1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৭:৪১ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

ঘুরে দাঁড়ানোর সংগ্রামে কৃষককে জয়ী হতেই হবে

  • আপডেট সময় বুধবার, ২৯ নভেম্বর, ২০১৭

গেল বছর বোরো ফসল ঘরে তুলতে পারেনি কৃষক। পাউবো কর্মকর্তা, ঠিকাদার আর পিআইসি’র দুর্নীতি-অনিয়মই এর কারণ। ওই অসাধু সিন্ডিকেট ফসলরক্ষা বাঁধ সময়মতো সঠিকভাবে নির্মাণ না করায় হাওর এলাকায় নেমে আসে মহাদুর্যোগ। যার প্রভাব পড়ে দেশজুড়ে।
এবার বোরো ফসল রোপণের পূর্বেই যে সমস্যা দেখা দিয়েছে তা হলো হাওরের বিস্তৃত জমি থেকে বিলম্বে পানি নামা। শেষ পর্যন্ত কৃষকরা তাদের সবটুকু জমি চাষ করতে পারবে কি-না এ বিষয়ে সন্দিহান হয়ে পড়েছেন।
জেলার কৃষি বিভাগ বলছে, এ বছর ২ লাখ ২২ হাজার ৫৫২ হেক্টর জমিতে বোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ হয়েছে। গত বার ২ লাখ ২৩ হাজার ৮২ হেক্টর জমিতে বোরো চাষ করার পরও একমুঠো ধান কৃষকরা ঘরে তুলতে না পারায় পরিবার-পরিজন নিয়ে কঠিন সময় পার করছেন। বোরো চাষের সঙ্গে জেলায় প্রায় সাড়ে তিন লাখ কৃষক পরিবার রয়েছে। সরকারিভাবে সরকার ক্ষতিগ্রস্ত ১ লাখ ৮২ হাজার কৃষককে গত এপ্রিল থেকে প্রতি মাসে ৫শ টাকা ও ৩০ কেজি চাল সহায়তা বর্তমানে ৩ লাখ কৃষককে সার, বীজ ও নগদ এক হাজার টাকা প্রদান করে যাচ্ছে, তবে বেশির ভাগ কৃষকই এখন পর্যন্ত এই সহায়তা হাতে পাননি।
অপরদিকে পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে, যথাসময়ে হাওরের পানি না সরলে ফসলরক্ষা বাঁধের কাজ বিলম্বিত হবে। নদীর পানি ধীর গতিতে কমায় হাওরের পানি ও ধীর গতিতে নামছে বলে অভিজ্ঞ মহল মনে করছে।
হাওরের পানি নিষ্কাশনের জন্য এই প্রথমবারের মত ৩০ লাখ টাকা সরকারি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে এই বরাদ্দ ১০টি উপজেলায় দুই লাখ করে এবং ধর্মপাশা ৪লাখ টাকা দেয়া হয়েছে। বাকি ৬ লাখ টাকা জরুরি কাজের জন্য রাখা হয়েছে। তারপরও কৃষকরা তাদের জমি চাষ নিয়ে আশঙ্কায় দিন কাটাচ্ছেন। কৃষকদের অভিমত হাওরের সমস্ত জমি চাষ করা সম্ভব হবে না। কারণ জমি চাষের সময় চলে যাচ্ছে, কিন্তু হাওর থেকে পানি ধীরগতিতে নামছে। তাছাড়া সরকার থেকে পাওয়া সার বীজ, টাকা এখনো অনেক কৃষকের হাতে পৌঁছায়নি। এসব কারণে বোরো চাষে অনেকটা অনিহা দেখাচ্ছেন কৃষকরা। তবে এই বোরো চাষে অনাগ্রহ দেখালে চলবে না। কৃষকদের অবশ্যই ঘুরে দাঁড়াতে হবে এবং এই সংগ্রামে তাদের জয়ী হতেই হবে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com