1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:৪৫ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

তাহিরপুরে সাংবাদিককে গাছে বেঁধে নির্যাতন

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ২ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার ::
তাহিরপুরে এক সাংবাদিককে বেধড়ক মারধর করা হয়েছে। মারধরের পর তাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়। এমন দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। নির্যাতনের শিকার ওই সাংবাদিকের নাম কামাল হোসেন রাফি। তিনি তাহিরপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক, দৈনিক সংবাদ এবং দৈনিক শুভ প্রতিদিনের উপজেলা প্রতিনিধি।
জানা যায়, সোমবার দুপুরে উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের ঘাগটিয়া এলাকার যাদুকাটা নদীর তীর কেটে অবৈধভাবে বালু-পাথর উত্তোলন করা হচ্ছিল। এই ঘটনার ছবি তুলতে যান সাংবাদিক কামাল হোসেন রাফি। ছবি তুলতে দেখে নদী তীর কাটার সঙ্গে জড়িতরা তাকে মারধর করেন এবং ঘাগটিয়া চকবাজারে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখেন। ভাইরাল ১ মিনিট ৩৯ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে দেখা যায়, মারধরের পর সাংবাদিক কামাল হোসেনকে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়েছে। তার মুখমণ্ডলে আঘাতের চিহ্ন। চারপাশ ঘিরে রেখেছে লোকজন। একপর্যায়ে তার বাঁধন খুলে দেয়া হয়। তবে হামলাকারীদের বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি।
স্থানীয়রা জানিয়েছেন, হামলাকারীরা যাদুকাটা নদীতে অবৈধভাবে পাড় কেটে বালু-পাথর উত্তোলনের সঙ্গে জড়িত। তাদের অভিযোগ, চক্রটির কারণে যাদুকাটা নদী ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে।
স্থানীয়রা আরও জানান, জনসম্মুখে সাংবাদিককে গাছের সঙ্গে বেঁধে মারধর করা হয়েছে। পরে আমরা তাকে উদ্ধার করে তাহিরপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে আসি। পরবর্তীতে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়।
নির্যাতনের শিকার সাংবাদিক কামাল হোসেন জানান, যাদুকাটা নদীতে প্রতিদিন প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে শত শত শ্রমিক অবৈধভাবে বালু ও পাথর উত্তোলন করে। সোমবার সকালে যাদুকাটা নদী থেকে বালু পাথর উত্তোলনের ছবি তুলতে গেলে স্থানীয় শ্রমিকরা তাকে বাধা দেয়। এক পর্যায়ে ক্যামেরা, মোবাইল ফোন এবং মোটর সাইকেল ছিনিয়ে নিয়ে একটি গাছের সাথে বেঁধে নির্যাতন করে।
তিনি বলেন, যাদুকাটা নদী থেকে অবৈধভাবে বালু পাথর উত্তোলনের সাথে জড়িত সিন্ডিকেটের সদস্যরা তাকে নির্যাতন করেছে। তার মাথা, কপাল এবং চোখে অনবরত আঘাত করতে থাকে।
বাদাঘাট পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মাহমুদুল হাসান বলেন, ঘটনা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তদন্ত শেষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
তাহিরপুর থানার ওসির দায়িত্বে থাকা এসআই দীপঙ্কর জানান, এই বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।
এদিকে, যাদুকাটা নদী থেকে বালু পাথর উত্তোলন অবৈধ উল্লেখ করে তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পদ্মাসন সিংহ জানান, ঘটনাটি আমরা শুনেছি। খুবই গুরুতর ঘটনা ঘটে গেছে। আমরা এর সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিচ্ছি। নির্যাতনের শিকার সাংবাদিক মামলা করলে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ব্যবস্থা নিবে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com