1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৭:১২ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

সুনামগঞ্জ পিডিবি : ধার করা বিদ্যুতে চলে জোড়াতালির সেবা

  • আপডেট সময় রবিবার, ২ অক্টোবর, ২০১৬

শামস শামীম ::
শনিবার দিবাগত রাত ২.৪৪ মিনিটে সুনামগঞ্জ-ছাতক ৩৩ কেবি বিদ্যুৎ সঞ্চলন লাইনে ত্রুটি দেখা দেয়। ফলে বরাবরের মতো বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি)’র বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। এরপর থেকে সুনামগঞ্জ পিডিবি’র প্রায় ২০ হাজার গ্রাহক অন্ধকারে নিমজ্জিত হন। ভ্যাপসা গরমে হাঁপিয়ে ওঠেন গ্রাহকরা। রোববার রাত ৮টার পর পিডিবি’র বিদ্যুৎ সঞ্চলন লাইন স্বাভাবিক হয়। তবে এই ১৪ ঘণ্টা সময়ে চাহিদার ১২ মেগাওয়াট বিদ্যুতের মধ্যে পল্লী বিদ্যুৎ থেকে ধার করে মাত্র ৩ মেগাওয়াট বিদ্যুতে ২০ হাজার গ্রাহককে জোড়াতালির সেবা দেওয়া হয়েছে। গভীর রাতে বিদ্যুৎ চলে যাবার পর ভোর ৪.২২ মিনিটে ওই দিন প্রথম বারের মতো ধারে বিদ্যুৎ এনে কিছু সময়ের জন্য গ্রাহকদের বিদ্যুৎ সরবরাহ করে পিডিবি। সকাল ৮টায় ধার করা বিদ্যুৎ চলে গেলে ৫ ঘণ্টা পর দুপুর ১টায় সরবরাহ করা হয়। পরে আরো কয়েকবার এভাবে বিদ্যুৎ আসা-যাওয়া করে। ৫.২২ মিনিটে আবার বিদ্যুৎ চলে যায়। এভাবে রোববার রাত ৮টা পর্যন্ত চরম ভোগান্তিতে ছিলেন সুনামগঞ্জ পিডিবি’র প্রায় ২০ হাজার গ্রাহক। ওই সময়ে দিরাই-শাল্লার পিডিবি’র গ্রাহকরা প্রায় সারাদিনই ছিলেন বিদ্যুৎহীন।
এই চিত্র শুধু একদিনের নয়, প্রায়ই এমনটি হয় বলে জানান পিডিবি’র গ্রাহকরা। বিদ্যুৎ ভোগান্তি নিত্য থাকলেও সুনামগঞ্জের পিডিবি’র সংশ্লিষ্টরা এই চরম বিদ্যুৎবিঘœতাকে লোডশেডিং নয়; সঞ্চলন লাইনের ত্রুটির কথা বলে থাকেন। গ্রাহকরা জানিয়েছেন ভালো দিন হলেও বিদ্যুৎব্যবস্থা সরবরাহের চিত্র একই রকম। তাই এই খোড়া যুক্তির পেছনে বিতরণ ব্যবস্থায় কোন অনিয়ম থাকতে পারে বলে সচেতন অনেক গ্রাহকের সন্দেহ।
গ্রাহকরা জানান, কোন কারণ ছাড়াই ঘণ্টার পর ঘণ্টা বিদ্যুৎবিহীন থাকতে হয় গ্রাহকদের। বিদ্যুতের এই ভয়াবহ অবস্থা নিয়ে সংশ্লিষ্টরা কখনো গ্রাহকদের যৌক্তিক কিছু বলেননি। টানা বিদ্যুৎ না থাকায় নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন গ্রাহকরা। এই ভোগান্তি শুধু পিডিবির গ্রাহকদেরই নয়। পল্লী বিদ্যুতের প্রায় ১ লাখ ২০ হাজার গ্রাহকের মধ্যে গ্রাম এলাকার গ্রাহকরাও নিত্য ভোগান্তি পোহান বলে অভিযোগ রয়েছে। দিনে ও রাতে পিক আওয়ারেও প্রায়ই বিদ্যুৎ থাকেনা।
সরেজমিন রোববার রাত সাড়ে ৭টায় সুনামগঞ্জ বিদ্যুৎ অফিসের (পিডিবি) কন্ট্রোলরুমে গিয়ে দেখা যায় পল্লী বিদ্যুতের ধার করা বিদ্যুতে ৬টি ফিডারের মধ্যে দুটি ফিডার সচল রাখা হয়েছে। শহরের ৫টি কেভি ফিডারের মধ্যে ওই সময় তিনটি ফিডারই বন্ধ ছিল। মল্লিকপুর, বাজার এলাকা ও বড়পাড়া এলাকায় ওই সময় বিদ্যুৎ সরবরাহ ছিল না। সংশ্লিষ্টরা জানান, সারাদিন কাজ করার পর সুনামগঞ্জ-ছাতক ৩৩ কেভি লাইনে শহরের বিজিবি ক্যাম্প সংলগ্ন সঞ্চলন লাইনে ত্রুটি খুঁজে পায় পিডিবি’র লোকজন। রাত ৮টার পর ওই এলাকার লাইন সংস্কার করে নিজস্ব সঞ্চলন লাইনে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা শুরু করে পিডিবি।
সুনামগঞ্জ পিডিবি ও পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি সূত্রে জানা গেছে, জেলায় পিডিবি’র চাহিদা প্রায় ১২-১৩ মেগাওয়াট। অন্যদিকে পল্লী বিদ্যুতের চাহিদা ২৪ মেগাওয়াট। এর মধ্যে প্রতিদিনই জাতীয় গ্রিড থেকে চাহিদার পরিমাণ বিদ্যুৎ পাওয়া যায় বলে সংশ্লিষ্টরা জানান। শুধু সঞ্চলন লাইনে ত্রুটি ও ত্রুটিপূর্ণ বিতরণ ব্যবস্থার কারণে পিডিবি’র গ্রাহকরা নিত্য বিদ্যুৎভোগান্তি পোহাচ্ছেন। পল্লী বিদ্যুতের গ্রামাঞ্চলের গ্রাহকরাও প্রায়ই বিদ্যুৎ ভোগান্তিতে থাকেন। তবে ২০০৭ সালে ছাতকের ৩৩ কেভি লাইন থেকে নিজেরা সঞ্চলন লাইন তৈরি করায় পল্লী বিদ্যুতের সরবরাহ ব্যবস্থা টেকসই বলে জানা গেছে।
সরকারের দেওয়া তথ্য মতে, দেশের কোথাও লোডশেডিং নেই। এমনকি পিডিবির ওয়েবসাইটেও লোডশেডিংয়ের উল্লেখ নেই। বিদ্যুৎ না থাকা বা গ্রাহক ভোগান্তি বিষয়ে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, লোডশেডিং নয় বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনে ত্রুটি ও দুর্বল বিতরণ ব্যবস্থার কারণে প্রতিদিন ঘণ্টার পর ঘণ্টা বিদ্যুৎহীন থাকছেন গ্রাহকরা। সুনামগঞ্জের পল্লীবিদ্যুৎ ও পিডিবি’র প্রায় ১ লাখ ৪০ হাজার গ্রাহক এই কারণেই নিত্য ভোগান্তির শিকার বলে তারা মনে করেন।
শহরের উকিলপাড়া আবাসিক এলাকার বাসিন্দা ও আইনজীবী কল্লোল তালুকদার চপল বলেন, দীর্ঘদিন ধরে জেলা শহরের বিদ্যুৎ ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে। নিত্য ভোগান্তিতে আছেন গ্রাহকরা। কোন কারণ ছাড়াই যখন-তখন বিদ্যুৎ চলে যায়। পিডিবি’র বিদ্যুৎ সঞ্চলন লাইন ত্রুটির খোড়া যুক্তি আমাদের মনে সন্দেহ সৃষ্টি করেছে। সুনামগঞ্জের বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থায় বড় রকমের অনিয়ম রয়েছে বলে আমরা মনে করি।
সুনামগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জ্যানারেল ম্যানেজার সোহেল পারভেজ বলেন, চাহিদার সবটুকু বিদ্যুতই আমরা নিয়মিত পাই। তাই এখানে সাধারণত কোন লোডশেডিং নেই। পিডিবি’র ত্রুটিপূর্ণ সঞ্চলন লাইনের কারণে প্রায়ই আমাদের কাছ থেকে তারা বিদ্যুৎ ধার করে। গতকালও (রোববার) প্রায় ১৪ ঘণ্টা আমাদের কাছ থেকে তাদের গ্রাহকদের সেবা দেওয়া হয়েছে। এতে আমাদেরও সমস্যা হচ্ছে।
সুনামগঞ্জ পিডিবির নির্বাহী প্রকৌশলী মো. কামরুজ্জামানের মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com