1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ১১:০৩ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

প্রতি বছর সড়কে প্রাণ ঝরে চার হাজার মানুষের

  • আপডেট সময় শনিবার, ৮ অক্টোবর, ২০১৬

সুনামকণ্ঠ ডেস্ক ::
প্রতি বছর সড়কে প্রায় চার হাজার মানুষের প্রাণ ঝরে। দুর্ঘটনাজনিত বাৎসরিক ক্ষতির পরিমাণ প্রায় পাঁচ কোটি টাকা, যা জিডিপির এক থেকে তিন শতাংশ।
শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাসে সচেতনতা আনা ও এর সামগ্রিক ব্যবস্থাপনায় উন্নয়ন ঘটাতে ‘সেইফ রোডস অ্যান্ড ট্রান্সপোর্ট এলায়েন্স (শ্রোতা)’ নামে একটি নতুন জোটের আত্মপ্রকাশ উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। সাবেক তত্ত্বাবধাক সরকারের উপদেষ্টা ড. হোসেন জিল্লুর রহমান এতে বক্তব্য দেন।
নতুন এ জোটের অন্তর্ভুক্ত ছয়টি সংগঠনের মধ্যে নিরাপদ সড়ক চাই, ব্র্যাক, পাওয়ার অ্যান্ড পাটিসিপেশন রিসাচ সেন্টার (পিপিআরসি), বাংলাদেশ বাস-ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি ও বাংলাদেশ সোসাইটি ফর ইমার্জেন্সি মেডিসিন।
সংবাদ সম্মেলনে হোসেন জিল্লুর রহমান বলেন, অর্থনীতিতে এ ধরনের নেতিবাচক প্রভাব কমিয়ে আনা জরুরি। এই অবস্থায় ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার বিকল্প নেই।
হোসেন জিল্লুর বলেন, ‘সড়ক দুঘটনা রোধে আমাদের গবেষণায় ওপর জোর দিতে হবে। নতুন মহাসড়ক তৈরি হওয়ার ফলে যে নতুন নতুন ব্ল্যাক ¯পট তৈরি হচ্ছে এগুলো কিভাবে ঠিক করা যায় সে বিষয়ে পরিকল্পনা ঠিক করতে হবে।’
চালকদের সচেতনতার ওপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, ‘সড়ক দুর্ঘটনা রোধে চালকদের দক্ষতা বাড়াতে হবে। যাত্রীদের সচেতনতা বাড়াতে আমাদের এই জোট জেলায় জেলায় প্রেরণা সফর করবে।’
আলোচনায় অংশ নিয়ে গবেষক ও লেখক সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেন, ‘সরকার যোগাযোগ দুর্ঘটনা নিয়ে অনেক আলোচনা করে। এখানে শুধু যে মানুষ মারা যাচ্ছে শুধু তাই নয়, এই খাতে যে সমস্ত অনিয়ম অব্যবস্থাপনা আছে তা দূর করতে সমন্বিতভাবেই উদ্যোগ নিতে হবে।’
আবুল মকসুদ বলেন, ‘শুধু বড় বড় বাস চলার কারণেই দুর্ঘটনা ঘটে তা না, আমাদের পথচারীদেরও অনেক ত্রুটি আছে। এই বিষয়ে গবেষণার প্রয়োজন আছে। গবেষণার রিপোর্ট সরকারকে দিলে তারা ব্যবস্থা নিতে সহজ হবে।’
তিনি বলেন, ‘ভারী যানবাহন যাচ্ছে দুর্বল অবকাঠামোর ভেতর দিয়ে, এতে রাস্তা খারাপ হচ্ছে। আর ভাঙাচোরা রাস্তা দিয়ে গাড়ি চলার কারণেও অনেক দুর্ঘটনা ঘটে।’ গবেষণার মাধ্যমে ব্যবস্থা নিলে সড়ক দুর্ঘটনা অনেকাংশে কমে যাবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
নিরাপদ সড়ক চাই সংগঠনের চেয়ারপারসন ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, ‘সড়ক দুর্ঘটনা একটি ‘মহামারি’ আকারে দেখা দিয়েছে। এই পরিস্থিতি মোকাবেলায় সমন্বিত উদ্যোগ জরুরি। সে উদ্যোগের অংশ হিসেবেই কাজ করবে ‘শ্রোতা’।
ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, ‘অনেক দিন থেকেই সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ে কাজ করি। আমার ব্যক্তিগতভবে যে আন্দোলন ছিল ‘শ্রোতা’ এটাকে আরও বেগবান করবে। সমন্বিতভাবে সবাই মিলে সমস্যাগুলো চিহ্নিত করলে সেইটার গুরুত্ব বাড়বে।’
সাংবাদিক সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ব্র্যাকের ঊর্ধ্বতন পরিচালক আসিফ সালেহ, বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির সাধারণ স¤পাদক মোজাম্মেল হক চৌধুরী, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন ফেডারেশনের সাংগঠনিক স¤পাদক মোখলেছুর রহমান প্রমুখ।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com