1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:০৬ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

চার লেন মহাসড়ক সুনামগঞ্জ পর্যন্ত চাই

  • আপডেট সময় শুক্রবার, ৫ মার্চ, ২০২১

মাসুম হেলাল ::
ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক চার লেনে উন্নীত কারার সিদ্ধান্ত জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) অনুমোদনের পর প্রকল্পটি সুনামগঞ্জ পর্যন্ত বিস্তৃত করার জোরালো দাবি ওঠেছে। সরকারের এই মেগা প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে সিলেট বিভাগের ওপর তিনটি জেলা এর আওতায় থাকবে, সুনামগঞ্জই কেবল বঞ্চিত থাকবে। যে কারণে সরকারের বিশাল উন্নয়ন সুবিধার আওতায় উন্নয়নের নানা সূচকে পিছিয়ে থাকা হাওর অধ্যুষিত সুনামগঞ্জ জেলাকে যুক্ত করার জোরালো দাবি ওঠেছে। দাবির পক্ষে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজেদের মতামত তোলে ধরছেন নানা শ্রেণিপেশার মানুষ। পাশাপাশি দাবির সাথে একাত্মতা পোষণ করে বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী বরাবরে উপস্থাপনের কথা বলছেন সরকার ও বিরোধীদলীয় সংসদ সদস্যগণ।
প্রসঙ্গত, সম্প্রতি দক্ষিণ এশিয়া আঞ্চলিক সড়ক নেটওয়ার্কে সংযুক্তির মাধ্যমে সামগ্রিক অর্থনৈতিক উন্নয়নের লক্ষ্যে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) ১৬ হাজার ৯১৮ কোটি ৫৮ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘সাসেক ঢাকা-সিলেট করিডোর সড়ক উন্নয়ন’ প্রকল্প অনুমোদন করে।
জানা যায়, ঢাকার সাথে সিলেটকে যে মহাসড়ক যুক্ত করেছে সেটি সিলেট বিভাগের সিলেট, মৌলভীবাজার ও হবিগঞ্জ জেলার উপর দিয়ে গেছে। ওই সড়কটি চার লেনে উন্নীত করা হলে ওই তিনটি জেলা এর সুবিধায় আসলেও স্বাস্থ্য, শিক্ষা, যোগাযোগসহ উন্নয়নের নানা সূচকে পিছিয়ে থাকা সুনামগঞ্জ জেলার মানুষ এর সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবে।
সচেতন মহল মনে করেন, সুনামগঞ্জ জেলাকে চার লেন মহাসড়কের আওতাভুক্ত করতে সিলেট থেকে সুনামগঞ্জ পর্যন্ত অতিরিক্ত ৬৭ কিলোমিটার সড়কের উন্নয়ন প্রয়োজন, যা একনেকে অনুমোদিত বৃহৎ একটি প্রকল্পে এক-দশমাংশ মাত্র। বিস্তৃত করতে অতিরিক্ত যে অর্থ প্রয়োজন সেটার ব্যয়ভার বর্তমান সরকারের পক্ষ মেটানো মোটেই অসম্ভব নয়। যে কারণে একনেকে পাস হওয়া প্রস্তাবটি সংশোধন করে সুনামগঞ্জকে চার লেন সড়কের আওতায় নিয়ে আসার জন্য সরকারের নিকট দাবি জেলাবাসীর।
সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও বিরোধীদলের হুইপ অ্যাডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ বলেন, “ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক চার লেনে উন্নীতকরণ নিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সংসদ সদস্যদের নিয়ে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবনে মতবিনিময় করেছিলেন। সেখানে আমি সুনামগঞ্জ পর্যন্ত চার লেনে উন্নীত করার জন্য দাবি জানিয়েছিলাম। পরবর্তীতে মাননীয় পরিকল্পনামন্ত্রীর কাছেও বিষয়টি উপস্থাপন করি। কিন্তু হয়নি। সুনামগঞ্জের মানুষের জন্য এটি হতাশার। এর আগে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক প্রশস্ত হবার সময়ও সুনামগঞ্জ বঞ্চিত হয়েছে। এবার চার লেনেও সুনামগঞ্জ নাই। হাজার হাজার কোটি টাকা ব্যয় করে সিলেট পর্যন্ত চার লেন হবে। সিলেট থেকে সুনামগঞ্জ পর্যন্ত ৬৭ কিলোমিটারের ব্যয় কোন সমস্যা হবার কথা নয়। সমস্যা হল মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিষয়টি যুক্তিসঙ্গতভাবে উপস্থাপন করা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সুনামগঞ্জের উন্নয়নে আন্তরিক। ইতিমধ্যে তিনি সুনামগঞ্জের মানুষকে অনেক বড় বড় প্রকল্প উপহার দিয়েছেন।
এমপি মিসবাহ আরও বলেন, “এবার যদি চার লেন সড়কের সুবিধা থেকে আমরা বঞ্চিত হই তবে আর কখনো সুনামগঞ্জের মানুষের কাছে এই সুযোগ আসবে কি-না জানা নেই। সময় এখনও শেষ হয়ে যায়নি। আসুন একাত্ম হয়ে দাবি জানাই। ব্যক্তিকেন্দ্রিক চিন্তায় আমাদের কি লাভ? এর থেকে বের হতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানাতে হবে ঢাকা থেকে সিলেট হয়ে সুনামগঞ্জ পর্যন্ত চার লেন সড়ক উপহার দেয়ার জন্য।”
এদিকে, ছাতকে অনুষ্ঠিত এক সংবর্ধনা সভায় একই দাবি জানিয়ে সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক বলেন, “সুনামগঞ্জবাসী বড় দুর্ভাগা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঢাকা-সিলেট সড়কের জন্য ১৪ হাজার কোটি টাকা দিলেন। এর সুবিধা সিলেট, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ জেলার মানুষ কম সময়ে ঢাকায় যাবেন, আসবেন। কিন্তু আমরা সুনামগঞ্জবাসী এখনও ওয়ান লেন, টু লেনে আছি। আমরা দুর্ভাগা। আমাদের মন্ত্রী (পরিকল্পনামন্ত্রী), যার হাত দিয়ে এই প্রকল্প পাস হয়, তিনি যদি বলতেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আর কিছুটা টাকা বাড়াইয়া দিলেই তো সুনামগঞ্জ পর্যন্ত হয়ে যায়। তাইলে অবশ্যই তিনি সেটা বিবেচনায় নিতেন। কারণ প্রধানমন্ত্রী আমাদের সুনামগঞ্জের মানুষের প্রতি আন্তরিক। তিনি প্রায়ই বলেন, গোপালগঞ্জ ও সুনামগঞ্জের মাঝে তিনি সাদৃশ্য দেখতে পান। আমাদের কৃতী সন্তান এমএ মান্নান এই কথাটা যদি একনেকের সভায় তুলে ধরতেন তবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তাতে আপত্তি করতেন না।”

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com