরেরদিন ওসিকেও প্রত্যাহার করা হয়। আবুল হাসেম আলমসহ দুইজনকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও উপজেলা আওয়ামী লীগ আবুল হাসেম আলমকে বহিষ্কার করেছে।
আফজাল খান বলেন, আবুল হাসেম আলম ও এনায়েত হোসেন পুলিশকে চাপ প্রয়োগ করে উৎসুক জনতার কাছে আমাকে ক্ষমা চাইতে বাধ্য করে। আলম বহিষ্কার হলেও এনায়েত হোসেনের বিরুদ্ধে এখনও কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ার বিষয়টি দুঃখজনক।
ধর্মপাশা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মোজাম্মেল হোসেন রোকন বলেন, এনায়েত হোসেনের বিরুদ্ধে এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগ সত্য হয় তাহলে জেলা যুবলীগের নির্দেশ মোতাবেক তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আসাদুজ্জামান সেন্টু বলেন, এনায়েত হোসেনকে বহিষ্কার করা হবে। এ ব্যাপারে কেন্দ্রীয় কমিটির সিদ্ধান্তের জন্য আমরা অপেক্ষায় রয়েছি।

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com