1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
রবিবার, ২৬ জুন ২০২২, ০২:১৭ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

জেলার ৫৩৯টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক নেই

  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ২৫ আগস্ট, ২০১৬

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায় ৪৭, ধর্মপাশায় ৭৫টি, ছাতকে ৬০টি, দিরাইয়ে ৫১টি, জামালগঞ্জে ৫৯টি, বিশ্বম্ভরপুরে ২৩টি, তাহিরপুরে ৫৩টি, শাল্লায় ৪৭টি, দোয়ারাবাজারে ২৪টি, দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ৪৯টি বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য পদ রয়েছে।
মাহমুদুর রহমান তারেক ::
সুনামগঞ্জ জেলার ৫৩৯টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দীর্ঘদিন ধরে প্রধান শিক্ষক নেই। ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দিয়ে ওই সব প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম চলছে। এতে বিদ্যালয়গুলোতে পাঠদানসহ দাপ্তরিক কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। বাড়তি ক্লাস নিতে গিয়ে সহকারি শিক্ষকরাও পড়েছেন বিপাকে। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস জানিয়েছে, শূন্য পদ পূরণে তারা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, জেলার ১১টি উপজেলায় ১৪২৬শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। এর মধ্যে ৫৩৯টি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকপদ শূন্য। এছাড়া ৬৮২টি সহকারী শিক্ষকের পদও দীর্ঘ দিন ধরে শূন্য আছে। এর মধ্যে অনেক বিদ্যালয়ে ৩মাস থেকে শুরু করে ২বছর পর্যন্ত প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য রয়েছে। সুনামগঞ্জ সদর, বিশ্বম্ভরপুর, দোয়ারাবাজার উপজেলায় তুলনামূলকভাবে শিক্ষক পদ শূন্য কম। যোগাযোগ ব্যবস্থা খারাপ ও হাওর অধ্যুষিত এলাকার বিদ্যালয়গুলোতে প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য বেশি।
সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায় ৪৭, ধর্মপাশা উপজেলায় ৭৫টি, ছাতক উপজেলায় ৬০টি, দিরাই উপজেলায় ৫১টি, জামালগঞ্জ উপজেলায় ৫৯টি, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় ২৩টি, তাহিরপুর উপজেলায় ৫৩টি, শাল্লা উপজেলায় ৪৭টি, দোয়ারাবাজার উপজেলায় ২৪, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় ৪৯টি বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য পদ রয়েছে। প্রধান শিক্ষক না থাকায় এসব বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষকরাই ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করছেন।
সদর উপজেলার ইনাতনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শিখা রানী পুরকায়স্থ বলেন, আমাদের বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নেই প্রায় দেড় মাস হয়েছে। উনি যাওয়ার পর আমাকে ভারপ্রাপ্ত শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে। পাঠদান ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক, এই দুই দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে কিছুটা সমস্যা হচ্ছে। প্রধান শিক্ষক থাকলে তো এই সমস্যা হত না।
ইনাতনগর গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল হক বলেন, আমাদের গ্রামের বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক নাই। একজন সহকারি শিক্ষক আছেন প্রশিক্ষণে। এখন দুই জন শিক্ষক না থাকায় অন্য শিক্ষকদের একই সঙ্গে দুই রুমে দুটি ক্লাস নিতে হয়। এতে সঠিকভাবে পাঠদান হচ্ছে কিনা আমরা বুঝতে পারছিনা।
সদর উপজেলার আহমেদাবাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা রিপা রানী রায় বলেন, পাঁচ মাস হয়েছে আমাদের বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক নেই। এ কারণে কিছুটা স্বাভাবিক কার্যক্রমে ব্যাঘাত ঘটছে। বিদ্যালয়ের সবাই সহকারি শিক্ষিকা। এখন প্রধান শিক্ষকের কাজ করতে গিয়ে সমস্যা পড়তে হয়। বাড়তি ক্লাসও আমাদের নিতে হচ্ছে। আমাদের বিদ্যালয়ে জরুরি ভিত্তিতে প্রধান শিক্ষক প্রয়োজন।
এই বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি দিলসাদ আহমদ চৌধুরী বলেন, প্রধান শিক্ষক না থাকায় দাপ্তরিক কাজসহ পাঠাদানে অন্য শিক্ষকদের হিমশিম খেতে হয়।
সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হারুন রশিদ বলেন, একটি বিদ্যালযের প্রধান হলেন প্রধান শিক্ষক। যদি বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য থাকে তাহলে সহকারি শিক্ষকরা কার্যক্রম চালাতে গিয়ে গতি হারিয়ে ফেলেন। অনেক সময় পাঠদানেও শিক্ষকরা সমস্যায় পড়েন। সরকার প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়নে সরকার যে উদ্যোগ নিচ্ছে তা অনেকটা বাধাগ্রস্ত হচ্ছে সরকারি বিদ্যালয়গুলোতে প্রধান শিক্ষক ও সহকারি শিক্ষক পদ শূন্য থাকায়। আমাদের দাবি অচিরেই যেন পদগুলো পূরণ করা হয়।
শিক্ষাবিদ দিলীপ কুমার মজুমদার বলেন, সুনামগঞ্জ একটি প্রত্যন্ত জেলা, এটি ভাটি এলাকা হিসেবে পরিচিত। আমার জানা মতে জেলার অনেক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক নেই। ভাটি এলাকা বলে বিষয়টি অবহেলা করা উচিত না। প্রধান শিক্ষক না থাকলে ওইসব এলাকায় শিক্ষার মান স্বাভাবিকভাবে কমবে। শিক্ষকদেরকে সঠিকভাবে পরিচালনা ও শিক্ষার্থীদের যথাযথ শিক্ষায় অনুপ্রাণিত করতে হলে শূন্য পদ পূরণ জরুরি। পদ পূরণ করলে শিক্ষকদের মধ্যে টিম স্পিড চলে আসবে। শিক্ষার মানও উন্নয়ন হবে।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. হযরত আলী জানান, পাঠদানসহ অন্যান্য কার্যক্রম স্বাভাবিক রাখতে বিদ্যালয়েগুলোতে প্রধান শিক্ষক ও সহকারি প্রধান শিক্ষকের পদ জরুরিভাবে পূরণ করা প্রয়োজন। শূন্যপদের তালিকা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে দেয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com