শুক্রবার, ১০ এপ্রিল ২০২০, ০২:২৯ অপরাহ্ন

Notice :

মুগ্ধতা ছড়াল মরমি কবি গিয়াস উদ্দিন লোক উৎসব

জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী ::
‘মরিলে কান্দিস না আমার দায় রে যাদুধন, মরিলে কান্দিস না আমার দায়, / সুরা ইয়াছিন পাঠ করিও বসিয়া কাছায়, / আমার প্রাণ যাবার বেলায়, বিদায় কালে পড়িনা যেন শয়তানের ধোঁকায় রে যাদুধন / মরিলে কান্দিসনা আমার দায়। অথবা সিলেট পরতম আযান ধ্বনি শাহজালাল বাবায় দিয়াছেন, / শুন সে আযান ধ্বনি আইজো হইতাছে… – এরকম অসংখ্য জনপ্রিয় গানের স্রষ্টা মরমি কবি গিয়াস উদ্দিন আহমদ। তাঁর মৃত্যুর প্রায় ১৫ বছর পর মরমি কবি গিয়াস উদ্দিন আহমদ স্মরণে লোকউৎসব উদযাপন করা হয়েছে।
মরমি কবি গিয়াস উদ্দিন আহমদ লোক উৎসব উদযাপন পর্ষদের উদ্যোগে মঙ্গলবার রাত ৮টায় ছাতক উপজেলার গোবিন্দগঞ্জস্থ বালুর মাঠে অনুষ্ঠিত লোক উৎসবে দেশের বিশিষ্ট লোকসংস্কৃতি গবেষক, কবি, সাহিত্যিক, নাট্যকার, সাংবাদিক, বাউল শিল্পী, জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ অংশ গ্রহণ করে উৎসবকে প্রাণবন্ত করে তুলেন। উৎসবে গুণীজন সম্মাননা, মরিলে কান্দিসনা আমার দায় বইয়ের মোড়ক উন্মোচন, কবির বর্ণাঢ্য জীবন ও কর্ম নিয়ে আলোচনা ও তার লেখা গান পরিবেশন করেন দেশের প্রখ্যাত শিল্পীবৃন্দ।
লোক উৎসব উদযাপন পর্ষদের আহ্বায়ক ও ছাতক উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান অলিউর রহমান চৌধুরী বকুলের সভাপতিত্বে উৎসব উদ্বোধন করেন একুশে পদকপ্রাপ্ত লোকসংগীত শিল্পী সুনামগঞ্জের কৃতী সন্তান সুষমা দাশ।
মরমী কবির জীবনী ও তাঁর লেখা গান নিয়ে আলোচনা করেন একুশে পদকপ্রাপ্ত লোকসংগীত শিল্পী সুষমা দাশ, বাংলা একাডেমির সহকারী পরিচালক লোকসংস্কৃতি গবেষক ও নাট্যকার ড. সাইমন জাকারিয়া, নাগরীলিপি গবেষক মোস্তফা সেলিম, অতিরিক্ত সচিব লুৎফুর রহমান, প্রখ্যাত সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমদের সহধর্মীণি নাট্য অভিনেত্রী ও পরিচালক মেহের আফরোজ শাওন, লোকসংস্কৃতি গবেষক ও প্রাবন্ধিক সুমন কুমার দাশ, শিল্পী হিমাংশু বিশ্বাস, জামাল উদ্দিন হাসান বান্না, ভারতের কবি কাজল চক্রবর্তী, ছাতক উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান চৌধুরী, পৌরসভার প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান আবদুল ওয়াজিদ মজনু, কবিপুত্র আনোয়ার হোসেন রনি।
বাংলাদেশ বেতারের উপস্থাপক সৈয়দ সাইমুম আনজুম ইভানের পরিচালনায় আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন উদযাপন পর্ষদের সদস্য সচিব ও গোবিন্দগঞ্জ আবদুল হক স্মৃতি অনার্স কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মহীউদ্দিন। এর আগে উদযাপন পর্ষদের পক্ষ থেকে গুণীজনদের উত্তরীয় ও সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। আলোচনা শেষে সিলেট অঞ্চলের উপস্থিত শিল্পীদের সম্মিলিত কণ্ঠে মরমী কবির লেখা ‘সিলেট পরতম আযান ধ্বনি শাহজালাল বাবায় দিয়াছেন’ এই গানের মধ্যদিয়ে কবির লেখা গান পরিবেশন করেন দেশের খ্যাতনামা শিল্পীবৃন্দ।
বিখ্যাত ‘মরিলে কান্দিসনা আমার দায়রে যাদুধন’ এ জনপ্রিয় গানটি পরিবেশনের মধ্য দিয়ে ছাতকের গোবিন্দগঞ্জে শ্রোতাদের মুগ্ধ করেন নাট্য অভিনেত্রী ও পরিচালক মেহের আফরোজ শাওন। এছাড়া মরমী কবির লেখা অন্যান্য গান পরিবেশন করেন একুশে পদকপ্রাপ্ত লোক সংগীত শিল্পী সুষমা দাশ, সেলিম চৌধুরী, আশিক, হিমাংশু বিশ্বাস, জামাল উদ্দিন হাসান বান্না, কৃষ্ণকলি, বাউল আবদুর রহমান, বাউল পাগল কালা মিয়া, বাউল বিরহী কালা মিয়া, বাউল সিরাজ উদ্দিন, বাউল সূর্যলাল, লাভলী দেব, পঙ্কজ দেব, তন্নি দে, সুপ্রিয়া দে, প্রদীপ কুমার মল্লিক, অন্তরা বিশ্বাস পিংকি, লিংকন দাশ, জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে বাতিঘর কর্তৃক প্রকাশিত লোকসংস্কৃতি গবেষক ও প্রাবন্ধিক সুমন কুমার দাশ সংকলিত মরমী কবির নির্বাচিত গান নিয়ে ‘মরিলে কান্দিসনা আমার দায়’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন সুষমা দাশ ও লুৎফুর রহমানসহ অতিথিবৃন্দ।
এর আগে মঙ্গলবার দুপুরে লোক উৎসব উপলক্ষে বিনামূল্যে আলো রক্তদান সমাজ কল্যাণ সংস্থার মাধ্যমে উৎসবে আগত অর্ধশত লোকদের কাছ থেকে রক্ত সংগ্রহ ও বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করা হয়। পরে বিকেল ৩ ঘটিকায় গোবিন্দগঞ্জ কলেজ সংলগ্ন মাঠে লন্ডনের ব্রাইটন শহরস্থ থেকে বাংলাদেশে আগত ব্রাইটন ফুটবলক্লাব ও স্থানীয় সুমন ব্রাদার্স স্পোর্টিং ক্লাবের খেলোয়াড়দের মধ্যে অনুষ্ঠিত গিয়াস প্রীতি ফুটবল ম্যাচ।
মরমি কবি গিয়াস উদ্দিন আহমদ ১৯৩৫ সালের ১২ আগস্ট ছাতক উপজেলার ছৈলা আফজলাবাদ ইউনিয়নের শিবনগর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা ছিলেন ফতেহ উল্যাহ ও মাতা অমুরতা বিবি। তিনি ১৯৭৪ সালে গীতিকার হিসেবে বাংলাদেশ বেতারে স্বীকৃতি লাভ করেন। ২০০৫ সালের ১২ এপ্রিল এ গুণী কবি মৃত্যুবরণ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী