1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০১:৪৪ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

গৃহদাহে পুড়ছে বিশ্বম্ভরপুর বিএনপি

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৩০ আগস্ট, ২০১৬

বিশ্বম্ভরপুর প্রতিনিধি ::
গৃহদাহে পুড়ছে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা বিএনপি। গ্রুপিং, সংঘর্ষ পাল্টা সংঘর্ষ ঘিরে চলছে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা বিএনপি’র রাজনীতি। ইতোমধ্যে তিন বলয়ে বিভক্ত হয়ে পড়েছে উপজেলা আহ্বায়ক কমিটি। যুবদল, ছাত্রদল, শ্রমিকদল, কৃষক দল, স্বেচ্ছাসেবক দলসহ বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠন সমূহে ভবিষ্যতে সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকসহ বিভিন্ন পদ বাগাতে এসব অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের কর্মীরাও নেতৃত্ব পাবার আশায় তিন বলয়ে বিভক্ত। সেই সাথে কতিপয় নেতকর্মীরা গ্রুপ অদল-বদলও করছেন। কেউ আবার দুই নৌকায় পা রাখছেন। কখনও আছপিয়া বলয়, কখনও নাছির বলয়, কেউ আবার কেন্দ্রীয় বলয়। অন্তর্কোন্দলে সংঘর্ষে জড়াচ্ছেন বিবদমান গ্রুপের নেতা-কর্মীরা। গত ২৭ আগস্ট শনিবার বিশ্বম্ভরপুর বিএনপির ত্রিখন্ডের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ বাধে। এ নিয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে একটি সূত্র জানায়।
দলীয় সূত্র জানায়, গত বছরের ১৭ নভেম্বর বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক কমিটিতে ঠাঁই পাওয়া, না পাওয়া নিয়ে প্রকাশ্যে গ্রুপিং শুরু হয় এবং নাছির উদ্দিন চৌধুরী ও ফজলুল হক আছপিয়া বলয়ে বিভক্ত হয়ে পড়েন উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা। পরে দলীয় স্বার্থ বিবেচনায় গত বছরের ২২ আগস্ট দু’গ্রুপ ঐক্যবদ্ধ হয়ে আহ্বায়ক কমিটির প্রথম সভায় মিলিত হন। কিন্তু বছর যেতে না যেতেই সম্প্রতি জুন মাসে হঠাৎ করে দুই থেকে তিন ভাগে বিভক্ত হয়ে ইফতার কর্মসূচি পালন করে পৃথক ৩টি গ্রুপ। সম্প্রতি ২৭ আগস্ট শনিবার বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন উপলক্ষে পৃথক তিন গ্রুপ প্রস্তুতি সভা করে। একপক্ষের নেতৃত্বে রয়েছেন উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হারুনুর রশিদ, অপরপক্ষের নেতৃত্বে রয়েছেন উপজেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক কমিটির প্রথম সদস্য অ্যাড. আব্দুল হক, এছাড়া আরেক পক্ষের নেতৃত্বে রয়েছেন উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মদিনা আক্তার।
উপজেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মদিনা আক্তার বলেন, কমিটির নেতৃবৃন্দের পরামর্শ না নিয়ে ব্যক্তিগতভাবে দলীয় কাজ করলে গ্রুপিং তো হবেই।
উপজেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক কমিটির প্রথম সদস্য অ্যাড. আব্দুল হক বলেন, আহ্বায়ক কমিটির প্রায় ৭৫শতাংশ সদস্য আমরা এক সঙ্গে আছি। আমরাই মূলধারা। আহ্বায়ক বিএনপির আদর্শ বাদ দিয়ে রাজনীতি করেন।
এ বিষয়ে উপজেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হারুনুর রশিদ জানান, উপজেলা আহ্বায়ক হিসেবে ডাকা তাঁর শান্তিপূর্ণ সভা বানচালে হামলা করা হয়।
অ্যাড আব্দুল হক বলেন, তাঁর পৃথক সভাস্থলে যেতে বরং তার গতিরোধ করে হামলা করা হয়েছে।
এদিকে উপজেলা বিএনপি’র শীর্ষ নেতৃবৃন্দের মধ্যে মতদ্বন্দ্বের বিরূপ প্রভাব পড়ছে তৃণমূল নেতা-কর্মীদের মধ্যে। সাধারণ নেতাকর্মীরা চান, শীর্ষ নেতৃবৃন্দ তাদের মধ্যকার বিরোধ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে তৃণমূল থেকে বিএনপিকে শক্তিশালী করতে কাজ করবেন।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com