1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০৬:৩০ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01867-379991, 01716-288845

৯৯৯-এ ফোন : হারিয়ে যাওয়া মাকে ফিরে পেল ছেলে

  • আপডেট সময় রবিবার, ৩১ জানুয়ারী, ২০২১

মোসাইদ রাহাত ::
৯৯৯-এ ফোন করে হারিয়ে যাওয়া ৭২ বছর বয়সী বৃদ্ধা মাকে ছেলের কাছে পৌঁছে দিলেন সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য রাজিব সেন। শনিবার সকালে সুনামগঞ্জ সদর থানার একটি পুলিশ দল উপজেলার কুরবাননগর ইউনিয়নের নতুন ব্রাহ্মণগাঁও গ্রাম থেকে তাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ছেলে কেনু মিয়ার হাতে তুলে দেওয়া হয়। তিনি বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার সলুকাবাদ ইউনিয়নের মোয়াকুড়া গ্রামের মৃত কিতাব আলী’র স্ত্রী হামেদা খাতুন (৭২)।
রাজিব সেন জানান, আমি শুক্রবার (২৯ জানুয়ারি) রাত ৮টা নাগাদ আমার গ্রামের বাড়ি ব্রহ্মক্ষণগাঁওয়ে বাড়ির সড়কের পাশে হাঁটার জন্য বের হই এবং সড়কে একজন বৃদ্ধা মহিলাকে মাটিতে পড়ে থাকতে দেখি। বিষয়টি দেখে খুব খারাপ লাগে। আমি উনার সাথে কথা বলি তবে উনি আমাকে তার নাম-পরিচয় কিছুই বলেননি। পরবর্তীতে বাড়ির মানুষ ও প্রতিবেশীদের সাথে কথা বলে জানতে পারি দু’দিন ধরে তিনি এখানেই থাকছেন। তাকে খাবার গ্রামের লোকজন দিচ্ছেন ও শীত নিবারণের জন্য একটি শীতের কাপড় দিয়েছেন। পরবর্তীতে উনাকে কাঁপতে দেখে আমি ও আমার দুই ছোটভাই মিলে শীত নিবারণের জন্য টুপি ও চাদরের ব্যবস্থা করি। তার থাকার ব্যবস্থাও করে দেই। পরবর্তীতে আমি ৯৯৯-এ ফোন দেই এবং তাদের পুরো ঘটনা খুলে বলার পর সুনামগঞ্জ সদর থানার দায়িত্বরত অফিসারের সাথে আমাকে কথা বলিয়ে দেয়া হয়। এ সময় দায়িত্বরত অফিসারকে আমি জানাই ওই বৃদ্ধা নিরাপদে আছেন এবং তাকে রাতের বেলা না এসে শনিবার সকালে ব্রাহ্মণগাঁওয়ে আসার কথা বলি। শনিবার সকালে ওই কর্মকর্তা আসতে দেরি দেখে আমি আবারো ৯৯৯-এ কল করে পুনরায় ঘটনাটি বলি। এ সময় ৯৯৯ থেকে আমাকে সরাসরি সুনামগঞ্জ সদর থানার ওসি সহিদুর রহমানের সাথে কথা বলিয়ে দেয়া হয়। পরবর্তীতে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে মহিলার সাথে কথা বললে তিনি তার স্বামী, ছেলের নাম ও ঠিকানা জানান এবং পুলিশ স্থানীয় এক মেম্বারের সহায়তায় বৃদ্ধা মহিলার ছেলেকে খুঁজে পান।
সুনামগঞ্জ সদর থানার এসআই মো. হাবিব বলেন, ৯৯৯-এর মাধ্যমে আমরা বিষয়টি জানতে পারি। পরবর্তীতে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে বৃদ্ধা মায়ের সাথে কথা বলি এবং তার কথামতো আমরা স্থানীয় ইউপি সদস্যের সহায়তায় তার ছেলেকে খুঁজে পাই এবং তাকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে আসার জন্য বলি। আমরা বৃদ্ধা মাকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ছেলের হাতে তুলে দেই।
সুনামগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সহিদুর রহমান জানান, আমরা ৯৯৯-এ ফোনের মাধ্যমে রাজিব সেন-এর সাথে যোগাযোগ করে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করি। বৃদ্ধা মায়ের ছেলেকে খুঁজে বের করে জানতে পারি বৃদ্ধা মাকে তারা ২-৩দিন ধরে খোঁজাখুঁজি করছেন এবং বিশ্বম্ভরপুর থানায়ও ডায়েরি করেছিলেন। কিন্তু কোথাও কোনো খোঁজ পাচ্ছিলেন না। আমরা বৃদ্ধা মায়ের প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করি।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com