শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ০২:৪৮ অপরাহ্ন

Notice :

পেঁয়াজের ঝাঁজ কমছে না

স্টাফ রিপোর্টার ::
রেকর্ড দামে আকাশ ছোঁয়া পেঁয়াজের ঝাঁজ এখনও কমছে না। সরকারের নজরদারি বৃদ্ধি, স্বল্প পরিসরে পেঁয়াজ আমদানির সুযোগ সৃষ্টি, অন্যান্য বিকল্প উৎস থেকে আমদানি বৃদ্ধি এবং দেশের বাজারে নতুন পেঁয়াজ আসা শুরু হওয়ায় সব ধরনের পেঁয়াজের দাম কিছুটা কমেছে। তবে এখনো তা ১০০ টাকার ওপরেই রয়েছে। সুনামগঞ্জের বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ১২০ টাকায়।
খোঁজ নিয়ে জানাযায়, সুনামগঞ্জ শহর ও উপজেলার বাজারে অতিরিক্ত মূল্যে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ। কোনো সুনির্দিষ্ট মূল্য নির্ধারণ না করায় ব্যবসায়ীরা খেয়ালখুশি মতো বিক্রি করছেন এই পণ্যটি। পেঁয়াজের অতিরিক্ত দামের কারণে ক্রেতারা বিড়ম্বনায় পড়েছেন। অসাধু ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেট আর বাজার মনিটরিং কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় ব্যবসায়ীরা ইচ্ছেমতো দাম রাখছেন এমন অভিযোগ ভোক্তাদের।
গত সোমবার ও মঙ্গলবার শহরের পাইকারি ও খুচরা বাজারে ঘুরে দেখা যায় পেঁয়াজের লাগামহীন দামের চিত্র। শহরের কালিবাড়ি এলাকায় মা ভেরাইটিজ স্টোরে প্রতি কেজি পেঁয়াজের মূল্য নেয়া হচ্ছে ১২০ টাকা। আলফাত স্কয়ারে হৃদি ভেরাইটিজ স্টোরের মূল্য তালিকায় প্রতি কেজি পেঁয়াজের মূল্য ১১০ টাকা লেখা থাকলেও বিক্রি হচ্ছে ১২০টাকায়। রহমান বেকারি এন্ড কনফেকশনারিতে মূল্য তালিকায় ১১০ টাকা লেখা থাকলেও বিক্রি হচ্ছে ১১৫ টাকায়। স্টেশন রোডের মেসার্স গৌরাঙ্গ স্টোরে কেজি প্রতি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১১৫ টাকায়। লাভলু স্টোর ও ইন্তাজ এন্ড ব্রাদার্সে ১১০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ। জেলরোড এলাকার বিজয় স্টোরে ১১০ টাকায় প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হলেও মা এন্টারপ্রাইজে ১১৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
এদিকে জেল রোড এলাকার পেঁয়াজের পাইকারি বাজারে খোঁজ নিয়ে জানাযায়, পাইকারি দরে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৯৫ থেকে ১০৫ টাকায়। পাইকারি বিক্রেতা অসীম রায় বলেন, প্রতিদিন ঢাকা থেকে যে পেঁয়াজ আসে তাই প্রতিদিন বিক্রি হয়। ঢাকায় পেঁয়াজের দাম বেশি। ফলে আমাদের সুনামগঞ্জে বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি করতে হচ্ছে।
এছাড়াও দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পাগলা বাজার, পাথারিয়া বাজার, দিরাই উপজেলার দিরাই বাজার, জামালগঞ্জ উপজেলার সাচনা বাজারসহ একাধিক বাজারের খোঁজ নিয়ে জানাযায়, প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকারও উপরে। গ্রামীণ বাজারে আরো বেশি মূল্য নেয়া হচ্ছে।
তোফায়েল নামে এক ক্রেতা বলেন, একেক স্থানে একেক দাম রাখছেন বিক্রেতারা। ট্রাফিক পয়েন্ট এলাকায় ১২০ টাকা আর বাজারের ভেতরে ১১০ টাকা। কোনো সুনির্দিষ্ট মূল্য তালিকা নাই। বাজার নিয়ন্ত্রণে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচলনার দাবি জানিয়েছেন তিনি।
জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ কর্মকর্তা মো. ফয়েজ উল্লাহ জানান, পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে শীঘ্রই ভোক্তা অধিকারের বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী