1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ০৭:১৪ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

উদীচী’র পরিবেশনায় ‘ইতিহাস কথা কও’ : মঞ্চে বাঙালির মুক্তির আন্দোলন

  • আপডেট সময় সোমবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

স্টাফ রিপোর্টার ::
জেলা উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর একটা আয়োজন। এক সন্ধ্যাকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার গল্পে সাজিয়ে নেয়া। অভিনয়ে ফুটিয়ে তোলা বিভীষিকাময় আর সংগ্রামমুখর একাত্তর; মুক্তিযোদ্ধাদের সংগ্রামী এক-একটা দিন। লাল সবুজের আলোতে মুক্তিযুদ্ধ- স্বাধীনতা আর বর্তমান বাংলাদেশকে দর্শকদের সামনে উপস্থাপন। আয়োজন বাংলাদেশের সৃষ্টির গল্প-ইতিহাসের। সুরে তালে অভিনয়ে শিল্পীদের কণ্ঠে একটা অনন্য ইতিহাস। বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী সুনামগঞ্জ জেলা সংসদের শিল্পীদের পরিবেশনায় গতকাল রোববার সন্ধ্যায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে মঞ্চস্থ হয় গীতি আলেখ্য ‘ইতিহাস কথা কও’।
জেলা শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে উদীচীর সদস্যরা এ আনুষ্ঠানিকতাকে সাজিয়ে তোলেন। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত এ আয়োজনে উপস্থিত দর্শকরা যেন কিছু মুহূর্তের জন্য ফিরে গিয়েছিলেন ১৯৭১ সালের সেই মুক্তির আন্দোলনের দিনগুলোতে।
অনুষ্ঠানে এক সংক্ষিপ্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী সুনামগঞ্জ জেলা সংসদের সভাপতি ও দৈনিক সুনামকণ্ঠ সম্পাদক ও প্রকাশক বিজন সেন রায়ের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলমের পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলাম।
এ সময় তিনি বলেন, ‘আমরা এক অন্যতম জাতি, আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে আমরা মহান মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলাম। অর্জন করেছিলাম লাল-সবুজের পতাকা, সার্বভৌম বাংলাদেশ। পৃথিবীতে আমরাই একমাত্র জাতি যারা ভাষার জন্য প্রাণ দিয়েছে। আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে। স্বাধীনতা বাংলাদেশের ভিত্তি। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় আমাদেরকে দেশের উন্নয়নে কাজ করতে হবে। দেশের সার্বিক দিক বিবেচনা করে আমাদেরকে কর্মমুখি হতে হবে। দেশের জন্য কিছু করতে হবে। যে সোনার বাংলা আমরা গড়তে চাই তা একার পক্ষে সম্ভব নয়। সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে স্বাধীনতা বিরোধী শক্তিকে প্রতিহত করতে হবে। উদীচী’র শিল্পীরা বাংলাদেশের মুক্তিসংগ্রামের যে গল্প উপস্থাপন করেছেন তা একজন বাঙালিকে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ করবে। তাদের এ পরিবেশনা আমাকে মুগ্ধ করেছে। একজন বাঙালি হিসেবে আমি নিজেকে ধন্য মনে করি।’
আলোচনায় অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিজিবি অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল নাসির উদ্দিন আহমেদ (পিএসসি), বীর মুক্তিযোদ্ধা মতিউর রহমান, নারীনেত্রী শীলা রায়, শিক্ষাবিদ পরিমল কান্তি দে, ডা. সালেহ আহমেদ আলমগীর, নারীনেত্রী ফৌজি আরা বেগম শাম্মী। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. কামরুজ্জামান।
আলোচনাপর্ব শেষে শুরু হয় বাংলাদেশ সৃষ্টির ইতিহাস নিয়ে গীতি আলেখ্য ‘ইতিহাস কথা কও’। এতে মূল ভোকাল ছিলেন উদীচী সঙ্গীত বিভাগের অয়ন চৌধুরী ও শুভজিৎ সেন রায় আপন।
ব্রিটিশ শাসন থেকে শুরু করে পাকিস্তানিদের অত্যাচার নির্যাতনের শিকার বাঙালিদের মুক্তির আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধ- স্বাধীনতা অর্জন, মুক্তিযোদ্ধাদের জীবনকথা, পঙ্গুত্ব বরণ এবং স্বাধীন বাংলাদেশে রাজাকারদের হুংকার দিয়ে চলার মতো দুঃসাহসেরও উল্লেখ করা হয়। এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেতে বাঙালিকে স্বাধীনতা বিরোধীশক্তির বিপরীতে আবারো নতুন এক মুক্তিযুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানানো হয়।
মাহমুদ সেলিমের রচনায় ও ডা. সালেহ আহমদ আলমগীরের নির্দেশনায় গীতি আলেখ্যটি পরিচালনা করেন জাহাঙ্গীর আলম। এছাড়াও অভিনয়ে ছিলেন জাহাঙ্গীর আলম, মাহবুব, পুলক, ইমন, হাবিব, তৈয়বুর, অন্তু, নাহিদ, বর্ষা। গানে ছিলেন অন্তরা খাসনবিস, ডাল্টন, জহির, প্রসেনজিৎ, চন্দনা, বাসনা, বন্দনা, লিমা প্রমুখ। কবিতায় ছিলেন সাগর, রুবাইয়া। বাদ্যযন্ত্রে ছিলেন অঞ্জন চৌধুরী ও সহশিল্পীরা।
এ অনুষ্ঠানে জেলা শহরের সর্বস্তরের সাংস্কৃতিক-সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন পেশাজীবী ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com